বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ইরানকথপোকথন বিষয়ে বলিষ্ঠ (এবং মাঝে মাঝে তীক্ষ্ণ সমালোচনামূলক) সংবাদের জন্য টুইটারে কাকে অনুসরণ করবো

Those reporting and following the nuclear negotiations in Lausanne have some good coverage on twitter. Sometimes even humorous.

যারা লাউজান-এ অনুষ্ঠিত পারমানবিক আপোস-রফার আলোচনার উপর প্রতিবেদন করছেন ও একে অনুসরণ করছেন তারা টুইটারে কিছু ভাল, এমনকি কখনও কখনও রসাত্মক সংবাদও উপস্থাপন করেছেন।

কেউ কেউ বলে যে ইতিহাস তৈরী হচ্ছে। কেউ কেউ বলে যে এটি আন্তর্জাতিক সম্পর্কের ক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় কূটনৈতিক সার্কাস। উভয় ক্ষেত্রেই, এগুলো হলো ১৯৭৯ সালের ইসলামী বিপ্লবের পর থেকে ইরান ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে আশা, সন্দেহ, এবং সমালোচনার উচ্ছাস ঘটানো সবচেয়ে পুঙ্খানুপুঙ্খ আলোচনা।

ইরানী আপস-রফাকারীরা যখন এদের পারমানবিক কার্যক্রমের ধরন এবং আন্তর্জাতিক নিষেধাজ্ঞা তোলার বিষয়ে পি৫+১ (যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, রাশিয়া, চীন, ফ্রান্স, আর জার্মানীর সমন্বয়ে গঠিত একটি দল)-এর সাথে বাদানুবাদে জড়িয়ে পড়েছে, বিশ্ব তখন টুইট করছে। যখন সংবাদ প্রকাশে উষ্মা বৃদ্ধি পাচ্ছে এবং আলোচনা ৩১শে মার্চ সময়সীমা অতিক্রান্ত করে গেছে, তখন সুইজারল্যাণ্ড-এর লাউজান-এ কী ঘটছে সেখান থেকে পাঠানো সংবাদের কয়েকটি দরকারী, এবং মাঝে মাঝে রসাত্মক লেখা সম্বলিত হিসাবের কথা উল্লেখ করা হলো।

ইরানী শিক্ষার্থীদের সংবাদ এজেন্সীর (আইএসএনএ) চিত্র সাংবাদিক আমিন খোসরোশাহি-এর কাছে বেশ ভাল ছবি আছে, যার মধ্যে প্রায়শই লাউজানে ইরানী আপোস-রফাকারী দলের খুব ভাল ভাল ছবি থাকে। টুইট করা ছবিগুলোর নীচে লেখা ‘আপোস-রফার আলোচনার সপ্তম দিনে ইরানী প্রতিনিধিদের জন্য একটি কর্ম অধিবেশন'।

ইন্দিরা লাক্‌সমানান ব্লুমবার্গ সংবাদ পররাষ্ট্র নীতি বিষয়ক একজন সাংবাদিক। তিনি প্রতি মিনিটের বাস্তব প্রতিবেদন, এবং কিছু রসাত্মক তামাশার একটি ভাল উৎস।

সাদা ধোঁয়া বা কালো ধোয়া দেখার জন্য লাউজানে বো রিভায-এর চিমনি দেখছি। এখন পর্যন্ত শুধু মাত্র ধোঁয়া ও আয়না

আমাদের সর্বশেষ: লাভরভ-এর চুক্তি অবশ্যম্ভাবী বলার মাধ্যমে আজকে #ইরানআলোচনা আবারও শুরু হয়েছে: আরাগ্‌চি বলছে ইউএন এর উপর ‘নির্মাণকাঠামো’ প্রয়োজন।

আরাশ আজিজি ইরানী উপগ্রহ চ্যানেল মানোতো-এ কাজ করা একজন ফার্সি-ভাষার টেলিভিশন সাংবাদিক, যিনি ফার্সি ও ইংরেজী ভাষায় সংবাদ পরিবেশন করেন। কয়েকটি রসাত্মক পরিহাসও দেয়া হয়েছে।

‘তাদের কিরকম যাচ্ছে’ আমাদের করা এই প্রশ্নের উত্তরে সচীব আর্ণেষ্ট মনিত্জ এইমাত্র আমাদেরকে বললো #ইরানআলোচনা ‘গেছে'।

আল মনিটর-এর মধ্য প্রাচ্যের একজন সাংবাদিক লাউরা রোত্জে‌ন-এর কাছে আপস-রফার আলোচনার সময় কী হচ্ছে তার উপর পুঙ্খানুপুঙ্খ প্রতিবেদন আছে তার আল মনিটর-এর ‘পশ্চাৎ চ্যানেলে‘। লাউজানে থাকতে কেমন লাগে তা চিত্রিত করায় তার টুইটগুলো বেশ ভাল কাজ করে:

লাউজানে বিলাসবহুল হোটেলের কামরার ভিতরে জমে যাওয়া ঠান্ডার মধ্যে গাদাগাদি করে থেকে ভাবছি আমরা হয়তো এখানে অনন্তকাল ধরে আটকে থাকবো।

ফ্রান্স ২৪ এর জন্য প্রতিবেদন কাজে নিয়োজিত একজন বৃটিশ-ইরানী সাংবাদিক সানাম শান্তিয়ায়ি, যিনি তাকে পাশ কাটিয়ে যাওয়া কূটনীতিদের উপর ছোট ছোট সুন্দর টুকিটাকি তথ্য টুইট করেন, যেমন ‘লাউজানে অজ্ঞাতসারে শোনা’ এই ক্ষণের মতো:

মন্ত্রী স্টাইনমায়ারকে জিজ্ঞাসা করেছিলাম যে সে লাউজানে ফেরত আসবে কিনা। কোন দ্বিধা ছাড়াই সে উত্তর দিলো: ‘হ্যাঁ'!

এ্যালেন আয়ার রাষ্ট্র অধিদপ্তরের একজন মুখপাত্র যিনি ইরানী মাধ্যমগুলোতে কী চলছে সে বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের আপস-রফা দলের কাছে বিশ্লেষণ প্রদানকারী হিসেবে পরিচিত। তার টুইটারের ধারা সাধারণত অন্যান্য ব্যক্তির সংবাদের পুনর্টুইট দ্বারা পূর্ণ থাকে, কিন্তু সেখানে সবসময়ই বক্তব্যসম্পন্ন টুইট থাকে, যেমন ৩১শে মে-এর খুব সকালে তার পোষ্ট করা এই ছবিটির মতো (এই আলোচনায় জড়িত অনেকেই যে নির্ঘুম রাতের অভিজ্ঞতা হয়েছে তা তিনি বুঝিয়ে দিয়েছেন)।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .