বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

রাষ্ট্রপতির মুছে ফেলা টুইট নিয়ে সহিংসতার হুমকি বিতর্কের পরে নাইজেরীয় সরকার টুইটার স্থগিত করেছে

নাইজেরিয়া ফেডারেল প্রজাতন্ত্রের রাষ্ট্রপতি মুহাম্মাদু বুহারির সরকারি প্রতিকৃতি, ২৯ মে ২০১৫ তারিখে উইকিমিডিয়া সাধারণের মাধ্যমে বায়ো ওমোবোরিয়াও এর তোলা ছবি (সিসি বাই-এসএ ৪.০)।

ইগবো নৃগোষ্ঠীর বিরুদ্ধে রাষ্ট্র যে সহিংসতা ব্যবহার করতে যাচ্ছে তার ইঙ্গিতবহ নাইজেরিয়ার রাষ্ট্রপতি মুহাম্মাদু বুহারির একটি ক্ষতিকারক টুইট মুছে ফেলার পর কয়েকদিন পরেই শুক্রবার (৪ জুন) নাইজেরিয়ার সরকার ঘোষণা দিয়েছে যে তারা দেশে টুইটার স্থগিত করে দিচ্ছে

টুইটটি অপসারণ করা সত্ত্বেও ১০ লক্ষেরও বেশি লোক মৃত্যুবরণ করা একটি গৃহযুদ্ধের বেদনাদায়ক স্মৃতি নিয়ে বার্তাটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রচারিত হতে থাকে। এছাড়াও টুইটটি ইগবো নৃগোষ্ঠীর নাইজেরীয়দের সমর্থনে সামাজিক মিডিয়ায় একটি আন্দোলনের সূত্রপাত করে।

২০২১ সালের ১ জুন তারিখে পোস্ট করা টুইটের একটি ধারাবাহিকের মাধ্যমে দক্ষিণ-পূর্ব নাইজেরিয়ার বিচ্ছিন্নতাবাদী বায়াফ্রা প্রজাতন্ত্রের বিরুদ্ধে ১৯৬৭-১৯৭০-এ নাইজেরিয়ার গৃহযুদ্ধের প্রসঙ্গ তুলে বুহারি “তারা যে ভাষা বোঝে সে ভাষায়” দেশটির পূর্বাংশের নাইজেরীয়দের প্রতি সেরকম “ব্যবহার” করার হুমকি দিয়েছেন।

এই অঞ্চলে সরকারি এবং নিরাপত্তা স্থাপনাগুলির উপর বায়াফ্রাপন্থী একটি বিচ্ছিন্নতাবাদী আন্দোলন বায়াফ্রার আদিবাসী জনগণ (আইপিওবি) এর সাথে সংযুক্ত একটি সশস্ত্র গোষ্ঠীকে দোষারোপ করা একের পর এক এই হামলাগুলির পরে এই টুইটগুলি এসেছিল। আইপিওবি হামলায় জড়িত থাকার বিষয়টি অস্বীকার করেছে, জানিয়েছে ভয়েস অব আমেরিকা।

“আজকে যারা দুর্ব্যবহার করছে তাদের অনেকেরই নাইজেরিয়ার গৃহযুদ্ধের সময় ঘটে যাওয়া ধ্বংস ও প্রাণহানী সম্পর্কে যথেষ্ট সচেতন হওয়ার বয়স হয়নি,” বুহারির সদ্য মুছে ফেলা টুইটে বলা হয়েছে:

নাইজেরিয়ার রাষ্ট্রপতি বুহারি আপত্তিজনক টুইটটির পর্দাছবি

টুইটগুলিতে নির্বাচনী কর্মকর্তাদের উপর অগ্নিসংযোগের হামলার তরঙ্গে নাইজেরিয়ার রাজধানী আবুজার রাষ্ট্রীয় ভবনে বসে থাকা দৃশ্যমানভাবে বিরক্ত বুহারির মন্তব্যের পুনরাবৃত্তি হয়েছিল। “আমি মনে করি আমরা তাদের যথেষ্ট স্বাধীনতা দিয়েছি। তারা তাদের উদ্দেশ্য স্পষ্ট করেছে যে তারা শুধু দেশের ধ্বংস চায়,” বিচ্ছিন্নতাবাদী আন্দোলনকারীদের উল্লেখ করে তিনি বলেছেন:

অবসরপ্রাপ্ত জেনারেল বুহারি নাইজেরিয়ার গৃহযুদ্ধের সময় সেনাবাহিনীতে দায়িত্ব পালন করেছিলেন।

নৃশংস গৃহযুদ্ধটির ফলে “দশ লক্ষেরও বেশি ইগবো নৃগোষ্ঠী এবং অন্যান্য পূর্বাঞ্চলীয়দের মৃত্যু হয়েছিল”, বলেছেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মার্কেট বিশ্ববিদ্যালয়ের আফ্রিকীয় ইতিহাসের অধ্যাপক চিমা জে. কোরিহ। “বেশিরভাগ নাইজেরীয়দের কাছে বায়াফ্রার বিচ্ছিন্ন রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে লড়াইটি সাধারণভাবে ভুলে যাওয়ার চেষ্টা করা দুর্ভাগ্যজনক ঘটনা বিবেচিত হলেও বিচ্ছিন্নতার জন্যে লড়াই করা ইগবো জনগণের কাছে এখনো এটি জীবনের মানে খুঁজে পাওয়ার মতো একটি ঘটনা,” জোর দিয়ে বলেছেন নাইজেরীয় লেখক অ্যাডাওবি ট্রিসিয়া ন্বাউবানি। (প্রকাশ: লেখক ইগবো নৃগোষ্ঠীর লোক।)

বিদ্বেষপূর্ণ আচরণ সম্পর্কিত টুইটার নীতি “জাতি, জাতিসত্ত্বা, জাতীয় উৎস” এর ভিত্তিতে জনগণের প্রতি “সহিংসতার প্রচার বা হুমকি” দেওয়া টুইটগুলি নিষিদ্ধ করে। বুহরির মতো এই জাতীয় টুইটগুলি হয় প্রযুক্তি সংস্থা মুছে ফেলেছে অথবা ব্যবহারকারীকে “লঙ্ঘনকারী বিষয়বস্তু হিসেবে অপসারণ” করতে বাধ্য করা হয়।

নাইজেরিয়ার তথ্যমন্ত্রী লাই মোহাম্মদ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম সংস্থা কর্তৃক রাষ্ট্রপতির টুইট অপসারণকে “অত্যন্ত সন্দেহজনক” বলে বর্ণনা করেছেন:

মুছে ফেলা আপত্তিজনক টুইটগুলি এখনো দৃশ্যমান

সামাজিক মিডিয়ার ফরেনসিক বিশেষজ্ঞ ডিজিটাল আফ্রিকা গবেষণাগার (ডিজিআফ্রিকা ল্যাব) প্রকাশিত তদন্তে প্রকাশিত হয়েছে যে টুইটার বুহারির আপত্তিজনক টুইটটি মুছে ফেলার দু'দিন পরেও  “টুইট উদ্ধৃতির কারণে” এখনো “অসংখ্য সময়রেখাজুড়ে” দৃশ্যমান:

“বিভিন্ন যন্ত্রে” “বিভিন্ন অ্যাকাউন্ট” এর মাধ্যমে সাইন ইন করে ডিজিআফ্রিকা গবেষণাগার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম সংস্থাটি  রাষ্ট্রপতি বুহারির যাচাইকৃত টুইটার হাতল “@এমবুহারি এবং @এনজিআররাষ্ট্রপতি সময়রেখা” থেকে আপত্তিকর টুইটগুলি সরিয়ে ফেলার আগে ব্যবহারকারীদের করা ১,৭০০-রও বেশি টুইট উদ্ধৃতি এখনো দেখতে সক্ষম। এছাড়াও, ডিজিআফ্রিকা গবেষণাগার রাষ্ট্রপতি বুহারীর মুছে ফেলা টুইটটিকে ক্লিক এবং প্রসারিত করতে পেরেছে।

“একটি ইউআরএল (বৈশ্বিক উৎস চিহ্নিতকারী) এর মাধ্যমে টুইটারের সার্ভারগুলিতে” যুক্ত করার জন্যে তৃতীয় পক্ষের বিভিন্ন অ্যাপ্লিকেশনের উপর নির্ভরশীল অ্যাপ্লিকেশন প্রোগ্রামিং ইন্টারফেস (এপিআই) নামের টুইটারের সফ্টওয়্যারের কারণে মুছে ফেলা টুইটগুলি এখনো টুইটার ব্যবহারকারীদের কাছে দৃশ্যমান হতে পারে।

নিউইয়র্ক টাইমসের জে.ডি. বিয়ার্সডোরফারের মতে আর একটি কারণ হলো মুছে ফেলা টুইটগুলি “এখনো পর্যন্ত ক্যাশেতে সংরক্ষিত থাকার ফলে অনুসন্ধানের ফলাফলগুলিতে প্রদর্শিত হতে পারে – যতক্ষণ না সাইটটি আবার সূচি তৈরি করে আপনার টুইটার প্রোফাইল এবং পোস্টগুলির একটি নতুন কপি দিয়ে নিজেকে হালনাগাদ করে।”

#আমিওইগবো হ্যাশট্যাগ দিয়ে চপেটাঘাত

রাষ্ট্রপতি বুহারির আপত্তিজনক টুইট নাইজেরীয় টুইটার ব্যবহারকারীদের কাছ থেকে একটি প্রতিক্রিয়া তৈরি করেছে যারা তাদের অসন্তুষ্টি প্রকাশ করার জন্যে #আমিওইগবো হ্যাশট্যাগ চাউর করেছে। এছাড়াও বিভিন্ন জাতিগোষ্ঠীর নাইজেরীয় টুইটার ব্যবহারকারীরা ইগবো জনগণের প্রতি সংহতি জ্ঞাপন করতে ইগবো নাম গ্রহণ করেছে।

৪ জুন, ২০২১ তারিখে ব্র্যান্ড উল্লেখ করা বিভিন্ন অ্যাপ্লিকেশনের উপর  গ্লোবাল ভয়েসেস পরিচালিত একটি বিশ্লেষণে জানা গেছে যে বিগত সাতদিনে টুইটার ও ইনস্টাগ্রাম মিলে #আমিওইগবো হ্যাশট্যাগটির ৫০৮টি উল্লেখ, ৩,১৯,২০০ প্রতিক্রিয়া, ৪,৫৭,৫০০ উপস্থিতি এবং ৩,১৩,১০০ শেয়ার হয়েছে।

#আমিওইগবো হ্যাশট্যাগ উল্লেখ প্রসঙ্গে পর্দাছবি

মানবাধিকারকর্মী আয়শা ইয়েসুফু “আমাকে ঈশ্বরের প্রশংসায় যুক্ত করুন” অর্থের ইগবো নাম “সোমটোচুক্বু” গ্রহণ করে “ইগবো জনগণের প্রতি রাষ্ট্রপতি বুহারির ১৯৬৭ সালের [গৃহযুদ্ধের] হুমকি”র নিন্দা জানিয়ে বলেছেন “ইগবো জনগণের উপর আক্রমণ মানেই আমার উপর আক্রমণ”:

নাইজেরীয় হিপ-হপ রেকর্ডিং শিল্পী এবং রেকর্ড প্রযোজক জুড আবাগা (এম.আই. আবাগা) এধরনের ঘৃণাত্মক বক্তব্য উৎরে ওঠার জন্যে দেশের প্রতি তার আকাঙ্ক্ষা ব্যক্ত করেছেন:

#সার্সঅবসান কর্মী রিনুওলা [রিনু] ওদুয়ালা “সশস্ত্র বাহিনীর নেতা” অর্থের ইগবো নাম “ওচিয়াগা” গ্রহণ ও ১৯২৯ সালের নভেম্বরে আবা নারী বিদ্রোহের কথা উল্লেখ করে নাইজেরিয়ার ইতিহাসে ইগবো নারীদের গৌরবপূর্ণ অবদানের কথা স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন:

গ্লোবাল ভয়েসেসের ইগবো ভাষার অনুবাদক ব্লসম ওজুরুম্বা উল্লেখ করেছেন যে “সহিংসতা সবসময় অমানবিকীকরণ দিয়েই শুরু হয়”:

ওজুরুম্বার মতে অমানবিকীকরণ “গোষ্ঠী পরিচয়ের ভিত্তিতে অন্যকে হত্যা, বৈষম্যমূলক আচরণ বা নির্যাতনের সাথে সম্পর্কিত নৈতিক উদ্বেগকে অপসারণ আরো সহজ করে তোলে।”

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .