বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

কুর্দিস্তান: কুর্দি আন্দোলনের অবস্থা

আপনারা হয়ত অবাক হবেন জেনে যে গ্লোবাল ভয়েসেসে কুর্দি ব্লগের উপর প্রতিবেদন প্রচারিত হচ্ছে তুর্কি ব্লগ নিয়ে শুরু হওয়ার অনেক আগে থেকে । কিন্তু তুর্কি ব্লগোস্ফিয়ার যেখানে দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে সেখানে কুর্দি ব্লগ (বিশেষ করে ওদের ইংরেজি ব্লগগুলো) বিলুপ্ত হয়ে যাচ্ছে। আজকের লেখাতে কুর্দি আন্দোলনের বর্তমান অবস্থা (ব্লগিংকে এর একটি অংশ ধরা হয়) এবং কুর্দি কন্ঠগুলিকে প্রসারিত করার নতুন এক উদ্যোগকে তুলে ধরা হয়েছে।

কুর্দি কন্ঠগুলো হ্রাসের কারণ সহজে বোঝানো যাবে না, কিন্তু একটা বড় কারন হলো কুর্দি ওযেব সাইটগুলো বিভিন্ন হ্যাকার দ্বারা আক্রান্ত হওয়া। ইরাকিকুর্দিস্তান “ডেন্জারাস ঘোস্ট নে মুতলু তুরকুম দিয়েনে” নামক এক হ্যাকার দারা আক্রান্ত হয়েছিল। এবং যদিও এটি যাচাই করতে পারিনি আমার মনে হয় যে একই কারনে ফ্রম হল্যান্ড টু কুর্দিস্তান তাদের ব্লগ শুধুমাত্র আমন্ত্রিত পাঠকদের জন্য নির্দিষ্ট করে দিয়েছে। শুধুমাত্র হ্যাকাররাই নয়, কুর্দীরা যেইসব দেশ থেকে লিখছেন সেইসব দেশের সরকারও তাদের জন্য বিপদের কারন। দ্য আরব নেটওয়ার্ক ফর কুর্দিশ রাইটস হচ্ছে একটি নতুন প্রতিষ্ঠান যারা কুর্দিশ ব্লগ অনলাইনকে বাচাতে চাচ্ছে। এই মাসের শেষে ছাড়ার জন্যে তারা একটা পিটিশন তৈরি করছে। তার আগে পর্যন্ত তাদের পোস্টের কিছু অংশঃ

কুর্দিশ রাইটস স্বাধীন কুর্দি ছাত্রদের একটা প্রোজেক্ট যারা মধ্যপ্রাচ্যের অভ্যন্তরে কুর্দিদের অধিকার নিযে কাজ করতে চায। এই ওযেব সাইটের মাধমে আমরা কুর্দি ব্লগার ও সাইট পরিচালকদের সুযোগ দিতে চাই যাতে তারা লিখতে পারে। যদিও ইরান, তুরস্ক, বাহরাইন, সিরিয়া থেকে শুরু করে প্রায় সব মধ্য প্রাচ্যের দেশে কুর্দি ব্লগ এবং সাইটগুলো ব্যান করে দেয়া হচ্ছে। ঐতিহ্যগতভাবে এই অন্চলে মূল সংবাদ মাধমে কুর্দিদের কথা বলতে দেয়া হত না। এখন আমরা – ছাত্র আর তরুন আন্দোলনকারীরা বলতে চাই “যথেষ্ট হয়েছে” ।

নতুন প্রযুক্তি আমাদের সুযোগ করে দিচ্ছে তাদের আওয়াজ শোনার, যাদের বলতে দেয়া হয়নি পুরো ইতিহাসজুড়ে। আর এই শক্তিশালী মাধ্যমকে আমরা আমাদের সংগী কুর্দি ব্লগার আর লেখকদের কাছ থেকে কেড়ে নিতে দেব না।

হেভাল্লো ব্লগ সাইটটি তাদের মিশন স্টেটমেন্টে ওয়েবে কুর্দি কন্ঠের অভাবের কথা তুলে ধরেঃ

এমন একটি সময় যখন তুরস্কে কুর্দি সংগ্রামকে মনস্তাত্বিক যুদ্ধ আর দুর্বৃত্তকরন বলে চালান হচ্ছে তখন দেখা যাচ্ছে ইংলিশে কুর্দি ব্লগ বা সাইট তেমন নেই যারা কুর্দিদের দৃস্টিভঙ্গি আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলে তুলে ধরবে। ফলে কুর্দিদের উপর আরোপিত সন্ত্রাস ও সন্ত্রাসবাদী এই তকমাগুলোকে যা পশ্চিমের দেশগুলো খুব সহজেই মেনে নেয় তা চ্যালেঞ্জ করার তেমন সুযোগ নেই। হেভাল্লো তাই করতে চেষ্টা করে।

এই লেখাতে বেশ কয়েকবার সেভরোজটিভি সাইটটির কথা বলা হয়েছে যারা কুর্দি ভাষায় তাদের সম্প্রচার এর অধিকার নিয়ে কাজ করছে।

কুর্দী আন্দোলনের সাম্প্রতিক কথা বলতে গেলে, সুপরিচিত কুর্দি বিপ্লবী ওরহান দোগানের মৃত্যুতে তুর্কি কুর্দিস্তানের কুর্দিদের মধ্যে শোকের ছায়া নেমে আসে। রাস্তি আর হেভাল্লো তে তার এই অসময়ের মৃত্যু আর দাফন নিয়ে খবর ছিল।

আজকের লেখা আমি শেষ করব জানেতির একটি সুন্দর লেখা থেকে উদ্ধৃতি দিয়ে। একজন কুর্দি বিপ্লবী এবং ওরহান দোগানের সহকারী লেইলা যানা সম্বন্ধে তিনি লিখছেন:

পৃথিবীর সব জায়গায এমন সাহসী মানুষ পাওয়া যাবে যারা নিজের আর আশপাশের লোকজনের জন্য ঠিক কাজটি করতে বদ্ধপরিকর। এইসব মানুষ তাদের কাজের জন্যই অন্যের শ্রদ্ধা অর্জন করেন। যদিও সময়মত এদের মূল্লায়ন করা হয়না কিন্তু আশা করা হয় যে তারা একসময় তাদের কাজের স্বীকৃতি পাবেন। লেইলা যানা তুরস্কের কুর্দি অধ্যুষিত এলাকায় (উত্তর কুর্দিস্তান) সংগ্রামী জীবনযাপন করছে নিজের মানুষের অধিকার আর গনতন্ত্রের জন্যে যেখানে এই ধারনাটি অর্জন করা মনে হয় আপাতঃদৃষ্টিতে অসম্ভব। এটা শ্লেষপুর্ন যে তাকে বিভক্তি আর ঘৃনা ছড়ানোর জন্য অভিযুক্ত করা হয়েছে যদিও সে শান্তি আর গনতন্ত্রের কথা বলে। আসলে শ্লেষ নয় বরং তার বাসভুমে গনতন্ত্রের অভাবই ঘৃনার উদ্ভব ঘটায় যখন তার মতন মানুষ শান্তির জন্য চেষ্টা করে আর শাস্তি পায়।

তুরস্কে কুর্দিদের উপর সন্ত্রাস ও অমানুষিক নির্যাতন চালানো হচ্ছে আর তাদের উপর জোরপূর্বক একাত্মকরণের নীতি আরোপ করা হচ্ছে। কুর্দিরা সামাজিক আর রাজনৈতিক অসামঞ্জস্যতার শিকার আর তাদের এলাকা অর্থনৈতিকভাবে পিছিয়ে। যদিও দুনিয়ার অনেকে বলে যে এই দেশ (তুরস্ক) মধ্য প্রাচ্যে গনতন্ত্রের প্রতিনিধিত্ব করে কিন্তু যে কেউই বুঝতে পারবে এটি সত্যি নয়। যেসব কুর্দি এই অবিচারের বিরুদ্ধে বলেছে তাদেরকে তুরস্ককে ভয় দেখানোর জন্য শাস্তি দেয়া হয়েছে আর বন্দি করা হয়েছে। লেইলা যানার গল্প সেই সব লোকদের প্রতিনিধিত্ব করে যারা শান্তির পথ বেছে নিযেছে এবং তার জন্য শাস্তি পেযেছে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .