বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

#মাতৃভাষায় টুইট করুন এবং অনলাইনে উদযাপন করুন ভাষার বৈচিত্র্য

Tweet bird Image by Id-iom and used under a CC BY-NC 2.0 Creative Commons license.

টুইট বার্ড ছবিটি তুলেছেন Id-iom এবং ছবিটি CC BY-NC 2.0 ক্রিয়েটিভ কমন্স লাইসেন্সে প্রকাশিত 

সারাবিশ্বের সবমিলিয়ে কথা বলার ক্ষেত্রে প্রায় ৭,০০০ ভাষা ব্যবহৃত হয় যার মধ্যে ইন্টারনেটে খুব কম ভাষারই সরব এবং বলিষ্ঠ ঐতিহ্য রয়েছে। প্রকাশিত এক গবেষনার তথ্য অনুযায়ী, টুইটারে প্রায় ৮৫% টুইট প্রকাশিত হয় আটটি ভাষা ব্যবহার করে। সে গবেষণায় অনুযায়ী অনলাইনে সাংস্কৃতিক ও বৈচিত্র্যগত দিক থেকে বিভিন্ন ভাষার ব্যবহারের এবং উপস্থিতির দিকগুলো উঠে এসেছে।

অনেক সম্প্রদায় এখন অনলাইনে নিজেদের ভাষাকে তুলে ধরতে নানা ধরনের উদ্যোগ নিচ্ছে। বিষয়টিকে সবার মাঝে তুলে ধরতে, সচেতনতা বৃদ্ধি করতে, এবং নিজেদের কার্যক্রমগুলোকেও তুলে ধরতে তারা কাজ করে যাচ্ছে। এরই অংশ হিসেবে ২১ ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে রাইজিং ভয়েস, লিভিং টাংস ইন্সটিটিউট, এনডেন্জার্ড ল্যাংগুয়েজ প্রজেক্ট,  এবং ইন্ডিজেনাস টুইটস‘র সহযোগিতায় বড় আকারে “#মাতৃভাষা'য় টুইট করুন” ক্যাম্পেইনটি শুরু হয়েছে।

​অনলাইনে নেয়া এ উদ্যোগের মাধ্যমে বিশ্বের ভাষাগত ও সাংস্কৃতি বৈচিত্র, বিশেষ করে আদিবাসী, সংখ্যালঘু, ঐতিহ্য এবং বিপন্ন ভাষাগুলোর কথা তুলে ধরার একটা পরিসর তৈরী হবে। পাশাপাশি ইন্টারনেটে এ ভাষাগুলোর অবস্থান এবং উপস্থিতির বিষয়গুলোও সবাই জানতে পারবেন।
 
এ উদ্যোগের সঙ্গে যুক্ত হওয়ার বিষয়টি খুবই সহজ: 
 

ধাপ ১ – আপনার মাতৃভাষায় টুইট করুন 

  • পুরো দিনটিতে আপনার মায়ের ভাষা ব্যবহার করে টুইট করুন
  • “ইন্টারনেটে নিজের ভাষা ব্যবহার করা কেন গুরুত্বপূর্ণ?” সে বিষয়টি শেয়ার করুন
  • আপনার নিজের ভাষায় প্রিয় শব্দ/বাক্য টুইট করুন
  • অন্যান্য আদিবাসী ও সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ভাষাগুলোকে অনুবাদ করুন এবং সেগুলো ব্যবহারে উৎসাহিত করুন

ধাপ ২ – হ্যাশট্যাগ যোগ করুন

  • #মাতৃভাষা বা #MotherLanguage হ্যাশট্যাগ যোগ করুন
  • আপনার নিজের ভাষায় হ্যাশট্যাগ যোগ করুন (যেমন: #Bengali/#বাংলা, #Chakma, #Shantali)

ধাপ ৩ – আলোচনায় যোগ দিন!

  • #MotherLanguage হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করে অন্য যারা টুইট করেব তাদের টুইট রিটুইট করুন
  • আপনার মাতৃভাষায় হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করে যার টুইট করে তাদের খুঁজে বের করুন, অনুসরণ করুন এবং রিটুইট করুন। 
  • অন্যান্য ভাষার মানুষদের সঙ্গে যুক্ত হয়ে ভাষার এ দিনটি উদযাপন করুন

কিভাবে এ কার্যক্রমের সঙ্গে যুক্ত হতে পারে সে বিষয়ে আরো বিস্তারিত দেখুন উদযাপন বিষয়ক ওয়েবসাইটে।

#মাতৃভাষা'য় কেন টুইট করবেন?

অনলাইনে নানা ধরনের ভাষা ব্যবহার বাড়লেও এখনও বিভিন্ন সম্প্রদায় নিজেদের ভাষা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে ব্যবহারের ক্ষেত্রে নানা ধরনের সমস্যার মধ্যে পড়ছে। কিছু ভাষার তেমন উন্নত কীবোর্ড নেই যার সাহায্যে অনলাইনে লেখার বিষয়টি সহজ হয় এবং অনেকেরই পর্যাপ্ত ইন্টারনেট ব্যবহারের সুবিধা নেই যার সাহায্যে অনলাইন আলাপ চালিয়ে যাওয়া সম্ভব। 

তবে, এটা স্বীকার করতেই হবে, ইন্টারনেট যোগাযোগ ভাষার সংরক্ষণ এবং ক্ষেত্র বিশেষে পুনরুদ্ধারে যে সক্রিয় ভূমিকা রাখছে সেটি প্রমাণিত।সহজেই ডিজিটাল টুলস ব্যবহার করে নিজের ভাষায় কন্টেন্ট তৈরির সুযোগ এখন পাওয়া যাচ্ছে এবং ইন্টারনেট এ ধরনের ভাষায় কথা বলা মানুষদের অন্যান্য ভাষা বিশেষ করে অনেক দূরত্বের মানুষদের সঙ্গেও যোগাযোগের সুযোগ করে দিচ্ছ। 

এ উদ্যোগ সেই বিষয়গুলোকে তুলে ধরবে যারা ইতিমধ্যে আলাদা এবং দলীয় ভাবে নিজেদের ভাষায় ইন্টারনেট ব্যবহারের উদ্যোগ নিয়েছে এবং অনেকে “ল্যাংগুয়েজ ডিজিটাল অ্যাক্টিভিস্ট” হিসেবে পরবর্তী প্রজন্মের নিজের ভাষায় কথা বলাদের সাহায্য করতে এগিয়ে এসেছে। আমরা এমন কিছু অংশগ্রহণকারী ‘দূত’ পেয়েছি যাদের মধ্যে রয়েছে ম্যাক্সিকোর রদ্রিগো পিরেজ (@ISF_MX), যে সবসময় টুইটারে জেপোটেক ভাষা টুইট করে, বলিভিয়ার ইগনাসিয়ো তোমিছা সুভে (@MonkoxBesiro), এ উদ্যোগে অংশ নিতে আমন্ত্রন জানিয়ে বেসিরো (চিকুইটানো) ভাষায় একটি ভিডিও তৈরি করেছে । আমাদের অন্যান্য দূতরা এ ধরনের ভিডিও তৈরি করছে যা খুব শিঘ্রই আমাদের প্লে লিস্টে যুক্ত হবে: 

ধন্যবাদ সারাবিশ্বের অনেক মানুষকে যাদের সহযোগিতায় ইতিমধ্যে এ উদ্যোগের ওয়েবাসাইট পেজটি ২৫টি ভাষায় অনুবাদ করা হয়েছে যার মধ্যে রয়েছে বাংলা, উড়িয়া, সেনা, এবং লেজগিয়ান । বেশির ভাগ অনুবাদই এসেছে গ্লোবাল ভয়েসের লিংগুয়া প্রকল্পের সঙ্গে যুক্ত এ সম্প্রদায়ের স্বেচ্ছাসেবক অনুবাদকদের সহায়তায়। 

bangtweet

আপনার সহযোগিতায় আমরা ভিন্ন ভিন্ন ভাষায় ইন্টারনেটে ভাষার এ বৈচিত্র্যময়তা উদযাপন করতে পারবো। তাই টুইট করুন অথবা রিটুইট করতে থাকুন!

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .