বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

সৌদি আরব: ৭ মে তারিখটিকে সৌদি আরবে উদারনৈতিক দিবস হিসেবে পালন করা হচ্ছে

৭ মে তারিখে সৌদি উদারনৈতিক একটিভিস্টরা, দেশটির উদারনৈতিক দিবস উদযাপন করার জন্য অনলাইনে জড়ো হয়েছে। মূলত উদারনৈতিক চিন্তার স্বীকৃতি প্রদান এবং তাকে গ্রহণ করার উদ্দেশ্য এই উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। এই সমাবেশ অনলাইনে হতে বাধ্য, কারণ সৌদি আরবে জনসন্মুখে কোন ধরনের আলোচনা নিষিদ্ধ।
অগ্রগামী চিন্তা এবং মানবাধিকার ও গণতন্ত্রের দাবীর কারণে দীর্ঘ সময় ধরে সৌদি উদারনৈতিক নাগরিকরা এমন এক সমাজে নানান ধরনের যন্ত্রণার শিকার হয়ে আসছে, যে সমাজে এসবের সংজ্ঞা রক্ষণশীলতার মধ্যে দিয়ে প্রদান করা হয়। ধর্মীয় মতামতের দ্বারা প্রভাবিত শাসক শ্রেণী তীব্র ভাবে উদারনৈতিক নাগরিকদের আক্রমণ করে থাকে। সৌদি এই উদারনৈতিক দলের উদ্দেশ্য হচ্ছে রাজনৈতিক প্রতিষ্ঠানগুলোর দীর্ঘমেয়াদি উন্নয়ন।

৭ মে, সৌদি আরবের প্রথম উদারনৈতিক দিবস, ছবি টুইটার ব্যবহারকারী @এমআর_নেজো-এর।

সৌদি আরবের অন্যতম একটিভিস্ট সাউদ আল শামরী, যে কিনা সৌদি এক উদারনৈতিকবাদি দলের সাধারণ-সম্পাদক, তিনি লিখেছেন:

@SouadALshammary: ‫#7مايو‬‏ دعوه لكل تيارات الوطن للحوار للمحبه للسلام للوحدة أرجوكم لاتقسمونا كلناهدفنا الإصلاح الليبراليه مجرد وسيله لاهدف لادين اعقلوافشلتونا
৭ মে তারিখে দেশের সকল অংশকে আলোচনা, শান্তি এবং ঐক্যের জন্য আহ্বান জানানো হচ্ছে। দয়া করে আমাদের বিভক্ত করবেন না। আমাদের সকলের লক্ষ্য হচ্ছে সংস্কার। উদারনৈকিতার মানে ধর্মের ইতি টানা নয় বা এটা কোন ধর্ম নয়, আপনারা নিজেদের ভাবনাকে ব্যবহার করুন। আপনারা আমাদের হতাশ করেছেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র, ধর্ম-নিরপেক্ষ নাগরিক মোহাম্মদ টুইট করেছে:

@M7mad_24: فكر بنفسك وأستعن بعقلك .. أحترم من يخالفك الرأي .. لا تؤجر عقلك لكنهة ووعاظ ‎:)‏)
নিজে চিন্তা করুন এবং নিজের মনে অনুসন্ধান করুন … যারা আপনার মতের সাথে ভিন্নমত পোষণ করে তাদের প্রতি শ্রদ্ধা পোষণ করুন… আপনার মন, চিন্তাকে ধর্মীয় নেতা এবং তাদের মত মানুষদের হাতে ‘তুলে দেবেন না’।

প্রখ্যাত একটিভিস্ট ওয়াকেল আলকাশেম টুইট করেছে:

@waelalqasm: بدأ البذيئون في “تويتر” بالدعاء لي بالهداية والجنة، بعد أن عجزوا عن الانتصار بالشتائم. اللهم إن أدخلتهم جنتك، فاجعلني خالداً في النار أبداً.
টুইটারের ভালগার [নামক ব্যবহারকারী] আমাকে [ধর্মীয়] নির্দেশনা মেনে চলার আহ্বান জানিয়েছে, অপমান করে জিততে না পেরে অবশেষে বেহেশতে পতিত হয়েছে। ‘হে পরম করুণাময়’, যদি আপনি তাদেরকে আপনার বেহেশতে ঠাঁই দেন, তাহলে আমাকে আজীবন দোজখে রাখুন।

তবে অন্যরা এই উদারনৈতিক দিবস এবং স্বয়ং উদারনৈতিক ভাবনার নিন্দা করেছে। আইনে স্নাতক ডিগ্রীধারী জাওয়হারী আল সুবাই মন্তব্য করেছে:

@TheJawahir: সৌদি আরবে উদারনৈতিকতা দিবসের উদ্দেশ্য কি তার মানে আমার বোধগম্য নয়# সৌদি আরব‬ ‫#7مايو‬

সৌদি আরবের উদারনৈতিক নাগরিকদের বাদর আল রাশেদ সমালোচনা করেছেন, তিনি বলেছেন:

@BALRashed: الليبرالي السعودي يشجب ويتضايق من تشويه طالبان للإسلام لكنه ما يستاء من نحر أمريكا للحرية في أفغانستان والعراق ‎‫#7مايو‬‏ ‎‫
সৌদি উদারনৈতিক নাগরিকরা, তালেবান কর্তৃক ইসলামের অপব্যবহারের নিন্দা জানায় এবং এই ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্র যখন আফগানিস্তান এবং ইরাকের স্বাধীনতা ছিনিয়ে নেয়, তখন তারা চুপ করে থাকে।

আবদুল্লাহ মোহাম্মদ আল দাউদ, আল জাজিরার টক শো-এর উপস্থাপক ফয়সাল আল কাসেম-এর একটি বাণী [ আরবী ভাষার] উদ্ধৃত করেছে, যেখানে দৃশ্যত সে বলেছে, যখন আমি একজন ধর্ম-নিরপেক্ষ মানুষ দেখি, তখন আমি বেশ হাসি, কারণ এমনকি পরিবারে লোকদের সে তাঁর চিন্তা বোঝাতে অক্ষম। তারা কেবল ইসলামপন্থীদের উপর হামলা চালায়, যারা সব জায়গার রাস্তা নিয়ন্ত্রণ করে।”

একটি ব্লগ পোস্টে আবুলরাহমান আল খানাল উদারনৈতিকদের সমালোচনা করেছে:

قيمهم الليبرالية تتمحور حول المرأة والهيئة والقضاء ، حتى بدا لكثير من الناس أن الليبرالية مجرد دعوات لإختلاط ومعاداة لرجال الشريعة.
الليبرالية الحقة لا تتجزأ ولا تتلون مثل حرباء الليبرالية السعودية ، فهم فجأة ضد ثورات الشعوب ، و ضد مطالب الإصلاح. […] لم يكن لهم حديث عن الفقر ولا الفساد إلا عندما منحهم الملك عبدالله الضوء الأخضر
উদারনৈতিক মূল্যবোধ কেবল নারী, [সততার প্রচারণা এবং পাপ প্রতিরোধ নামক] কমিটি এবং বিচার বিভাগের উপর মনোযোগ প্রদান করে, একটা পর্যায় পর্যন্ত মনে হয় যে, অনেক নাগরিক উদারনৈতিকতা বলতে বোঝে আন্ত-মিশ্রণের [নারী এবং পুরুষের মাঝে] আহ্বান এবং ধর্মীয় নেতাদের বিরোধীতা করা।

সত্যিকারে উদারনৈতিকতা অবিভাজ্য এবং তা সৌদি আরবের বর্ণচোরা গিরগিটি সদৃশ্য উদারনৈতিক চেহারার মত নয়। যেমন তারা হঠাৎ করে জনতার বিপ্লবের বিপরীতে অবস্থান গ্রহণ করে এবং সংস্কারের দাবী জানায়।[…] তারা দারিদ্য বা দুর্নীতি, কোনটা নিয়ে ততক্ষণ পর্যন্ত কোন কথা বলে না, যতক্ষণ না বাদশা আবদুল্লাহ তাদের সবুজ সঙ্কেত প্রদান করে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .