বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ইয়েমেন বিপ্লব তার তরুণদের কারাবন্দী করছে

ডিসেম্বর ২০১১-এ ইয়েমেনের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি আলি আব্দুল্লাহ সালেহ-এর বিরুদ্ধে তৈরী হওয়া গণজাগরণের সময় ২২ জন তরুণকে উঠিয়ে নিয়ে যাওয়া হয় এবং ইয়েমেনের শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভকারীদের বিরুদ্ধে দেশটির নিরাপত্তা বাহিনী আক্রমণাত্মক আচরণ প্রদর্শন করে। আট মাস ধরে তাদের সম্বন্ধে কোন তথ্য পাওয়া যাচ্ছিল না। আগস্ট ২০০২-এ তাদের রাজধানী সানার রাজনৈতিক নিরাপত্তা সংগঠনের কারাগারে পুনরায় আবিস্কার করা হয়, পরে তাদের সানার কেন্দ্রীয় কারাগারে স্থানান্তর করা হয়। প্রায় দুবছর ধরে বিনা অভিযোগে কারাগারে বন্দী থাকার পর, তাদের মুক্তির দাবীতে সরকারের উপর চাপ প্রয়োগ করার জন্য এই সকল তরুণেরা ২৪ মে তারিখ থেকে অনশন ধর্মঘট শুরু করে

ইয়েমেনের টুইটার ব্যবহারকারীরা ইংরেজিতে #ফ্রিডিটেনরেভইয়ুথ এবং আরবি ভাষায় #الحرية_لمعتقلي_الثورة নামক হ্যাশট্যাগ চালু করেছে, যার অর্থ হচ্ছে গ্রেফতারকৃতরা বিপ্লবীদের মুক্তি দাও।

আতিফ আলঅয়াজির টুইট করেছে:

‏@ওমেনফ্রমইয়েমেন: যখন বিপ্লবের কারণে #ইয়েমেন বিরোধীরা ক্ষমতায়, তখন কয়েকজন তরুণ কারাগারে। #ইয়োথ,#ফ্রিডিটেনরেভইয়োথ

মারওয়ান আল মুরসী লিখেছে:

@আলমুরসী: কে বিশ্বাস করবে যে ইয়েমেনের অসাধারণ ২২ জন তরুণ, যারা স্বাধীনতার জন্য আমাদের তাদের আত্মা দিয়েছিল দু বছর ধরে তারা কারাগারে? #ফ্রিডিটেনরেভইয়োথ

আই উল্লেখ করেছে:

@নুনআরাবিয়া : #ইয়েমেনে, যারা দেশের নাগরিকদের খুন করল এবং লুণ্ঠন করল তারা এখন মুক্ত এবং অব্যহতি উপভোগ করছে, আর বিপ্লবী তরুণরা এখন কারাগারে। #FreeDetainedRevYouth

ওয়ালেদ আল-আমারি এর সাথে যোগ করেছে [আরবি ভাষায়]:

@waleedpro
الان عدد من شباب الثورة ينضمون الى الاعتصام في السجن المركزي حتى يتم الإفراج عن جميع شباب الثورة
#اليمن

সানার কেন্দ্রীয় কারাগারের সামনে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক একদল তরুণ বিপ্লবী সকল তরুণের মুক্তির দাবীতে অবস্থান ধর্মঘট পালন করে।

ইয়েমেনের মানবাধিকার মন্ত্রী হোরাইয়া মাসরুর, শনিবার ১ জুন তারিখে গ্রেপ্তারকৃত তরুণদের সাথে একাত্মতা প্রদর্শনের জন্য সানার কেন্দ্রীয় কারাগারের সামনে অনশনরত অন্য ২০ জন নেতৃস্থানীয় একটিভিস্ট এবং অবস্থান ধর্মঘটে অংশ নেওয়া নাগরিকদের সাথে যোগ দেয়।

Yemen's Human Rights Minister Hooreya Mashhoor joining the youth activists who went on hunger strike and a sit-in to demand the release dozens of activists held at the central prison compound in Sanaa.


ইয়েমেনের মানবাধিকার মন্ত্রী হোরাইয়া মাসরুরু,গ্রেপ্তারকৃত তরুণদের সাথে একাত্মতা প্রদর্শনের সানার কেন্দ্রীয় কারাগারের সামনে অনশন রত অন্য ২০ জন নেতৃস্থানীয় একটিভিস্ট এবং অবস্থান ধর্মঘটে অংশ গ্রহণকারীদের সাথে যোগ দেয়।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রীর সাথে এক ভিডিও ফোনালাপে (মোহাম্মদ আল-ইয়েমেনি যা ইউটিউবে পোস্ট করেছে) হোরাইয়া মাসরুর গ্রেপ্তারকৃত তরুণদের মুক্তি প্রদানের প্রতি তার দৃঢ়তা নিশ্চিত করেন। তিনি মন্ত্রণালয়কে বলেন আমি কোন পুতুল মন্ত্রী নই। আমি মাটি থেকে উঠে আসা এক বিপ্লবের মন্ত্রী।”

রাষ্ট্রপতি আব্দে রাবু মানসুর হাদি এই বিষয়টি মন্ত্রী পরিষদে আলোচনা এবং বিষয়টি সমাধানের জন্য উপদেষ্টাদের পরামর্শের জন্য ৪৮ ঘণ্টা সময় চান।

এক বেদনায় ওয়েলাদ আল আম্মারি টুইট করেছে:

@waleedpro:
معتقلون لاكثر من17500ساعة الرئيس هادي يطلب تمديد اعتقالهم 48 ساعة أخرى خارج اطار القانون
#FreeDetainedRevYouth
#الحرية_لمعتقلي_الثورة

রাষ্ট্রপতি হাদির আদেশে গ্রেপ্তারকৃতদের বেআইনিভাবে আরো ৪৮ ঘণ্টা আটকাদেশ বৃদ্ধির কারণে আটকে পড়া তরুণরা ১৭,৫০০ ঘণ্টা সময় ধরে কারাগারে আটকে আছে।

২৬ জুন, ২০১২ তারিখে মন্ত্রীসভা ২০১১ সালে গ্রেপ্তারকৃত সকল রাজনৈতিক বন্দীর, একই সাথে সে বছর রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তা বাহিনীর হাতে অপহৃত নাগরিক যাদের পরে কারাগারে পাঠানো হয় এবং যাদের বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ গঠন করা হয়নি তাদের মুক্তির আদেশ জারী করে। মার্চ মাসে রাষ্ট্রপতি আব্দু রাবো মনসুর হাদী একই সাথে বিপ্লবের সময় আটককৃতদের মুক্তির আদেশ জানিয়ে এক আইন জারী করে। অ্যাটর্নি জেনারেল, আলী আহমেদ নাসের আল আওয়াশ, সালেহ যুগের এক কর্মী এবং তার প্রতি বিশ্বস্থ, তিনি এই সকল আদেশ উপেক্ষা করেন। অবশেষে ৫ জুন, ২০১৩ তারিখে, রাষ্ট্রপতি হাদি দেশটির আটকৃত ২২ জনের মধ্যে ১৯ জনকে তাত্ক্ষনিকভাবে মুক্তি প্রদানের আদেশ দেন, যারা সে সময় অনশন ধর্মঘট পালন করছিল। তারপরেও অ্যাটর্নি জেনারেল আটককৃতদের থেকে কেবলমাত্র ১৭ জনের মুক্তির ছাড়পত্র প্রদান করেন এবং বাকি দুজনকে ২০১১ সালে নাহিদ মসজিদে রাষ্ট্রপতি আলী আবদুল্লাহ সালেহ-এর উপর হামলার সাথে যুক্ত সন্দেহভাজন আসামী হিসেবে আটকে রাখেন।

একটিভিস্টরা অভিযোগ করেছে যে আ্যটর্নি জেনারেল অবৈধভাবে এই দুজনকে আটকে রেখেছে মূলত রাজনৈতিক দর কষাকষির জন্য যাতে সে “কারামাহ শুক্রবারের” গণহত্যার মামলায় এদেরকে ব্যবহার করতে পারে, যে মামলায় প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি সালেহ এবং তার সহযোগীদের অভিযুক্ত করা হয়েছে। তারা #أقيلوا_النائب_العام এই হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করে অ্যাটর্নি জেনারেলের বরখাস্তের দাবী জানিয়েছে এবং ৫ জুন তারিখে অফিস বন্ধের দাবীতে এক শোভাযাত্রার আয়োজন করেছে।


(ভিডিও আপলোড করেছে محبة اليمن)

একটিভিস্ট এবং ফটোসাংবাদিক আল সারানি ফারোক টুইট করেছে:

@faroqperss:
إقالة الأعوش من اجل سيادةالقرارات الرئاسية. #أقيلوا_النائب_العام #الحرية_لمعتقلي_الثورة” #FreeDetainedRevYouth #Yemen

আলোয়াশের রাষ্ট্রপতির শাসন জারীর ক্ষমতা বাতিল কর। অ্যাটর্নি জেনারেলকে বরখাস্ত কর ।

৬ জুন সকালে, ফটো সাংবাদিক ইয়ুসরা আহমেদ টুইট করেছে:

@ইয়ুসরাআলা
আজ সকালে আটককৃত ১৭ জনকে মুক্তি দেওয়া হয়েছে…অভিনন্দন…বাকীরা এখনো কেন্দ্রীয় কারাগারে#ফ্রিডিটেইনরেভইয়োথ

Yemen's Revolution's Youth and supporting activists pose in front of Sanaa's central prison after their release

মুক্তি লাভের পর ইয়েমেনের বিপ্লবী তরুণেরা তাদের সমর্থকদের নিয়ে ছবি তোলার জন্য সানা কেন্দ্রীয় কারাগারের সামনে অবস্থান নিয়েছে।

এই বিষয়ে আরো ছবি দেখুন এখানে ফটোগ্রাফার নাদিয়া আবদুল্লাহ ফেসবুক পাতায়ঃ

আল আম্মারি টুইট করেছে:

@waleedpro: إصرار النائب العام على عدم الإفراج عن ابراهيم الحمادي وشعيب البعجري يثبت ان الهدف ليس قضية النهدين وانما الثورة
#الحرية_لمعتقلي_الثوره

ইব্রাহিম আল হাম্মাদি এবং শোয়াইব বাজেরিকে মুক্তি না দিতে অ্যাটর্নি জেনারেল আগ্রহ প্রমাণ করছে যে মূল উদ্দেশ্য নাহদান মসজিদের মামলা নয়, বরং তার লক্ষ্য হচ্ছে বিপ্লব।

ইয়েমেন আইনের শাসনের অভাবে অনেক ইয়েমেনী নাগরিক হতাশ, আরো হতাশ দৃশ্যত রাষ্ট্রপতি হাদি এবং প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি সালেহ-এর অনুগতদের মাঝে ক্ষমতার লড়াই-এর কারণে, যারা রাষ্ট্রপতির আদেশ মেনে নেয় না। এখনো সানায় ৫ জন এবং হাজ্জায় ১৭ জন কারাবন্দী, আর একটিভিস্টরা শপথ নিয়েছে, আটককৃতদের মুক্তি না হওয়া পর্যন্ত তারা থামবে না।

এই পোস্টে মন্তব্য বন্ধ করা হয়েছে।