বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

জাপানের লাভ হোটেলের অদ্ভুত সব নামের তালিকা

The spires of the Espo World (Love) Hotel (<a href="https://www.google.com/maps/contrib/117513610578361604065/place/ChIJlayQ3D4ZTjURuz3nbBeAUxc/@33.5544431,133.5385559,3a,75y,90t/data=!3m7!1e2!3m5!1s-bW31dsElJWA%2FV3n0EDbE1MI%2FAAAAAAABjxU%2FBLsus5S4x2U0MZ4p2aIkqgNVGvEMM0OIwCJkC!2e4!6s%2F%2Flh5.googleusercontent.com%2F-bW31dsElJWA%2FV3n0EDbE1MI%2FAAAAAAABjxU%2FBLsus5S4x2U0MZ4p2aIkqgNVGvEMM0OIwCJkC%2Fw203-h100-p-k-no%2F!7i4695!8i3129!4m6!1m5!8m4!1e2!2s117513610578361604065!3m1!1e2" target="_blank">エスポワールホテルベル</a>) at dawn, across the river from historic Tojinmachi in Kochi, Japan. Photo by Nevin Thompson.

পড়ন্ত বেলায় জাপানের কোচির তোজিনমাচির একটি লাভ হোটেলের ছাদের অংশবিশেষ দেখা যাচ্ছে। ছবি তুলেছেন নেভিন থম্পসন।

সম্প্রতি জাপানে অদ্ভুত নামের লাভ হোটেল বা ভালোবাসার হোটেলের একটি তালিকা করা হয়েছে। তালিকায় কে প্রথম হয়েছে, জানতে চান? ব্যানানা অ্যান্ড ডোনাট।

“Banana & Donut” is the perfect name for a love hotel.

ব্যানানা অ্যান্ড ডোনাট – ভালবাসার হোটেলের জন্য চমৎকার নাম।

২০১৩ সালে জাপানের পশ্চিমাঞ্চলের অদ্ভুত ১০ লাভ হোটেলের তালিকায় শুধুমাত্র ব্যানানা অ্যান্ড ডোনাটের নামটাই ছিল। এ ধরনের হোটেলে দর্শনার্থীরা এক ঘণ্টার জন্য থাকতে পারেন। আবার সারারাতও থাকতে পারেন। গোপনে একান্ত যৌন মিলনের জন্য সাধারণত এই লাভ হোটেলগুলো ব্যবহৃত হয়। তবে কিছু কিছু পর্যটক জাপানের ঘুরতে এসে দেখতে পান, প্রথাগত হোটেলগুলোর চেয়ে এই লাভ হোটেলগুলো বেশ সাশ্রয়ী বিকল্প

জাপানের বড় শহরগুলোর বাইরে অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের মতোই ব্যানানা অ্যান্ড ডোনাট শহরের উপকণ্ঠে রাস্তার পাশে অবস্থিত। হোটেলটির ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, প্রাইভেট রুম দেয়ার পাশাপাশি র‍্যাফেল ড্র’র মাধ্যমে ঘরে ব্যবহৃত দরকারি বিভিন্ন জিনিস, রুম সার্ভিসের ব্যবস্থা রয়েছে। তাছাড়া নিয়মিত গ্রাহকদের জন্য ডিসকাউন্টও আছে। এছাড়াও আছে যৌন সামগ্রীর দোকান। এখান থেকে প্রাপ্তবয়স্কদের যৌনতা সংক্রান্ত সামগ্রী, যৌনতা বিষয়ক বইপত্র, ম্যাগাজিন কেনা যাবে।

লাভ হোটেলগুলো প্রতিঘণ্টার জন্য ভাড়া নেয়ার পিছনে নানা কারণ রয়েছে। যেসব অতিথিদের বাড়িতে নেয়া যায় না, তাদের হোটেলে নিয়ে এসে ডেটিং করা বেশ নিরাপদ। তাছাড়া দেশটির বেশিরভাগ বাড়িতে ইনসুলেশন (তাপ রোধক) অথবা কেন্দ্রীয় তাপ প্রদান ব্যবস্থার অভাব রয়েছে। তাই শীতের সময় এই হোটেলের রুম ভাড়া নিয়ে নিজেদের উষ্ণ করে নিতে পারেন। তাছাড়া গাড়ির পার্কিংয়ের নিরাপদ জায়গা থাকায় অবৈধ মিলনের স্থান হিসেবেও অনেকেই এই হোটেলগুলো বেছে নেন। কারণ, গাড়িগুলো লোকচক্ষুর আড়ালে থাকায় তাদের পরিচয় প্রকাশ পাওয়ার সম্ভাবনা থাকে না।

সবগুলো লাভ হোটেলই একই ধরনের সেবা প্রদান করে থাকে। তাদের গ্রাহকরাও একই শ্রেণির। সবাই যেন মনে রাখতে পারে, সেজন্য এমন ধরনের নাম বেছে নেয়। এটা তাদের ব্যবসা সম্প্রসারণেও কাজে লাগে।

২০১৬ সালের ডিসেম্বর মাসে রিসার্চ প্লাসকে সাথে নিয়ে গো র্যা ঙ্কিং ৫০০ জন জাপানি লোকের ওপরে একটি মতামত জরিপ পরিচালনা করে। সেখানে দেশটির অদ্ভুত সব নামের লাভ হোটেলের নাম উঠে আসে:

Actual names of love hotels:

1. Banana & Donut (バナナとドーナツ)
2. ‘As I was saying…’ (と、いうわけで)
3. It's a Hotel, You Know… (ホテルだぞぉー)
4. The Raging Racoon's Enormous Sack (暴れ狸の鬼袋)
5. Study Hall (べんきょう部屋)
6. The 101st Marriage Proposal (101回目のプロポーズ)
7. Oi! (オラオラ)
8. Koshien Jr.甲子園ジュニア
9. North Africa (北アフリカ)
9. Take Me With You… Please? (つれてって~)
11. A Ponytail, Blowing in the Wind (ポニーテールは風にゆれて)
12. Nonchalance (さりげなく)

লাভ হোটেলের আসল নামসমূহ:
১. ব্যানানা অ্যান্ড ডোনাট (কলা এবং ডোনাট)
২. অ্যাজ আই ওয়াজ সেয়িং (আমি যা বলছিলাম)
৩. ইট’স অ্যা হোটেল, ইউ নো (এটা একটা হোটেল মাত্র)
৪. দ্যা রেইজিং র‍্যাকুন’স ইনরমাস স্যাক (রাগি ভোঁদরের বিশাল অণ্ডকোষ)
৫. স্টাডি হল (পড়াশোনার জায়গা)
৬. দ্য ১০১তম ম্যারিজ প্রোপোজাল (১০১তম বিবাহের প্রস্তাব)
৭. ওই!
৮. কোশিয়েন
৯. নর্থ আফ্রিকা
১০. টেক মি উইথ ইউ… প্লিজ? (আমাকে সাথে নিয়ে যাও.. যাবে?)
১১. অ্যা পনিটেইল, ব্লোয়িং ইন দ্য উইন্ড (একটি বেণী, বাতাসে উড়ছে)
১২. ননশ্যালেন্স (ঔদাসীন্য)

বেশিরভাগ হোটেলের নাম অদ্ভুত, এবং এদের কোনো মানেও নেই। কিছু কিছুর অবশ্য একটু হলেও সংযোগ খুঁজে পাওয়া যায়। যেমন দ্য ১০১তম ম্যারিজ প্রোপোজাল নামের হোটেলের কথাই ধরুন। এটি ১৯৯১ সালে প্রচারিত জাপানের একটি টেলিভিশন সিরিজের নাম থেকে নেয়া। ওই সময়ে জাপানের রিয়েল এস্টেট এবং শেয়ার মার্কেটের শেয়ারের দাম অনেক বেড়ে গিয়েছিল।

দ্য ১০১তম ম্যারিজ প্রোপাজাল হোটেলের অবস্থান পর্যটন কেন্ত্র হিসেবে পরিচিত জাপানের পশ্চিমাঞ্চলের কুরাশিকি শহরে। গুগল স্ট্রিট ভিউ ইমেজের মাধ্যমে দেখানো হয়েছে অতিথিরা হোটেলে ঢোকার সময়ে কী ধরনের গোপনীয়তা পাবেন। হোটেলে ডেট করার জন্য কী ধরনের পরিবেশ রয়েছে, সেটাও দেখনো হয়েছে।

গো র‍্যাঙ্কিং জাপানের একটি স্বল্প পরিচিত সার্চ ইঞ্জিন এবং ওয়েব পোর্টাল। তবে এটি জাপানের সবচে’ বড় অভ্যন্তরীণ তালিকার সাইট। তারা ৫০ হাজারের বেশি মতামত জরিপ প্রকাশ করেছে। প্রতিষ্ঠানটি সাধারণত ইন্টারনেট সার্ভের মাধ্যমে তথ্য সংগ্রহ করে থাকে। তাদের জরিপের ফলাফল নিয়ে অন্যান্য সংবাদপত্রগুলো সংবাদ প্রতিবেদন প্রকাশ করে থাকে। হোয়াট জাপান থিঙ্ক নামে জাপানের ইংরেজি ভাষায় লিখিত ব্লগ সাইটটি তাদের করা বিভিন্ন বিষয়ের ওপর জরিপের ফলাফল অনুবাদ করে প্রকাশ করেছে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .