বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

বিশ্ব কবিতা দিবসে পারস্যের হৃদয় থেকে সরাসরি কয়েক ছত্র

নিজামি গানজাভি লিখিত লায়লা মজনু মহাকাব্যের ভিত্তিতে অঙ্কিত আজারবাইজানের লোকচিত্র।

প্রাক্তন সোভিয়েত ইউনিয়নের একমাত্র ফার্সী ভাষী রাষ্ট্র তাজিকিস্তানের এক নাগরিক যে ভাবে পরিবার অথবা বন্ধুদের সাথে কাটানো এক রাত্রির বর্ণনা প্রদান করবে।

সম্ভবত সে এই সময়ের বর্ণনায় দিল আফরুজ শব্দটি ব্যবহার করবে, যার আক্ষরিক অর্থ হৃদয়ে আগুণ জ্বালিয়ে দেওয়া।

যদি উক্ত ব্যক্তি নিঃসঙ্গ অবস্থায় হতাশায় একাকী রাত্রী যাপন করে, তখন সে এই রকম পরিস্থিতির বর্ণনা দেওয়ার জন্য হয়ত দিলতাং শব্দটি বেছে নিতে পারে, যার অর্থ হচ্ছে হৃদয়কে আরো সঙ্কুচিত করে ফেলা।

তাজিকস্তান এমন এক রাষ্ট্র যেখানে কবিতা নাগরিকের ধমনীতে প্রবাহিত হয়, এখানে প্রেমের পড়ার বিষয়টি অজস্র উপায়ে ব্যাখ্যা করা যেতে পারে। প্রেমে পড়লে কাউকে বলা হবে দিল বাস্তান (হৃদয়ের বন্ধনে আবদ্ধ হওয়া) অথবা দিল গুম জাদান (যে হৃদয় বিরামহীন ছুটে চলছে)।

ঘটনাক্রমে যারা এই ধরণের অবস্থায় পতিত হয়, এর ফলে যে বিষয়ের উদ্ভব ঘটে তাকে হয়ত বলা হবে দিল রাবো (হৃদয় হরণ হয়ে যাওয়া), অথবা কারো হৃদয়কে শীতল করে দেওয়ার ক্ষেত্রে বলা যেতে পারে দিল খুননুক সুধান, কোন এক নাটকীয়তার মাধ্যমে বোকা হয়ে যাওয়া।

হৃদয়ের আনন্দে এবং ছন্দে ভরা ভাষা

ইন্দো ইরানিয়ান ভাষা ফার্সী (যা ইরানের মাতৃভাষা) এবং দারির (আফগানিস্তানের ভাষা) সাথে তাজিক ভাষার মিল রয়েছে। ফার্সী ভাষায় হৃদয়ের উচ্চারণ হবে অনেকটা দেল এর মত আর দারি ভাষায় এর উচ্চারণ দিল যা তাজিক ভাষায় প্রায় সমোচ্চারিত শব্দ।

মানি১ এর তৈরি করা বিশ্বের এক মানচিত্র, যেখানে তুলে ধরা হয়েছে বিশ্বের কোন কোন অঞ্চলে ফার্সী ভাষায় কথা বলা হয়।

এছাড়াও উপরের ইউরোশিয়া অঞ্চল চিহ্নিত এলাকায় দিল (সিরিলিক লিপি বা রুশ ভাষায় дил এভাবে দিল শব্দটি লেখা হয়, যা এখনো তাজিকিস্তানে ব্যবহার করা হয়ে) এখনো এক সমৃদ্ধ কাব্যময় ঐতিহ্যর এক হৃৎ ঝঙ্কার যা খৃস্টের জন্মের প্রথম অব্দ থেকে শোনা গেছে।

এই ঐতিহ্যের অন্যতম একজন হচ্ছে প্রখ্যাত সাধক হচ্ছেন জালাল উদ্দিন রুমি। ১৩শ শতাব্দীর এক ভবঘুরে শব্দ নির্মাণের কারিগর এবং দার্শনিক, যিনি ফার্সী ভাষী সকল জনগোষ্ঠীর কাছে অত্যন্ত প্রিয়

Ҳар чӣ дар дил дорӣ аз макру румуз,

Пеши мо расвосту пайдо ҳамчу рӯз

হৃদয়ে লুকিয়ে রাখা গোপন কথা, আর মিথ্যাচার
চোখের তারায় দৃশ্যমান দিনের মত পরিষ্কার

হৃদয়ের নেই কোন দেশ …

তবে রুমির প্রেমবাদ আড়ালে ঢাকা পড়ে যায় তার একশ বছর আগে জন্ম নেওয়া এক চারণ কবি নিজামি গানজাভির মহাকাব্যের কারণে।

গানজাভি নামটির উৎপত্তি গানজা এলাকা থেকে (তার নামের আক্ষরিক অর্থ হচ্ছে গানজা নামের এলাকার নিজাম নামক ব্যক্তিটি) যা বর্ত মানে আজারবাইজানের অংশ।
এখানে তার কিছু মহাকাব্যে খসরো ও শিরিন থেকে কিছু চরণ তুলে ধরা হল, খসরো ছিলেন এক সাসানীয় শাসক তিনি আর্মেনিয়ার রাজকন্যা শিরির হৃদয় জয় করার জন্য নিজের প্রতিদ্বন্দ্বী ফরহাদের সাথে কবিতার লড়াইয়ে জড়িয়ে পড়ে।

Бигуфт: Аз дил шудӣ ошиқ бад-ин сон?

Бигуфт: Аз дил ту мегўӣ, ман аз ҷон.

Бигуфто: Ишқи Ширин бар ту чун аст?

Бигуфт: Аз ҷони ширинам фузун аст!..

Бигуфто: Дил зи меҳраш кай кунӣ пок?

Бигуфт: Он гаҳ, ки бошам хуфта дар хок…

Бигуфт: Аз дил ҷудо кун ишқи Ширин.

Бигуфто: Чун зиям бе ҷони ширин?

প্রশ্নঃ তুমি কী হৃদয় দিয়ে বেসেছ ভালো?
উত্তরঃ তোমার হৃদয় বল কথা, আর আমি বলি আত্মা দিয়ে,
প্রশ্নঃ কখন তুমি তোমার ভালবাসা থেকে নিজের হৃদয় সরিয়ে নেবে
উত্তরঃ যখন আমি কেবল কবরে শায়িত হব
প্রশ্নে বলা হলঃ হৃদয় থেকে শিরিনের ভালবাসা মুছে ফেলো
উত্তর এলোঃ তবে আমি আমার আত্মা ছাড়া আমি বাঁচবো কি করে?

তাজিকিস্তানের মহান কবি রুদাকির সমাধি।জুলিয়ান গালবার্ট-এর ক্রিয়েটিভ কমন্স ফ্লিকার ছবি

এমনকি আরো খানিকটা পিছিয়ে যাওয়া যাক (৮৫৮-৯৪১ খিস্টাব্দ), পাঞ্জিকেনতে (আধুনিক তাজিকিস্তান ) কবি রুদাকি, কারো কারো মতে যে ফার্সী কবিতার পুরোধা।

Бар ишқи туям на сабр пайдост, на дил,

Бе рӯйи туям на ақл бар ҷост, на дил!

Ин ғам, ки марост кӯҳи қоф аст, на ғам,

Ин дил ки турост, санги хорост, на дил!

তোমার ভালবাস আস্থা আর আমার আত্মা ছিনিয়ে সুন্দর মুখশ্রী আমার মন ও হৃদয়কে করে ফেলে এলোমেলো
আমার হৃদয়ে যে বিষাদ, এক পাহাড় চেপে রাখা বুক
তোমার বক্ষের নীচে পাথর হৃদয়, নেইকো যেথায় দুঃখ সুখ,

২১ শতকে, ইন্টারনেট এবং সোশ্যাল মিডিয়ার কল্যাণে এক সময় পারস্য সাম্রাজ্যের অন্তর্ভুক্ত সীমানায় বাস করা কবিদের অজস্র কবিতা নেটে তুলে ধারার পরিমাণ দারুণ ভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে।
২১ শতকের এক তাজিক কবি ফিরদৌস আজম,তিনি নীচে তার লেখা কবিতা তুলে ধরার জন্য প্রায়শই ফেসবুকের ব্যবহার করেন:

Рӯзе миёни хотираҳо гумном мешавам,
Аз чашми хотирот бигирӣ суроғи дил.

Хилофи майли худам аз баҳор дил кандам
Ки додаанд ба пойизи сард пайвандам.

একদিন আমি স্মৃতির মাঝে হব বিলীন
প্রিয়ে, তুমি তোমার স্মৃতির মাঝে আমার হৃদয় খুঁজে দেখো
আমার ইচ্ছের বিরুদ্ধে আমি আমার হৃদয়কে ছিন্ন বিচ্ছিন্ন করে।।
কারণ তারা আমাকে এক শীতল শরতে আটকে রেখেছে…

শুভ বিশ্ব কবিতা দিবস!

১৯৯৯ সালে জাতিসংঘ ২১ মার্চকে বিশ্ব কবিতা দিবস হিসেবে পালনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে, যে দিনটি ইউরোশিয়া অঞ্চলের বেশির ভাগ জায়গায় বসন্তের আগমন দিবস হিসেবে চিহ্নিত করে হয়।)।
এটা অনেকটা অস্বাভাবিক বিষয় যে কাকতলীয় ভাবে এই দুটি দিন মিলে যাওয়া যা ছিলো ঘটনাক্রমে নেওয়া। জাতিসংঘের এই সিদ্ধান্তের ধারনাটা এমন একটা দিনে এলো যেদিন ইউনেস্কোর প্রাক্তন ডিরেক্টর জেনারেল ইরিনা বোকোভা মন্তব্য করেন যে “ কবিতা সংস্কৃতির মাঝে এক সৃষ্টিশীল শক্তির সঞ্চার করে। যা কিনা সবসময় ফিরিয়ে আনা যায়।”

ফার্সী ভাষী বিশ্বের যারা বাস করে, তাদের জন্য নওরোজের দিনটি হচ্ছে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটা দিন।। আর তার ফলে কবিতার ঐতিহ্যের ক্ষেত্রে যে দিনটি দারুণ ভাবে অবদান রেখেছে সেই একই দিনে এর স্বীকৃতি প্রদান করা বিষয়টি অনুভব করা, গভীরভাবে এক প্রতীকী বিষয়।

যেমন একটা কথা আছে” কেবল এক চলতে থাকা হৃদয় চলার পথে হৃদয়ের সন্ধান লাভ করে।”

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .