বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

মিশরঃ তাহরির-এর সংঘর্ষ তৃতীয় দিনে পা দিল

এই প্রবন্ধটি মিশর বিপ্লব ২০১১-এর উপর করা আমাদের বিশেষ কাভারেজের অংশ

তাহরিরের সংঘর্ষ আজ তীব্র আকার ধারণ করে তৃতীয় দিনে পা রাখল। কায়রোর কেন্দ্রস্থলে অবস্থিত তাহরির স্কোয়ার যা কিনা বিপ্লবের প্রাণকেন্দ্র, সেখানে যে সমস্ত বিক্ষোভকারী ঘাঁটি গেড়ে বসেছিল, তারা এই স্কোয়ারের পুনরায় দখল নিতে পুলিশের সাথে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে এবং বিপ্লবের সময় তাদের যে যে দাবী ছিল, তা অর্জনের জন্য তারা ক্রমাগত বিক্ষোভ প্রদর্শন করে যাচ্ছে।

বিক্ষোভকারীদের প্রধান দাবী ছিল সর্বোচ্চ সামরিক পরিষদের বদলে এক বেসরকারি তত্ত্বাবধাযক সরকারের, সামরিক বাহিনী, ফেব্রুয়ারি মাসে দেশটির রাষ্ট্রপতি হোসনি মুবারকের অপসারণের পর নিজেরাই দেশটির অস্থায়ী শাসককে পরিণত হয়।

বিভিন্ন সংবাদে জানা যাচ্ছে, গত তিন দিনের সংঘর্ষে অন্তত ২০ জন নাগরিক নিহত হয়েছে। এই অস্থিরতা এবং পুলিশের সাথে সংঘর্ষের ঘটনা কায়রোর বাইরেও বিভিন্ন প্রদেশে ছড়িয়ে পড়েছে। এই সমস্ত প্রদেশেও নাগরিকরা তাদের দাবী তুলে ধরেছে, যা মূলত তাহরিরে দাবির প্রতিধ্বনি। এই চলতে থাকা সংঘর্ষে অন্তত ১০০ জন আহত হয়েছেন। আর বলা হচ্ছে যে এই হামলার বিশেষ লক্ষ্যবস্তু হচ্ছে বিশেষ করে একটিভিস্টরা। এখন শঙ্কা দেখা দিয়েছে, যদি এই ভাবে সংঘর্ষ চলতে থাকে তাহলে ২৮ নভেম্বরের অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া সংসদীয় নির্বাচনের কাজে বিঘ্ন ঘটতে পারে।

বিপ্লবের সমর্থকরা এক উত্তেজনার মেজাজে রয়েছেন। সাংবাদিক এবং একটিভিস্ট নোরা ইউনুস এই মাত্র টুইট করেছে:

@নোরাইউনুস: আমার বাচ্চাকে তার নার্সারী স্কুলে রেখে এলাম। #তাহরির স্কোয়ারের দিকে এগিয়ে যাচ্ছি। এই অন্যায়ের প্রতিবাদ না করে আর পারছি না। মৃত্যু আর কখনো আমার এতটা কাছ দিয়ে যায়নি।

আর কয়েক মিনিট পরে সে টুইট করে:

@নোরাইউনুস: সম্মুখে দাঁড়ানো মোহাম্মেদ মাহমুদ বন্দুকের গুলিতে আহত হয়েছে এবং তাঁকে অস্থায়ী হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে # তাহরির # মারটিয়ারস্ট্রিট
http://pic.twitter.com/GhL6KkWK

নোরা ইউনুস এই ছবিটা পোস্ট করেছে, যে ছবিতে দেখা যাচ্ছে বন্দুকের গুলি লাগার পর এক বিক্ষোভকারীকে অস্থায়ী ক্লিনিকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

সেই স্কোয়ারে যে সব অস্থায়ী হাসপাতাল তৈরি করা হয়েছিল, সেগুলো আহত নাগরিকে পরিপূর্ণ হয়ে গিয়েছে। এই সংঘর্ষে যারা আহত হয়েছিল তাদের জন্য ওষুধ এবং স্বেচ্ছাকর্মীর জন্য সামাজিক প্রচার মাধ্যমে ক্রমাগত আহ্বান জানানো হয়।

টুইটারে টুইট করা মোহাম্মেদ আবদেল ফাত্তাহ মাত্র এক মিনিট আগেও তাহরিরের অস্থায়ী হাসপাতালে ছিলেন এবং তিনি তাঁর এইসব পর্যবেক্ষণ আমাদের জানাচ্ছেন।

@এমফাত্তাহ৭: এখন তাহরিরে অস্থায়ী ক্লিনিকে অবস্থান করছি।
http://twitpic.com/7hai0r

তাহরির স্কোয়ারে যে সব অস্থায়ী হাসপাতাল তৈরি করা হয়েছিল তার একটির দৃশ্য। ছবি মোহাম্মদ আবদেল ফাত্তাহর। মাত্র কয়েক মিনিট আগে টুইটারে তা আপলোড করা হয়েছে।

@এমফাত্তাহ৭: যখন আমরা অজস্র টিয়ার গ্যাসের আওয়াজ শুনতে পেলাম, তারপর থেকে আহত নাগরিকদের তাহরিরের অস্থায়ী হাসপাতালে আনা শুরু হয়েছে। http://twitpic.com/7hajec

আরো অজস্র আহত নাগরিককে হাসপাতালে নিয়ে আসা হচ্ছে। ছবি মোহাম্মদ আবদেল ফাত্তাহ-এর।

@এমফাত্তাহ৭: আকাশ কাঁদানে গ্যাসের মেঘ তৈরি হয়েছে http://t.co/kULwr9A1

পুলিশের চলতে থাকা হামলার মুখে তাহরির স্কোয়ারের কাঁদানে গ্যাসের ধোঁয়া বেড়ে গেছে। ছবি মোহাম্মদ আবদেল ফাত্তাহ-এর।

এবং সে এর সাথে যোগ করেছে:

এমফাত্তাহ৭: এখনো আহতদের নিয়ে আসা হচ্ছে। তাজা বুলেট ব্যবহারে সংবাদ পাওয়া গেছে।

এছাড়াও টুইটারে অকুপাই তাহরির এক কান্নারত ডাক্তারের ছবি পোস্ট করেছে। সে লিখেছে:

@অকুপাই_তাহরির : এটি তাহরির-এর একটি অস্থায়ী হাসপাতালের এক ডাক্তারের ছবি, যেখানে দেখা যাচ্ছে যে আহত মানুষের জীবন রক্ষা না করতে পারার কারণে তিনি কাঁদছেন।#তাহরির#নোএসসিএএফ#অকুপাই http://t.co/JFbjkQyt

অকুপাই তাহরির এই ছবিটি প্রদর্শন করেছে, যেখানে দেখা যাচ্ছে আহতদের চিকিৎসার জন্য তৈরি করা একটি অস্থায়ী হাসপাতালে একজন ডাক্তার কাঁদছেন।

মিশরীয় দৈনিক খবরের কাগজ আল মাসরী আল ইয়োম এই ভিডিটিও ইউটিউবে আপলোড করেছে। এতে দেখা যাচ্ছে নিরাপত্তা বাহিনী এবং সামরিক বাহিনীর সদস্যরা কাজে লেগে পড়েছে- তারা নির্দয়ভাবে বিক্ষোভ কারীদের পিটিয়ে যাচ্ছে:

একটিভিস্ট রামি রোফ সরাসরি ভিডিও প্রদর্শনকারী সংস্থা বাম্বুসের-এর একটি ভিডিও প্রদর্শন করেছে, যে ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে পুলিশ বিক্ষোভ প্রদর্শনকারীদের লক্ষ্য করে হামলা চালাচ্ছে, তারা পায়ে নয়, শরীরের উপরের অংশ লক্ষ্য করে হামলা চালাচ্ছে। তার টুইটে সে এ কথা জানায়:

@@রামিরোফ: এই ভিডিওর ০.৩৮ থেকে ০.৪৭ সেকেন্ড পর্যন্ত খেয়াল করুন, তাতে লক্ষ্য করবেন পুলিশ কর্মকর্তারা বিক্ষোভ প্রদর্শনকারীর উপরের অংশ লক্ষ্য করে হামলা চালাচ্ছে। http://bambuser.com/v/2140945 #ইজিপ্ট#তাহরির

তাহরিরে এখন দ্রুত ঘটনা ঘটছে এবং নেট নাগরিকরা সেখানে উপস্থিত থেকে সক্রিয়ভাবে সেখানে যা ঘটছে তার তাজা সংবাদ সারা বিশ্বের নাগরিকদের সামনে তুলে ধরছে।

যখন এই আন্দোলন সামনে আরো এগিয়ে যাচ্ছে, তখন এ সম্বন্ধে আরো তাজা সংবাদের জন্য আমাদের সাথে থাকুন।

এই প্রবন্ধটি মিশর বিপ্লব ২০১১-এর উপর করা আমাদের বিশেষ কাভারেজের অংশ

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .