বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

জিভি অভিব্যক্তিঃ “আপনারা তীব্র গন্ধ ছড়াচ্ছেন” নামক লেবাননের প্রবল বিক্ষোভ সম্বন্ধে আপনাদের সকলের জানা উচিত

২২ এবং ২৩ আগস্টে, লেবাননের রাজধানী বৈরুতে স্মরণকালের সবচেয়ে বৃহত্তম বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়, যেদিন ২০,০০০ নাগরিক সরকারকে এই কথা বলার জন্য জড়ো হয় যে “আপনারা তীব্র গন্ধ ছড়াচ্ছেন”

জিভি অভিব্যক্তির এই সংখ্যায়, গ্লোবাল ভয়েসেস–এর কন্ট্রিবিউটর ফাতেন বুশেহিরি বৈরুতের বাসিন্দা ও গ্লোবাল ভয়েসেস-এর কন্ট্রিবিউটর জোয়ে আইয়ুব-এর সাথে কথা বলেছে, যে আপনি “আপনারা তীব্র গন্ধ ছড়াচ্ছেন” বা “طلعت ريحتكم” (ইউ স্টিঙ্ক)-এর সংগঠকদের সাথে এই আন্দোলন নিয়ে খুঁটিনাটি আলাপ করেছেন।  

১৭ জুলাই থেকে লেবাননে আবর্জনা সঙ্কটের শুরু, যখন দেশটির সবচেয়ে বড় আবর্জনা স্তুপ রাখার কেন্দ্র নাআমাহ সিটির বাসিন্দার এখানে আবর্জনা ফেলা বন্ধ করে দেয়। এটি বৈরুত এবং মাউন্ট লেবানন এলাকার আবর্জনা রাখার কেন্দ্র-যে দুটি এলাকায় দেশটির মোট জনসংখ্যার প্রায় অর্ধেক নাগরিক বাস করে।

এই আবর্জনা সঙ্কটের সমাধানে সরকার ব্যর্থ হয়েছে, যার ফলে রাস্তায় আবর্জনার স্তুপ জমে গেছে, ফলে এখন নাগরিকরা মুখে রুমাল (মুখোশ) দিয়ে হাটতে বাধ্য হচ্ছে।

“আপনারা তীব্র গন্ধ ছড়াচ্ছেন” নামক আন্দোলনের শুরু আবর্জনা সঙ্কটের এক গ্রহণযোগ্য সমাধানের দাবীতে, এবং এই দাবী জনগণকে রাস্তায় নামিয়ে আনে, কিন্তু শীঘ্রই পরিস্থিতি পাল্টে যায় এবং এই আন্দোলন আবর্জনা চেয়ে আরো বড় আকারের সঙ্কট, সরকারের দূর্নীতি সংক্রান্ত সমস্যা তুলে ধরে।

লেবানন তার বাজে অবকাঠামোর কারণে ইতোমধ্যে সঙ্কটের মধ্যে রয়েছে এবং প্রতিদিন সেখানে বিদ্যুৎ বিভ্রাটের ঘটনা ঘটেছে, সেখানে ১ বছর ধরে কোন রাষ্ট্রপতি নেই, এবং ২০০৯ সালে দেশটির সংসদ নিজের মেয়াদ বাড়িয়ে ২০১৭ সাল পর্যন্ত বর্ধিত করে, যদিও দেশটিতে কোন নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়নি এবং এর কারণ হিসেবে বলা হয়েছে দেশটির মাঝে বিরাজমান অস্থিতিশীলতা।

দুই সপ্তাহ পূর্বে এই বিক্ষোভ শুরু হবার আগে “আবর্জনা নিয়ে কথা বললে, তা কি লেবাননের রাজনীতিতে পরিবর্তন আনতে সক্ষম” হবে শিরোনামে লেখা জোয়ির এক প্রবন্ধের সারাংশ এখানে তুলে ধরা হল।

আমি ঠিক এতটাই সৌভাগ্যবান যে লেবাননের এক বাসিন্দা হিসেবে আমরা যে অভিজ্ঞতা লাভ করেছি, তা এই ধরনের অসহায় পরিস্থিতির দ্বারা দূষিত হয়নি। আমি এক রাজনৈতিক সুখের অভিজ্ঞতা লাভ করেছি। একটি দল, বৃহৎ পরিসরে নৃবিজ্ঞানী ডেভিড গ্রায়েবার যাদের সংজ্ঞায়িত করেছে যারা এক পরিস্থিতি থেকে সাধারণ উপলব্ধির অভিজ্ঞতা গ্রহণ করে- এমন এক অভিজ্ঞতা যার মাধ্যমে আপনি আপানার চারপাশের প্রতি আস্থা রাখেন কারণ “আপনারা সবাই এক সমস্যা সমাধানে উৎসর্গকৃত”-অতি সম্প্রতি “আপনারা তীব্র গন্ধ ছড়াচ্ছেন” বা طلعت” ريحتكم” নামক আন্দোলনে সম্পৃক্ত হওয়ার মাধ্যমে আমি এই অভিজ্ঞতা লাভ করেছি, যা ছিল এক মাঠ পর্যায়ের আন্দোলন, যে আন্দোলন সরকারের অবর্জনা সঙ্কট সমাধানে ব্যর্থ হওয়ার মধ্যে দিয়ে জন্ম লাভ করেছে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .