বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

লাল রং, ওঁত পাতা এবং সাইবার আক্রমণ: বেইজিংপন্থী পত্রিকার সহিংসতা বৃদ্ধির নিন্দা

ঝাং দেজিয়াং-কে আক্রমণ করা সিং পাও পত্রিকার সামনের পাতা, ৩ অক্টোবর (২০১৭)।  ছবি: সিং পাও, হংকং ফ্রি প্রেসের মাধ্যমে পাওয়া।

এই পোস্টটি লিখেছেন এলি এনজি যা মূলত: ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ তারিখে হংকং ফ্রি প্রেসে প্রকাশিত হয়েছিল। নিচের সংস্করণটি একটি অংশীদারিত্ব চুক্তির অধীনে গ্লোবাল ভয়েসেসে প্রকাশিত।

বেইজিংপন্থী দৈনিক সিং পাও পত্রিকা বলেছে হংকং শহরে বেইজিং-এর অঙ্গ প্রতিষ্ঠান চীনের ৩ নং ক্ষমতাধর কর্মকর্তা ঝাং দেজিয়াং, হংকং-এর প্রধান নির্বাহী লেউং চুন-ইয়াং এবং চীনের লিয়াজোঁ অফিসকে নিয়ে অসংখ্য সমালোচনামূলক গল্প প্রকাশ করার পর থেকে তাদের কর্মীদেরকে লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত করা হচ্ছে।

চীনা ভাষার পত্রিকাটি জানায় সম্প্রতি তার কর্মীদের বিরুদ্ধে হুমকি তীব্রতর হয়েছে এবং তার কর্মচারীরা এক সপ্তাহের মধ্যে চারবার চাওয়া পুলিশী সহায়তা চেয়েছে। সর্বশেষ ২৬ ফেব্রুয়ারি তারিখ ভোররাতে সিং পাও-এর একজন জ্যেষ্ঠ সম্পাদকের অ্যাপার্টমেন্টের দরজা লাল রং দিয়ে মাখিয়ে দেয়ার পর অভিযোগটি পুলিশের কাছে দায়ের করা হয়েছে।

সিং পাও অনুসারে জ্যেষ্ঠ সম্পাদককে  পুলিশ কর্মকর্তাদের সুরক্ষা নিয়ে বাসায় ফেরার পর তারা তার ঘরের দরজায় লাল রং মাখানো দেখতে পান, যেটাকে প্রায়ই একটি প্রতীকী সতর্কবাণী হিসাবে ব্যবহার করা হয়ে থাকে। এছাড়াও বাড়িটির দেয়ালে ঐ সম্পাদকের ছবি এবং সিং পাও-এর পরিচালক গু ঝুহেং-এর পোস্টার লাগানো ছিল।

পত্রিকাটির সন্দেহ এই কর্মটি সংঘটনের জন্যে স্থানীয় ত্রয়ী (সংগঠিত অপরাধী গোষ্ঠী)-এর সদস্যদের ভাড়া করা হয়েছে। এটি বেআইনী কর্মকাণ্ডগুলোর “তীব্র নিন্দা” জ্ঞাপন করে অপরাধীদের গ্রেপ্তার করার জন্যে পুলিশের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে।

সিং পাও বলেছে হুমকিগুলো সম্ভবত: ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ঝাং দেজিয়াং, লেউং চুন-ইং এবং লিয়াজোঁ অফিস সংশ্লিষ্ট রাজনৈতিক সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে এর বেনামী আক্রমণ–এর জন্যে পরিচিত সংবাদপত্রটিকে চুপ করিয়ে দেয়ার জন্যে করা হয়েছে।

হংকং সাংবাদিক সমিতি ২৬ ফেব্রুয়ারি তারিখে একটি বিবৃতিতে পত্রিকাটির বিরুদ্ধে তাদের “ক্রমবর্ধমান সহিংসতা ও হুমকির তীব্র নিন্দা” জানানোর কথা বলেছে:

এক সপ্তাহের বেশি সময় ধরে চলা সন্ত্রাসের প্রচারটি আসলে পত্রিকাটিকে নীরব করিয়ে দেয়ারই একটি ভয়ানক প্রচেষ্টা।

এটা হংকং-এর আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির পাশাপাশি মৌলিক আইনে সুরক্ষিত বাক-স্বাধীনতার জন্যেও সরাসরি একটি চ্যালেঞ্জ।

সমিতিটি সিং পাও-এর কর্মীদের সুরক্ষার জন্যে নিরাপত্তা প্রচেষ্টা প্রস্তুত ও গ্রেপ্তার প্রক্রিয়া চালানোর জন্যে কর্তৃপক্ষের প্রতি আহবান জানিয়েছে।

পুলিশের একজন মুখপাত্র বলেন তাদের বাহিনী ঘটনাটি সম্পর্কে “খুবই উদ্বিগ্ন”। এটি বলেছে কাউলুনের পূর্বাঞ্চলীয় অপরাধ ইউনিট ঘটনাটির বিষয়াদি পর্যবেক্ষণ করছে এবং প্রাসঙ্গিক ব্যক্তিদের সুরক্ষা প্রদান করবে।

ওঁত পাতা এবং সাইবার আক্রমণ

গত সপ্তাহে পত্রিকাটি একটি জরুরী বিবৃতি জারি করে  বলেছে যে কিছু লোক তাদের ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তাদেরকে হুমকি দিয়ে  তাদের ঘর বাড়ির বাইরে প্রচারপত্র  পোস্ট করেছে। এটা দাবি করেছে লিফলেট প্রচারপত্র গুলোতে দেয়া  পরিচালকদের ছবিগুলো সম্ভবতঃ ‘স্বদেশে প্রত্যাবর্তন পারমিট – হংকংযের অধিবাসীদের চীনের মূল ভূখন্ডে প্রবেশের জন্যে চীনা কর্তৃপক্ষের ইস্যুকৃত ভ্রমণ নথি – থেকে নেওয়া হয়েছে।

এছাড়াও পত্রিকাটি দাবি করেছে যে ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝি থেকেই “মূল ভূখণ্ডের অধিবাসীদের মত চেহারার অনেকগুলো সন্দেহজনক লোক” কে তাদের অফিসের বাইরে ঘোরাফেরা  এবং এর ব্যবস্থাপকদের অনুসরণ করতে দেখা গিয়েছে।

এটা আরো দাবি করেছে যে ১৮ এবং ১৯ ফেব্রুয়ারি তারিখে তাদের ওয়েবসাইট দুইবার সাইবার আক্রমণের শিকার হয়েছে।

পত্রিকাটি সন্দেহ করছে যে হুমকিগুলো রাজনৈতিকভাবে উদ্দেশ্যপ্রণোদিত এবং “প্রধান নির্বাহী নির্বাচনের ফলাফল ঘুরিয়ে দেয়ার উদ্দেশ্যে চালিত।” হুমকিগুলো “ভিন্নমত দমনের লক্ষ্যে” করা হয়েছে বলে দাবি করে এটি হামলাগুলোর পিছনে লেউং এবং চীনা লিয়াজোঁ অফিসের জড়িত থাকার অভিযোগ করেছে।

গত মাসে সিং পাও-এর প্রতিবেদকদের প্রথমবারের মতো লিয়াজোঁ অফিস আয়োজিত চান্দ্র নববর্ষের নৈশভোজে প্রবেশ করতে দেয়া হয়নি। পত্রিকাটি জানিয়েছে একজন অভ্যর্থনাকারী তাদের প্রতিবেদকদের বলেছে: “আপনারা আমাদের অনুষ্ঠানের প্রতিবেদন করার জন্যে করতে স্বাগত নন।”

গত আগস্ট মাস থেকে সিং পাও বেনামী বর্ণনাকারীদের মাধ্যমে ঝাং লেউং এবং লিয়াজোঁ অফিসের বিরুদ্ধে আক্রমণ শানিয়ে যাচ্ছে। হংকংয়ের “দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তাদের” ক্ষমতা কেড়ে নেওয়া হবে বলে এটা দাবি করেছে।

তাছাড়াও প্রধান নির্বাহী আর দ্বিতীয় মেয়াদ চাইবেন না সেটা তিনি নিজে ঘোষণা করার অনেকদিন আগেই পত্রিকাটি বলে দিয়েছে যে লেউংকে পুণঃনির্বাচন চাওয়ার সুযোগ দেয়া হবে না

এই হুমকিগুলো চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং যে কমিউনিস্ট পার্টির ভেতরের একটি শক্তিশালী অংশকে নির্মূল করার প্রস্তুতি নিয়েছেন এবং হংকংযের বেইজিংপন্থী শিবির ভেঙ্গে যাওয়ার অনুমান-এর দিকে ঠেলে দিয়েছে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .