বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ইরান: সংস্কারপন্থী আর কর্মী ব্লগারদেরকে গ্রেপ্তার

abtahiযখন প্রতিবাদকারীরা গত ১২ জুনের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ফলাফল নিয়ে সমগ্র ইরানে বিক্ষোভ চালিয়ে যাচ্ছেন তখন ইরানী কর্তৃপক্ষ শত শত কর্মীকে গ্রেপ্তার করেছেন, কিছু ব্লগার সহ।

সংস্কারবাদী প্রার্থী মেহদি কারাউবির একজন উপদেষ্টা এবং ইরানের ভুতপূর্ব সংস্কারবাদী উপ-প্রেসিডেন্ট মোহাম্মাদ আলি আবতাহিকে গত মঙ্গলবার গ্রেপ্তার করা হয়। আবতাহি প্রতিদিন তার ব্লগ আপডেট করতেন বেশ কয়েক বছর ধরে আর বিভিন্ন ব্যাপারে তার মতামত জানাতেন, যার মধ্যে ইরানি বিষয়ও ছিল।

এখানে তার শেষ পোস্ট যা তার বন্ধুরা তার দ্বিভাষী ব্লগ ওয়েবনেভেস্তেহাতে প্রকাশ করেছেন:

জনাব আবতাহী গ্রেপ্তার:

জনাব খাতামির প্রেসিডেন্টের মেয়াদকালিন উপ-প্রেসিডেন্ট আর জনাব কারাউবির উপদেষ্টা মোহাম্মাদ আলি আবতাহি আজকে গ্রেপ্তার হয়েছেন (মঙ্গলবার)। তিনি মুক্তি পেলে এখানে তার ওয়েবসাইটে লিখবেন।

তার শেষের দিকের একটি পোস্টে তিনি নির্বাচনকে ‘অবধারিত চুরি’ বলেছেন:

আমি বিশ্লেষণ করেছি যে এটি অবধারিত চুরি। এটা বিশাল একটা প্রতারণা। নির্বাচনের ফলাফল কি বিচক্ষণতার সাথে পরিকল্পণা করা হয়েছিল। এক দিকে এটা ভোট দানের রেকর্ড গড়েছে যেহেতু এটা জনাব খাতামির আগের রেকর্ড ভেঙ্গেছে যিনি তার প্রেসিডেন্টের মেয়াদের দ্বিতীয় ভাগে বেশী ভোট পেয়েছিলেন আর জনাব আহমাদিনেজাদকে তার থেকে বেশী ভোট পেতে হবে। তারা আরো চেষ্টা করবেন জনাব মুসাভি আর তার সঙ্গীদের ধ্বংস করতে। দৃশ্যপটের আর একটা গুরুত্বপূর্ণ দিক ছিল জনাব কারাউবির ৩০০০০০ ব্যালটের গল্প। যদিও জনাব কারাউবির ধার্য করা ভোট ছিল, তারা তার জন্য ৩০০০০০ টি ভোট ধার্য করে অন্যদেরকে ঠেকাতে এই ধরনের গণতান্ত্রিক পদক্ষেপ সম্পর্কে প্রশ্ন করা থেকে। অন্যদিকে অন্যান্য শহরের তথ্য দেখাচ্ছিল জনাব মুসাভি আর জনাব আহমাদিনেজাদের জন্য অন্তত সমান সংখ্যক ভোট।

‌সোমায়ে তোহিদলু নামে একজন নারী সংস্কারবাদী ব্লগারকেও গ্রেপ্তার করা হয়। একদিকে ইরানী প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ যেমন গড়ে উঠছে, ইরানী কর্তৃপক্ষ রাজনৈতিক কর্মীদের গ্রেপ্তার করেই যাচ্ছেন। সম্প্রতি তিনি আর কয়েক জন ব্লগারের সাথে ভূতপূর্ব প্রেসিডেন্ট মোহাম্মাদ খাতামির সাথে ইন্টারনেট সাক্ষাৎকারের আয়োজন করেন।

মনে হচ্ছে তার ব্লগে আর ঢোকা যাচ্ছে না।

ইরানে অবস্থিত ব্লগার আর মানবাধিকার কর্মী মোজতাবা সামিনিজাদ, আমাদেরকে আরো বেশ কয়েকজন গ্রেপ্তারকৃত ব্লগারের খবর দিয়েছেন

সামিনেজাদ বলেছেন যে মহিলা ব্লগার আর মানবাধিকার কর্মী শিভা নাজার আহারি, একজন নারী ব্লগার আর সাংবাদিক মেহেসা আমারাবাদি, কারিম আরগান্দেহপুর, একজন ব্লগার আর সামনের সারির সাংবাদিক আর আমাদ বাহারভার সকলকে ধরা হয়েছে।

এখন পর্যন্ত কোন তথ্য পাওয়া যায়নি তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগের ব্যাপারে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .