বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

মেক্সিকোতে সেলফোন নিবন্ধন, গোপনীয়তা নিয়ে ব্যবহারকারীদের মধ্যে উদ্বেগ

স্টকস্ন্যাপের ক্রিস্টিন হার্ডউইকের ছবি, প্রকাশ্য ডোমেনের অধীনে প্রকাশিত।

মেক্সিকো একটি ডাটাবেজে বায়োমেট্রিক তথ্য, নাম এবং সেলফোন ব্যবহারকারীদের ঠিকানা নিবন্ধ করার যে পরিকল্পনা অনুমোদন করেছে, তাকে ভীতিকর সিদ্ধান্ত অভিহিত করেছে সক্রিয় কর্মীরা। মেক্সিকো সরকার ইতোমধ্যে বেশ কয়েকবার ব্যক্তিগত তথ্যের সুরক্ষা দিতে ব্যর্থ হয়েছে।

১৬ এপ্রিল তারিখে মেক্সিকো প্রজাতন্ত্রের সিনেট মেক্সিকোর টেলিযোগাযোগ ও সম্প্রচার সম্পর্কিত আইনকে সংশোধন করে মোবাইল টেলিফোন ব্যবহারকারীদের জাতীয় নিবন্ধন (স্পেনীয় ভাষায় প্যাড্রন ন্যাসিয়োনাল দে উসুয়ারিওস দে টেলিফোনিয়া মাভিল – পানাউত) তৈরি করার জন্যে অনুমোদন দেওয়ার পর একটি ডিক্রি প্রকাশ করে।

নিবন্ধটি হলো টেলিফোন অপারেটর পরিচালিত গ্রাহকদের সেলফোন পরিষেবাদির তথ্য সম্পর্কিত একটি ডাটাবেজ। ডিক্রি এই দাবিটিকেই প্রতিষ্ঠা করে:

সেলফোন পরিষেবাদি সক্রিয় করতে ব্যবহারকারীকে আনুষ্ঠানিক পরিচয়, ঠিকানার প্রমাণ এবং বায়োমেট্রিক ডেটা সরবরাহ করে (…) জাতীয় মোবাইল টেলিফোন ব্যবহারকারী নিবন্ধে সেলফোন নম্বরটির নিবন্ধন বাধ্যতামূলক।

এর অর্থ হলো মেক্সিকোতে সেলফোন ব্যবহারকারীদেরকে তাদের ব্যক্তিগত এবং আঙুলের ছাপ ও মুখের বৈশিষ্ট্যের মতো বায়োমেট্রিক ডেটা প্রদান করে তাদের সিম কার্ডগুলি নিবন্ধন করতে হবে। টেলিফোন অপারেটররা এই তথ্যাদি সংগ্রহ ও পরিচালনার দায়িত্বে থাকবে। ধারণা করা যায় এই নিবন্ধটি তৈরি করতে ৭০ কোটি পেসো (প্রায় বাংলাদেশী ৩০০ কোটি টাকা) ব্যয় হবে।

মেক্সিকোর সিনেটের মতে এই আইনি পরিবর্তনগুলি করার যৌক্তিকতা হলো “বেআইনী কাজকর্ম সম্পর্কিত কমিশনের বিষয়গুলিতে সুরক্ষা এবং ন্যায়বিচার প্রসঙ্গে উপযুক্ত কর্তৃপক্ষকে সহযোগিতা” করা। জাতীয় তথ্য অনুসারে, ২০১৯ সালের মধ্যে আনুমানিক ২ কোটি ৩০ লক্ষ মানুষ শিকার হয়েছিল অপরাধের। মেক্সিকোর রাষ্ট্রপতি আন্দ্রেস মানুয়েল লোপেজ ওব্রাডোরের 2018 সালে নির্বাচিত হওয়ার পরে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ মৌলিক প্রতিশ্রুতি ছিল “শান্তি ও নিরাপত্তা” অর্জন।

আইনি প্রক্রিয়া চলাকালীন এবং এর অনুমোদনের পরে সমালোচনার সৃষ্টি হয়। নাগরিক সমাজ সংস্থা ডিজিটাল অধিকারের জন্যে নেটওয়ার্ক বা আর৩ডি প্রাথমিক পর্যায়ে সতর্ক করেছে যে অপরাধ হ্রাসে এধরনের প্রক্রিয়ার ভূমিকা রাখার কোন প্রমাণ নেই। তারা আরো বলেছে যে এই প্রক্রিয়াগুলি এড়ানো সহজ। এদিকে ব্যক্তিগত তথ্যে অননুমোদিত প্রবেশাধিকার অথবা তা  ফাঁস হওয়ার সম্ভাবনার কারণে ডাটাবেজটি গোপনীয়তার মতো মৌলিক অধিকারগুলি লঙ্ঘন করবে এবং ব্যক্তিগত সুরক্ষা ক্ষতিগ্রস্ত করতে পারে। সংস্থাটি বলেছে যে “সংস্কারটি নিবন্ধনে নিবন্ধিত ব্যক্তির [নামে থাকা] সেলফোন নম্বরটি থেকে করা সকল আইনি কাজকে প্রমাণ করে“ বলে এটি নির্দোষ থাকার অনুমানকে প্রভাবিত করবে। যার মানে হলো উদাহরণস্বরূপ, জনগণকে প্রমাণ করতে হবে যে চুরি বা ছদ্মবেশে ঘটানোর ঘটনার ক্ষেত্রে তাকে দায়বদ্ধ করা যাবে না।

১,০০০ কোম্পানির সমন্বয়ে গঠিত বৈদ্যুতিক টেলিযোগযোগ শিল্পের একটি ক্ষেত্র খসড়া আইনটি বাতিল করতে বলেছে। তারা যুক্তি দেখিয়েছে যে যেখানে প্রত্যেকটি অপারেটর যেখানে বিভিন্ন রকম প্রযুক্তি ব্যবহার করে এমন পরিবেশে একটি ডাটাবেজ তৈরি করা কঠিন হবে এবং তারা দাবি করেছে এই উদ্যোগ অপরাধের মাত্রা তো হ্রাস করবেই না বরং অধিকতর বিনিয়োগ নিরুৎসাহিত করবে।

আনুষ্ঠানিক পরিসংখ্যান অনুসারে মেক্সিকোতে কেন্দ্রীয় সরকারের উপর আস্থা বাড়লেও সরকারের মান ও প্রভাব সম্পর্কিত জাতীয় জরিপ ২০১৯ অনুসারে দুর্নীতির শিকার মানুষের সংখ্যা ৭.৫ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে বলে মেক্সিকীয়রা অভিযোগ করেছে। সংস্থাগুলি আশঙ্কা করে যে ব্যক্তিগত তথ্যাবলীর এই তালিকাটি হারিয়ে গিয়ে পড়বে খারাপ ব্যক্তিদের হাতে, ফলে নিরাপত্তাহীনতার অনুভূতি বাড়বে।

মেক্সিকোতে ব্যক্তিগত তথ্য সুরক্ষার দায়িত্বে থাকা কেন্দ্রীয় সংস্থা অনুসারে, সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলি যে ব্যক্তিগত তথ্যের সুরক্ষা দিতে ব্যর্থ হয়েছে এমন বেশ কয়েকটি ঘটনা নথিভুক্ত রয়েছে। সাম্প্রতিক উদাহরণগুলির মধ্যে একটি হলো জনকার্যক্রম মন্ত্রণালয় যারা কেন্দ্রীয় প্রশাসনের ৮ লক্ষ ৩০ হাজার সরকারি কর্মকর্তার ডেটা প্রকাশ করে দিয়েছে

স্বাস্থ্যখাতে এরকমই আরো একটি ঘটনা ঘটেছিল। ২০১৮ সালে মিচোয়াকান রাজ্যের রোগীদের চিকিৎসা সম্পর্কিত ২৩ লক্ষ দলিলাদি ফাঁস ও প্রকাশ হয়ে যায়। কেন্দ্রীয় কর্তৃপক্ষ প্রযুক্তি সংস্থা হোভা হেলথের উপর “সম্ভাব্য দায়িত্ব” চাপিয়ে দেয়। ২০২০ সালে একই খাতে একটি তদন্তে ইন্টারনেটের সার্চ ইঞ্জিনে রাজ্যের রোগীদের ব্যক্তিগত ডেটা পাওয়ার বিষয় প্রকাশিত হয়।

২০০৯ সালে একইরকম একটি নিবন্ধন – তথাকথিত মোবাইল টেলিফোনি ব্যবহারকারীদের জাতীয় নিবন্ধন (স্পেনীয় ভাষায়, রেজিস্ট্রো ন্যাসিয়োনাল দে উসুয়ারিওস দে টেলিফোনিয়া মভিল, বা রেনআউট) তৈরির চেষ্টা করা হয়েছিল। ডাটাবেজটি বিক্রয়ের জন্যে করা হয়েছে জানার পরে বন্ধ করে দেওয়ার আগে এটি মাত্র দুই মাস চালু ছিল। ২০১৩ সালের নির্বাচনী নিবন্ধনটিও অনলাইনে বিক্রয়ের জন্যে করা হয়েছিল

নাগরিকরা সেল ফোন নিবন্ধন তৈরির বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নিলেও বিচারকরা এসবের বেশিরভাগের কার্যক্রম নাকচ করে দিয়েছে। কাজের অংশ হিসেবে জাতীয় স্বচ্ছতা, তথ্যে প্রবেশাধিকার, ও ব্যক্তিগত ডেটা সুরক্ষা প্রতিষ্ঠান (স্পেনীয় ভাষায়, ইনস্তিতিউতো ন্যাসিওনাল দে ত্রান্সপারেন্সিয়া, অ্যাকসেসো এ লা ইনফর্মেসিওন ই ডেতাস পারসোনালিস) সংবধানের সাথে সঙ্গতি না থাকায় এর বিরুদ্ধে একটি ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে কারণ তারা মনে করে নিবন্ধনটি ব্যক্তিগত তথ্য এবং তথ্যে প্রবেশাধিকার সুরক্ষা আইন লঙ্ঘন করেছে। কোন বাজেট অনুমোদিনের আগেই নিবন্ধন তৈরি ও পরিচালনার জন্যে সম্পদ বরাদ্দ দিতে না পারা এবং মত প্রকাশের স্বাধীনতা এবং টেলিযোগাযোগ পরিষেবাগুলিতে প্রবেশাধিকারকে প্রভাবিত করতে পারে এমন যুক্তির ভিত্তিতে কেন্দ্রীয় টেলিযোগাযোগ প্রতিষ্ঠান (স্পেনীয় ভাষায়, ইনস্তিতিউতো ফেদারেল দে তেলিকমুনিক্যাসিয়োনস, বা আইএফটি )ও এই পদক্ষেপগুলির সাথে যুক্ত হয়েছে।

১০ টি সামাজিক সংগঠনের সমন্বয়ে #নোএএলপাদ্রোন (#নিবন্ধনে_না) উদ্যোগটি তার কাজের অংশ হিসেবে রাষ্ট্রীয় স্বায়ত্তশাসিত সংস্থা জাতীয় মানবাধিকার কমিশনকে (স্পেনীয় ভাষায় কমিসিওন ন্যাসিওনাল দে দেরেচোস হিউমানোস বা সিএনডিএইচ) নিবন্ধনটির অসাংবিধানিকতাকে চ্যালেঞ্জ করার দাবি জানালে প্রতিক্রিয়া হিসেবে কমিশন জানিয়েছে যে তারা এতে যোগদান করবে না, শুধু অনুসরণ করবে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .