বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

নেটনাগরিক প্রতিবেদন: ভেনিজুয়েলার রাজনৈতিক সংকট কিভাবে অনলাইনে খেলছে

মারাকাইবোতে ভেনিজুয়েলার বলিভিরীয় জাতীয় পুলিশের একজন কর্মকর্তা  বিক্ষোভকারীদের ওপর লক্ষ্য রাখছে, ২০১৪। মারিয়া আলেহান্দ্রা মোরার ছবি (সিসি বাই-এসএ ৩.০)

অ্যাডভক্স নেট-নাগরিক প্রতিবেদন বিশ্বজুড়ে ইন্টারনেট অধিকারগুলির ক্ষেত্রে বিভিন্ন প্রতিবন্ধকতা, সমস্যা থেকে উত্তরণ এবং উদীয়মান প্রবণতাগুলির একটি আন্তর্জাতিক আলোকপাত উপস্থাপন করে। এই প্রতিবেদনটিতে ২০১৯ সালের জানুয়ারি মাসের ১৮ থেকে ৩১ তারিখের ঘটনাগুলো উল্লেখিত হয়েছে।

ভেনিজুয়েলাতে বেসামরিক জনগণ ও সামরিক বাহিনীর মধ্যে প্রকাশ্য বিক্ষোভ ও সংঘর্ষ চলাকালে দেশবাসী ইন্টারনেট এবং প্রধান সামাজিক গণমাধ্যমের মঞ্চগুলিতে মাঝে মাঝেই প্রবেশ করতে পারছে না

জাতীয় পরিষদের সভাপতি জুয়ান গুয়েদো নিজে নিজে প্রজাতন্ত্রের ভারপ্রাপ্ত প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিয়ে নিকোলাস মাদুরোর বর্তমান সরকারের ক্ষমতায় থাকার বৈধতা না থাকার কথা বলার পর ২৩ জানুয়ারি তারিখ থেকে জন-অস্থিরতা বেড়ে যায়। গুয়েদো একটি সাংবিধানিক আইন প্রণয়ন করেছেন যা (ব্যাখ্যার ভিন্নতা অনুসারে) তাকে মুক্ত ও সুষ্ঠু নির্বাচনের আগে পর্যন্ত প্রজাতন্ত্রের রাষ্ট্রপতি পদে আসীন হওয়ার ক্ষেত্রে প্রথম সারিতে রাখবে। এই লেখাটি লেখার সময়কালে গুয়েদোর পক্ষে অনেক আন্তর্জাতিক নেতা সমর্থন প্রকাশ করলেও সেনাবাহিনীর সমর্থন নিয়ে মাদুরো ক্ষমতা সংহত করেছে।

২০১৯ সালের ১০ জানুয়ারি তারিখে আন্তর্জাতিকভাবে নিন্দিত বিরোধী দলগুলোর অংশগ্রহণ নিষিদ্ধ একটি অন্তর্বর্তী নির্বাচনের পর মাদুরো দ্বিতীয় বারের মতো ছয় বছরের মেয়াদে শপথ নিয়েছেন।

গণবিক্ষোভের সঙ্গে সঙ্গে ১২ জানুয়ারি থেকে ভেনিজুয়েলার প্রভাবশালী রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন ইন্টারনেট সরবরাহকারী সিএএনটিভির মাধ্যমে প্রাপ্ত উইকিপিডিয়া, ইনস্টাগ্রাম, ইউটিউব এবং টুইটারসহ প্রধান প্রধান ওয়েবসাইট এবং পরিষেবাগুলো মাঝে মাঝেই অবরুদ্ধ হয়েছে। একই সময়ে সরকারি কর্মকর্তাবৃন্দ এবং বিবদমান উভয় পক্ষের লোকেরা দ্বন্দ্ব তাদের অবস্থান প্রতিষ্ঠা এবং সম্প্রচার করার জন্যে ইন্টারনেটের মঞ্চগুলো ব্যবহার করেছে।

১২ জানুয়ারি তারিখে স্বেচ্ছাসেবক সম্পাদকরা “সম্পাদনা যুদ্ধ”-এ ঝাঁপিয়ে পড়ার পর তাদের কেউ কেউ গুয়েদোর নিবন্ধ পরিবর্তন করে আনুষ্ঠানিকভাবে তাকে দেশের রাষ্ট্রপতি হিসেবে চিহ্নিত করার চেষ্টা করলে সাময়িকভাবে উইকিপিডিয়া বন্ধ করে দেয়া হয়েছিল

দেশের বাইরে অবস্থানরত একাধিক সামরিক কর্মকর্তা  ইউটিউবে ভিডিও প্রকাশ করে মাদুরো সরকারের নিন্দা জানিয়েছে। ভেনিজুয়েলার টেলিভিশনে এসব বার্তা না থাকলেও এগুলো আঞ্চলিক নেটওয়ার্কে ঘুরে বেড়িয়েছে। টুইটারে মার্কিন রাষ্ট্রগুলোর সংগঠনের মহাসচিব লুইস আলমাগ্রো থেকে শুরু করে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের উপ-রাষ্ট্রপতি মাইক পেন্স পর্যন্ত প্রধান প্রধান আন্তর্জাতিক বিভিন্ন কণ্ঠস্বর গুয়েদোকে সমর্থন জানিয়ে পোস্ট করেছে।

কারাকাস ক্রনিকেলসে জনপ্রিয় রাজনৈতিক বিশ্লেষক ফ্রান্সিসকো টোরো লিখেছেন:

ভেনিজুয়েলা গত কয়েক বছরে এতো দুর্যোগের মধ্য দিয়ে গিয়েছে যে সারাক্ষণ আমরা এই চিন্তার ফাঁদে পড়েছি না জানি পরিস্থিতির আরও অবনতি হয়। এটা আরো অনেক অনেক খারাপ হতে পারে। গৃহযুদ্ধ হলে অবশ্যই উভয় পক্ষ থেকেই আন্তর্জাতিক হস্তক্ষেপকে আমন্ত্রণ জানানো হবে। স্মৃতিচারণ করে দেখলে আগে থেকেই বিদ্যমান খাদ্য সংকটের মোড়কে আবৃত ক্যারিবীয় সিরিয়ার ২০১৮ সালকে পুরনো সুদিন মনে হতে পারে।
[…]

নিকট ভবিষ্যৎ খুবই ভীতিকর এবং বোঝাই যাচ্ছে যে অনিশ্চয়তা সবাইকে কিছুটা পাগল করেছে। আমরা সবাই সহজ, সুস্পষ্ট সত্যের বিরোধিতা করছি: সামনে কী আছে তা কেউ জানে না।

জিম্বাবুয়েতে আদালতের আদেশে ইন্টারনেট বন্ধের অবসান

জ্বালানির দাম বাড়ানোর বিরুদ্ধে জনসাধারণের বিক্ষোভের প্রেক্ষাপটে ছয়দিন ধরে জিম্বাবুয়েতে ইন্টারনেট ব্ল্যাক আউট চলাকালে মানবাধিকার আইনজীবীরা আদালতে এসব বন্ধকে চ্যালেঞ্জ করার জন্যে হামলে পড়েছেন।

২১ জানুয়ারি তারিখে নিরাপত্তা মন্ত্রী ওয়েন এনকুবের ইন্টারনেট বন্ধ করার সিদ্ধান্ত অবৈধ ছিল বলে উচ্চ আদালত আদেশ দিয়েছে। বিচারক ওয়েন ট্যাগু মন্ত্রীর নির্দেশনা দেওয়ার কোনও কর্তৃত্ব না থাকার কথা আদালতকে জানিয়ে টেলিযোগাযোগ সংস্থাগুলিকে “এখন থেকে অবিলম্বে বিনা শর্তে সকল গ্রাহকদের পূর্ণ এবং অবাধ পরিষেবা পুনরায় চালু করা”র আদেশ দেন। একইসঙ্গে আফ্রিকা এবং সারা বিশ্বের মিডিয়া ও ইন্টারনেট অধিকার গোষ্ঠী ইন্টারনেট বন্ধ রাখার নিন্দা জানিয়ে একটি যৌথ চিঠি দিয়েছে।

গ্রেপ্তার ও ছাপার নিষেধাজ্ঞা স্বত্ত্বেও সুদানি ব্লগারদের প্রতিবেদন অব্যহত

সকল বৈপরীত্যের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে সুদানের সাংবাদিকরা প্রেসিডেন্ট ওমর আল-বাশিরের বিরুদ্ধে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়া বিক্ষোভ কাভার করছে। অনেক সুদানী ২০২০ সালের নির্বাচনের আগে তার পদত্যাগের জন্যে চাপ দিচ্ছে। সুদানের নিরাপত্তা বাহিনী প্রধান প্রধান সামাজিক মিডিয়া মঞ্চগুলি বিচ্ছিন্ন বিক্ষিপ্ত সেন্সরের পাশাপাশি শ্রমিকদের শারীরিকভাবে ছাপাখানায় প্রবেশ করতে না দিয়ে স্বাধীন মিডিয়াগুলোকে সংবাদপত্র প্রকাশ করতে দিচ্ছে না। বিক্ষোভগুলো থেকে বেশ কয়েকজন সাংবাদিকসহ কমপক্ষে ৮০০ জনকে গ্রেপ্তারের কথা জানিয়েছে সাংবাদিক সুরক্ষা কমিটি

চীনা কর্তৃপক্ষ দু'জন প্রখ্যাত মানবাধিকার ব্লগারকে গ্রেপ্তার করেছে

২৯ শে জানুয়ারী তারিখে চীনের কেন্দ্রীয় হুবেই প্রদেশের একটি আদালত মানবাধিকারের আইনজীবী ও ওয়েবসাইট প্রতিষ্ঠাতা লিউ ফিউয়ুকে “রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে অন্তর্ঘাতমূলক কর্মকাণ্ডে উস্কানি” প্রদানে দোষী সাব্যস্ত করেছে। লিউ প্রতিবাদ-বিক্ষোভ, পুলিশী অপব্যবহার এবং সরকারি দুর্নীতিসহ বেশিরভাগ চীনা মিডিয়া সাইট থেকে বাদ দেয়া মানবাধিকার সংক্রান্ত বিভিন্ন সংবেদনশীল বিষয় কাভার করা একটি ওয়েবসাইট নাগরিক অধিকার এবং জীবনযাত্রা পর্যবেক্ষণ এর প্রতিষ্ঠাতা ও ব্যবস্থাপক ছিলেন।

এদিকে পরিবারের সঙ্গে দেশটি ঘুরে বেড়ানোর সময় গুয়াংঝুতে চীনা বংশোদ্ভূত অস্ট্রেলীয় লেখক ইয়াং হেনজুন  ইয়াং হেংজুন নিখোঁজ হয়েছেন। তখন থেকেই কর্তৃপক্ষ নিশ্চিত করেছে যে জাতীয় নিরাপত্তা বিপন্ন করে তোলার তাকে গ্রেপ্তার এবং অভিযুক্ত করা হয়েছে। লেখক এবং ব্লগার হিসেবে কাজ করার আগে ইয়াং চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে কাজ করতেন। সীমান্তবিহীন প্রতিবেদক  তার মুক্তির আহ্বান জানিয়েছে।

লেবাননের নিয়ন্ত্রকরা গ্রিন্ডার থামিয়ে দিয়েছে

১৮ জানুয়ারি তারিখে এলজিবিটিকিউ জনগণের মধ্যে জনপ্রিয় একটি ডেটিং অ্যাপ্লিকেশন গ্রিন্ডার লেবাননের দু’টি প্রধান টেলিযোগাযোগ পরিষেবা প্রদানকারী আলফা এবং টাচে প্রবেশ অযোগ্য হয়ে উঠেছে। লেবাননের টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের অনুরোধে ব্লকটি করা হয়েছে বলে টাচ এর একজন প্রতিনিধি বৈরুতের ডিজিটাল অধিকার গোষ্ঠী এসএমএক্স নিশ্চিত করেছেন। ব্লকটির বিরোধিতা করে একটি বিবৃ্তিতে এসএমইএক্স লিখেছে:

এটি কর্তৃপক্ষগুলোর জন্যে ব্যক্তিগত স্বাধীনতা নজরদারির একটি বিপজ্জনক উদাহরণ তৈরী করেছে। এটি আইনি এবং যথাযথ প্রক্রিয়া অনুসরণকে ক্ষুন্ন করে তাদের মুক্ত অভিব্যক্তি ছাড়াও তাদের তথ্যে প্রবেশাধিকারকে হুমকির মুখে ফেলে দিয়েছে।

গোষ্ঠীটি লক্ষ্য করেছে যে এই পদক্ষেপটি সম্প্রতি বাস্তবায়িত ই-লেনদেন এবং ডেটা সুরক্ষা আইনের ধারা ১২৫-কে লঙ্ঘন করেছে বলে মনে হচ্ছে। ধারাটি অনুসারে এই ধরনের সেন্সর প্রয়োগ করার আগে আদালতের অনুমোদন প্রয়োজন হয়।

তুর্কমেনিস্তানে গুগল প্লে অবরুদ্ধ, ভিপিএন ব্যবহারকারীদের চপেটাঘাত

তুর্কমেনিস্তানে সরকারের মালিকানাধীন এবং পরিচালিত দেশটির একমাত্র ইন্টারনেট পরিষেবা প্রদানকারী ১৭ জানুয়ারি তারিখে blগুগল প্লে স্টোর ব্লক করে করে দিয়েছে। এটি সম্ভবতঃ তুর্কমেন জনগণের ভিপিএন সফ্টওয়্যার ডাউনলোড করার ক্ষমতা সীমাবদ্ধ করার একটি প্রচেষ্টা। ফেসবুক, টুইটার, ইউটিউব, ইন্সটগ্রাম, হোয়াটসঅ্যাপ এবং রুশ সামাজিক মিডিয়া সাইট ভিকন্টাক্ট ও ওডনক্ল্যাসনিকি এই সবকিছুই সরকার সেন্সর করে বলে কেন্দ্রীয় এশিয়ার ছোট্ট এই দেশটিতে ভিপিএন অ্যাপ্লিকেশনগুলি ব্যাপক জনপ্রিয়।

গুগল প্লে ব্লক করার পর ভিপিএন সরবরাহকারীরা বিভিন্ন ভিপিএন অনুসন্ধানের তীব্রতা ৫৭৭ শতাংশ পর্যন্ত বৃদ্ধির কথা জানিয়েছে। ভিপিএন ব্যবহার করতে চেষ্টা করা কিছু লোক জানিয়েছে যে তাদের ইন্টারনেট পরিষেবাটি পুরোপুরি বন্ধই হয়ে গিয়েছে।

ব্রাজিলের নতুন সরকার মত প্রকাশের স্বাধীনতা আইন দুর্বল করছে

ব্রাজিলের নবনির্বাচিত রাষ্ট্রপতি জেইর বলসোনারোর প্রশাসন ব্রাজিলের তথ্যে প্রবেশাধিকার আইনে এমন একটি পরিবর্তন জারি করেছে যার সাহায্যে একটি অনুরোধের মাধ্যমে কোন ব্যক্তি সরকারি দলিল-দস্তাবেজে প্রবেশ করতে পারবে। এই পরিবর্তনটির ফলে নিম্ন স্তরের সরকারি কর্মকর্তারাও দলিল-দস্তাবেজগুলিতে গোপন এবং “অতিগোপন” চিহ্ন দিতে পারবে যার ফলে এই দলিল-দস্তাবেজগুলির ক্ষেত্রে এরকম কোন অনুরোধ চলবে না। আগে শুধু রাষ্ট্রপতি, উপ-রাষ্ট্রপতি, দেশের মন্ত্রীবৃন্দ, সশস্ত্র বাহিনীর অধিনায়ক এবং কূটনৈতিক মিশনের স্থায়ী প্রধানেরা দলিল-দস্তাবেজে এসব চিহ্ন দিতে পারতো। নতুন ডিক্রি অনুসারে অস্থায়ী চুক্তিতে নিযুক্ত সরকারি কর্মকর্তারাও একই কাজ করতে পারবে।

ফেসবুকের বার্তা অ্যাপ্লিকেশনের সঙ্গে এক হয়ে যাওয়া গোপনীয়তার জন্যে খারাপ হতে পারে

ফেসবুকের প্রধান নির্বাহী মার্ক জুকারবার্গ ফেসবুকের তিনটি বৃহত্তম সামাজিক মঞ্চ – হোয়াটসঅ্যাপ, ইনস্টগ্রাম এবং এর প্রধান সাইট জুড়ে বার্তা অ্যাপ্লিকেশনগুলিকে একত্রিত করার পরিকল্পনা করছেন। কোম্পানিটি কীভাবে এটি করার পরিকল্পনা করছে তার কোন তথ্য না থাকলেও জনগণের গোপনীয়তা এবং নিরাপত্তার উপর এই পরিবর্তনটির নকশা ও তার প্রভাব সাংঘাতিক হতে পারে।

ক্রিপ্টোগ্রাফি সম্প্রদায়ের প্রাথমিক প্রতিক্রিয়া সংগ্রহ করে ডাব্লিউআইআরইডি-এর লিলি হে নিউম্যান লিখেছেন যে এই পরিবর্তনটি “আমার কাছে থেকে ফেসবুকের জন্যে আরও সমৃদ্ধ এবং সূক্ষ্ণ ব্যবহারকারী ডেটার ভাণ্ডার খুলে দিতে পারে এবং একটি কেন্দ্রীয় পরিচয়ের সঙ্গে ঐসব প্রোফাইলগকে যুক্ত করতে না পারলে পরিষেবাগুলির এক বা একাধিকটির ব্যবহার সম্ভাব্যভাবে আরও কঠিন করে তুলতে পারে।”

নতুন গবেষণা

সংশোধনী: এই পোস্টের মূল সংস্করণে বলা হয়েছিল যে হুয়ান গুয়েদো ২০ জানুয়ারি তারিখে নিজেই শপথ নিয়েছেন। আসলে তিনি ২০ জানুয়ারিতে নয়, ২৩ জানুয়ারি তারিখে এটি করেছিলেন।

নেট-নাগরিক প্রতিবেদনের গ্রাহক হোন

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .