বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

খেলাধুলায় মেয়েদের ক্ষমতায়ন করতে ফিফার নারী বিশ্বকাপ দিয়ে #মেয়েরাপারে প্রচারণার কাজ শুরু হয়

Credits: Women deliver, posted with permission

উইমেন ডেলিভার-এর সৌজন্যে, অনুমতি নিয়ে প্রকাশ করা হয়েছে

জুনের ৬ তারিখে ক্যানাডায় যখন ফিফা নারী বিশ্ব কাপ শুরু হয়েছে তখন বেশ কয়েকটি সংস্থা #মেয়েরাপারে এ্যাডভোকেসী প্রচারণার উদ্বোধন করতে একত্রিত হয়েছে। উইমেন ডেলিভার, ইউনিসেফ, রাইট টু প্লে, গেইন এবং ওয়ান গোল ক্রীড়া কিভাবে ইতিবাচকভাবে মেয়েদের জীবনকে প্রভাবিত করতে পারে সে সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে, এবং মেয়েদের ক্রীড়ার জন্য আরও বেশী গবেষণা ও তহবিলবৃদ্ধির জন্য আহ্বান জানাতে ফিফাকে প্রেক্ষাপট হিসেবে ব্যবহার করছে।

উইমেন ডেলিভার-এর যোগাযোগ ব্যবস্থাপক লরেন হিমিয়াক গ্লোবাল ভয়েসেস এর কাছে ব্যাখ্যা করেন:

The #GirlsCan hashtag and campaign kicked off encouraging the public to share photos of themselves playing sport and talking about why it was important in their development. We have seen everything from female racecar drivers in training to boxers in Africa participate, and we cannot wait keep the buzz growing. The great thing about #GirlsCan is to see the messages coming out of Twitter…”#GirlsCan change the world; #GirlsCan do everything boys can do; #GirlsCan be the next president”!

#মেয়েরাপারে হ্যাসট্যাগটি ও প্রচারণাটি জনসাধারণকে তারা ক্রীড়ায় অংশগ্রহণ করছে এমন ছবি বিনিময় করতে এবং তাদের বিকাশে এটি কেন গুরুত্বপূর্ণ ছিল তা আলোচনা করায় উৎসাহিত করার মধ্য দিয়ে শুরু হয়। গাড়ী চালনা প্রতিযোগিতার প্রশিক্ষণরত নারী চালক থেকে শুরু করে আফ্রিকাতে মুষ্ঠিযোদ্ধাদের অংশগ্রহণ করা পর্যন্ত সবকিছুই আমরা দেখেছি, এবং এই গুঞ্জন ক্রমবর্ধমান রাখতে আমাদের আর সবুর সইছে না। #মেয়েরাপারে সম্পর্কে সবথেকে মহৎ বিষয়টি হলো টুইটার থেকে বার্তা আসতে দেখা…'#মেয়েরাপারে বিশ্বকে পরিবর্তন করতে; #মেয়েরাপারে ছেলেরা যা পারে তার সবই; #মেয়েরাপারে পরবর্তী রাষ্ট্রপতি হতে'!

#মেয়েরাপারে প্রচারণায় অংশগ্রহণ করে এবং মেয়েদেরকে তাদের এলাকায় ক্রীড়াতে অংশগ্রহণ করার বিষয়ে ওকালতি করে, অথবা সামাজিক মাধ্যমগুলোতে একথা ছড়িয়ে দেবার মাধ্যমে এই প্রচারণা সারা বিশ্বের জনগণকে সক্রিয় ভূমিকা রাখার জন্য আহ্বান জানাচ্ছে। যারা এই চলমান প্রচারণায় আগ্রহী তারা #GirlsCan, #PowerInPlay বা #InvestInGirls হ্যাসট্যাগগুলি অনুসরণ করতে পারেন।

ক্রীড়া কার্যক্রমগুলোকে খুবই কার্যকর, স্বল্প-মূল্যের উপকরণের সাহায্যে বিশ্বের কয়েকটি অতি জরুরী উন্নয়ন চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করার উপযোগী করে করা হয়ছে। ক্রীড়ায় অংশগ্রহণ তরুণী ও যুবতীদের যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্যসহ সার্বিক স্বাস্থ্যের উন্নতি করে, এবং শিশু ও যুবতীদের আরও বেশী সফল হবার এবং তাদের জনগোষ্ঠীর মধ্যে লৈঙ্গিক সমতা অর্জনের সুযোগ দেয়।

প্রচারণার একটি অংশ হলো খেলায় নারী শক্তি শীর্ষক সম্মেলন যা ক্যানাডার অটোয়াতে জুনের ১৮-১৯ তারিখে অনুষ্ঠিত হবে। এবারের সম্মেলনের বিষয়বস্তু ক্রীড়ায় অংশগ্রহণ করায় মেয়েদের অধিকার এবং স্বাস্থ্য, শিক্ষা, পুষ্টি, জীবনযাত্রার-দক্ষতা, এবং লৈঙ্গিক আচরণ সংশ্লিষ্ট ক্ষেত্রগুলো সম্পর্কিত বিষয়গুলোসহ বিশ্বের সবচেয়ে জরুরী লৈঙ্গিক বিষয়গুলোর উপর আলোকপাত করবে। #মেয়েরাপারে প্রচারণার শেষ অনুষ্ঠান পালিত হবে ২০১৫ সালের অক্টোবর মাসের ১১ তারিখে যেখানে সংস্থাগুলো ক্রীড়া কিভাবে মেয়েদেরকে মাঠে ও মাঠের বাইরে ক্ষমতায়ন করতে পারে সে সম্পর্কে সংগৃহীত ঘটনা, গবেষণা, ব্লগ, এবং ধারণা বিনিময় করবে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .