বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

#সৌদী তারবার্তাগুলোতে দেখা যায় যে ২০১১ সালের বাহরাইন বিদ্রোহ নিয়ে গণমাধ্যমে প্রচারণার বিষয়ে সৌদী আরব চিন্তিত

Bahraini anti-government protesters protesting and camping at Lulu roundabout in the middle of Manama, the country's capital, calling for changes to the ruling regime. Manama, Bahrain. 25/02/2011. Photo by HI D. Copyright Demotix

বাহরাইনীয় সরকার বিরোধী বিক্ষোভকারী দেশটির রাজধানী মানামার কেন্দ্রে লুলু (মুক্তা) গোলচত্বরে বিক্ষোভ ও শিবির স্থাপন করে রাজনৈতিক সংস্কারের দাবী জানাচ্ছে। মানামা, বাহরাইন। ২০/০২/২০১১। এইচআইডি এর সৌজন্যে ছবি। স্বত্ব ডেমোটিক্স।

সৌদী তারবার্তা শীর্ষক ফাঁস হয়ে যাওয়া ৫ লাখ দলিলে নজর দিলে ২০১১ সালের বাহরাইনীয় বিদ্রোহের উপর গণমাধ্যমগুলোতে প্রকাশিত সংবাদ নিয়ে সৌদী আরবের যে আচ্ছন্নতা এবং রাজনৈতিক প্রচারণার রূপায়ণ করতে তারা যে ভূমিকা পালন করেছে তা দেখা যাবে।

প্রতিবেশী রাজ্যগুলোর মধ্যে যে একটি নিবিড় সম্পর্ক রয়েছে তা কোন রাষ্ট্রীয় গোপনীয়তা নয়। বাহরাইনের উপর দিয়ে বয়ে যাওয়া, গণতান্ত্রিক সংস্কার এবং আরও স্বাধীনতা চেয়ে প্রতিবাদকারীদের আহ্বানযুক্ত সরকার-বিরোধী আন্দোলন দমন করার জন্য সৌদী সরকার উপদ্বীপ রক্ষা বাহিনী পাঠিয়েছিল।

গোপনীয়তা ফাঁস করে এমন সাইট উইকিলিকস্‌-এর সন্ধান করুন ট্যাব-এ ‘বাহরাইন’ শব্দটি প্রবেশ করানো হলে এখন পর্যন্ত ১৪৫টি ইংরেজী এবং ৭৯০টি আরবী দলিল উপস্থাপিত হয়।

malarab

সৌদী পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের টেলিগ্রাম যাতে দেখা যাচ্ছে বাহরাইনে আল আরাবীয়া চ্যানেল-এর সংবাদদাতা বাহরাইনের পরিস্থিতির বিষয়ে বাহরাইনীয় সরকারী কর্মকর্তাদের সাথে তার সম্পাদিত সাক্ষাৎকারগুলো সম্পর্কে সৌদী সরকারী কর্মকর্তাদেরকে হালনাগাদ তথ্য প্রদান করছেন।

সৌদী পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কর্তৃক জারি করা একটি টেলিগ্রামে দেখা যাচ্ছে যে বাহরাইনে অবস্থিত আল আরাবিয়া চ্যানেলের সংবাদদাতা মোহাম্মদ আল-আরব বাহরাইনের পরিস্থিতি নিয়ে সরকারী কর্মকর্তাদের সাথে করা সাক্ষাৎকারের বিষয়ে অবগত করানোর জন্য মন্ত্রণালয়ের সাথে যোগাযোগ রেখেছে।

তিনি পাকিস্তানের রাষ্ট্রপতির একটি সাক্ষাৎকার গ্রহণ করেন, যেখানে রাষ্ট্রপতী বাহরাইনের পরিস্থিতি আলোচনা করেন এবং বাহরাইনের বিদ্রোহে উপদ্বীপ সহযোগিতা পরিষদ-এর (জিসিসি) অবস্থানকে সমর্থন করায় তার দেশের সহযোগিতার বিষয়ে জোর দেন, এবং সে বিষয়ে তিনি সৌদী বাদশার মতোই উদ্বিঘ্ন তা উল্লেখ করেন। পাকিস্তানের রাষ্ট্রপতি কোন অবস্থানের বিষয় উল্লেখ করেছেন তা এই দলিলে স্পষ্ট নয়।

অন্য আর একটি তারবার্তা-এ লন্ডনে সৌদী রাষ্ট্রদূত সৌদী সরকারের কাছে প্রতিবেদন পাঠিয়েছে যে বাহরাইনের বিরোধী চ্যানেল লুয়া লুয়া টিভি অর্থনৈতিক সমস্যায় ভোগার পর এখন যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য সরকারের তহবিলে পরিচালিত হচ্ছে।

উম আহমেদ এর একটি ছবি টুইট করেছে:

বাহরাইনের বাদশাহ্‌-এর বিরুদ্ধে কোন সমালোচনা করা হবে না এই শর্তে লুয়ালুয়া টিভিকে তহবিল প্রদান করা হয়েছে

এই তারবার্তায় আরও বলা হয়েছে যে তহবিলের শর্ত ছিল যে বাদশাহ্‌র কাকা প্রধানমন্ত্রী খালিফা বিন সালমান আল খালিফাকে সমালোচনা করার জন্য বাদশাহ্‌ হামাদ-এর উপর চাপ প্রদান করা হবে। বাহরাইনের শাসকদের প্রাথমিক মিত্র রাষ্ট্র হলো যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য, এবং তারা সেখানকার বিরোধী দলীয়দের সাথে দ্বিমুখী ভূমিকা পালন করলো। বাহরাইন আমেরিকার নৌঘাঁটির ধারক ও ভবিষ্যতে যুক্তরাজ্যের নৌঘাঁটির ধারক হিসেবে বাদশাহ্‌কে অপসরণ করা এই দু'দেশের কারোরই উপকারে আসবে না। যাইহোক, আন্তর্জাতিক অঙ্গনে তাদের গণতান্ত্রিক ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন না করার জন্য, প্রধানমন্ত্রীর উপর সমালোচনা স্থানান্তর করা পশ্চিমাদের যে সত্যিকার গণতন্ত্র এবং মুক্তির প্রতি বিশ্বাস আছে নিদেনপক্ষে তার প্রতিফলন ঘটায়।  

২০১২ সালের জুনের ১ তারিখে প্রাক্তন সৌদী যোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রী মোহামেদ জামীল মুল্লা স্বাক্ষরিত ‘গোপনীয় ও জরুরী’ মোড়ক লাগানো অন্য আর একটি প্রতিবেদন-এ দেখা যায় যে সৌদী তথ্য মন্ত্রী ইরানের রাষ্ট্রীয়-মালিকানাধীন টিভি চ্যানেল আল-আলম সম্পর্কে আলোচনা করার জন্য বাহরাইনের তথ্য সংক্রান্ত পরিচালকের সাথে একটি সভায় মিলিত হন। বাহরাইনের প্রতিনিধি সেই সভাতে উল্লেখ করেছেন যে তিনি আরব উপগ্রহ যোগাযোগ সংস্থা (আরবস্যাট)-এর সাধারণ সম্মেলনে ইরান-ভিত্তিক ঐ চ্যানেলের সম্প্রচার বন্ধ করার জন্য অনুরোধ করে একটি স্মারক উপস্থাপন করবেন।

Arabsat

‘গোপনীয় ও জরুরী’ মোড়ক লাগানো একটি প্রতিবেদন-এ দেখা যায় যে সৌদী তথ্য মন্ত্রী ইরানের রাষ্ট্রীয়-মালিকানাধীন টিভি চ্যানেল আল-আলম সম্পর্কে আলোচনা করার জন্য বাহরাইনের তথ্য সংক্রান্ত পরিচালকের সাথে একটি সভায় মিলিত হন।

সৌদী মন্ত্রী লিখেছেন যে ২৬শে মে ২০১২ সালে বৈরুতে অনুষ্ঠিত সভাটিতে তিনি অংশগ্রহণ করেছেন, এবং জানিয়েছেন যে সৌদী আরবসহ অন্যান্য সদস্য রাষ্ট্রসমূহ বাহরাইনের এই অনুরোধের সমর্থন করেছে। সৌদী আরবের রিয়াদে প্রধান কার্যালয় থাকা আরবস্যাট হলো আরব বিশ্বে নের্তৃত্ব স্থানীয় যোগাযোগ উপগ্রহ পরিচালনাকারী। অন্যদিকে বাহরাইনে সরকারের বিরুদ্ধে বিরোধীদেরকে সহায়তা করতে তাদের প্রচারণাসমূহকে নিবেদন করা আল-আলম এর বিরুদ্ধে সরকারের দাবী যে তারা অসন্তোষ উসকে দিচ্ছে এবং সাম্প্রদায়িক বিভেদ সৃষ্টিতে ভূমিকা রাখছে।

দলিলটিতে আরও বলা আছে যে বাহরাইন আরবস্যাটের নির্বাহী পরিষদের কাছে আরও অনুরোধ করেছে যেন সকল চ্যানেল এবং তাদের বিষয়বস্তুগুলো পরীবিক্ষণ করতে তারা আরও বেশী সক্রিয় ভূমিকা পালন করে।

কিন্তু পরিশেষে, বাহরাইনের অনুরোধে কোন সাড়া প্রদান করা হয় নি। যে দিন সাধারণ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছিল সেই দিন মধ্যপ্রাচ্য অনলাইন-এ একটি প্রবন্ধ প্রকাশিত হয় যাতে বলা হয় যে এই সরকারের বিরুদ্ধে ইরানের গণমাধ্যমগুলোর ‘শত্রুতাপূর্ণ’ প্রচারণার বিষয়ে সংস্থাটির নিষ্ক্রিয়তাকে বর্জন করার একটি পদক্ষেপ হিসেবে জুনের ১লা তারিখ থেকে শুরু করে বাহরাইন তাদের চ্যানেলসমূহ আরবস্যাট-এ সম্প্রচার করা বন্ধ করে দেবে।

ওয়াশিংটন ডিসি ভিত্তিক রেডিও সেওয়া-এর একজন সংবাদিক জাইদ বেঞ্জামিন সৌদী সাংস্কৃতিক ও তথ্য মন্ত্রী কর্তৃক লিখিত ও স্বাক্ষরিত একটি দু'পাতার চিঠি টুইট করেছেন, যার মধ্যে তিনি উল্লেখ করেছেন যে বাহরাইন এখন বাহরাইনীয় এবং সৌদী সরকারের গণমাধ্যমের সমালোচনা করার কেন্দ্রে পরিণত হয়েছে।

সৌদী আরবের উইকিলিকস্‌: বাহরাইন রিয়াদের গণমাধ্যম অপব্যবহারের ধারক হয়ে উঠলো : তথ্য মন্ত্রণালয় কার্যালয়

বাহরাইনে রয়টারের একজন সংবাদদাতা এন্ড্রু হামোন্ড-এর কথা বিশেষভাবে উল্লেখ করা হয়েছে পূর্বে যাকে তার রিয়াদে অবস্থানকালীন পক্ষপাতদুষ্ট প্রবন্ধ লেখার দায়ে দেশটি থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে বলে সৌদী সরকার দাবী করেছে। মন্ত্রী আরও বলেন যে হামোন্ড দুই সরকারের উপরই তার আক্রমণ অব্যহত রাখার জন্য এখন বাহরাইনে স্থানান্তরিত হয়েছে, যা এখন আর শুধুমাত্র প্রতিবেদন প্রকাশ করার মধ্যে সীমাবদ্ধ নেই বরং সে ‘অপমানকর বাক্য’ প্রচার করার জন্য তার ব্যক্তিগত টুইটার হিসেবটিকে ব্যবহার করছে।

সৌদী বাদশাহ্‌কে সম্মোধন করে লেখা একটি চিঠিতে, মন্ত্রী এই বিদ্রোহের উপর বিদেশী গণমাধ্যমগুলোর প্রচারণা ঠেকাতে যৌথ গণমাধ্যম নীতি ও কৌশল আলোচনা করার জন্য বাহরাইনী তথ্য সংক্রান্ত পরিচারক ফাওয়াজ আল-খালিফার সাথে সাক্ষাৎ করার অনুমতি চান। 

সৌদী আরব এখানেই থামে নি, কিন্তু তারা উপসাগরীয় রাষ্ট্র বিশেষ করে বাহরাইন এবং কুয়েত, সেই সাথে সাথে ইরাকের বিষয়ে আঞ্চলিক প্রতিদ্বন্দী ইরানের হস্তক্ষেপকে গুরুত্ব দেয়া সংবাদগুলো প্রচার করার একটি কৌশলও গ্রহণ করেছে। এটি অন্য আর একটি দলিলে উপস্থাপিত হয়েছে, যেখানে বলা হয়েছে বিশেষভাবে সালাফীয় ইসলামী আন্দোলন সমর্থন করে এমন ধর্মভিত্তিক চ্যানেলগুলোর সুযোগ গ্রহণ করে ও তাদেরকে সহায়তা করে ইরানের গণমাধ্যমের উপর আলোকপাত করার প্রয়োজনীয়তা রয়েছে। তারা ইরানের অভ্যন্তরে এই ধরনের বার্তা পৌঁছে দিতে ধর্মপ্রচারকদেরকে এই দেশটিতে যাওয়াও উৎসাহিত করেছে।

salafist

ফাঁস হয়ে যাওয়া একটি দলিল যাতে ধর্মভিত্তিক চ্যানেলগুলোর সুযোগ নিয়ে ও তাদেরকে সহায়তা করে ইরানীয় গণমাধ্যমগুলোর সাথে লড়াই করায় সৌদী আরবের আকাঙ্খার বিষয়টি দেখা যাচ্ছে।

গ্লোবাল ভয়েসেস ফাঁস হয়ে যাওয়া তথ্যভাণ্ডার থেকে আরও দলিল ঘেটে বার করবে তাই আমাদের সাথেই থাকুন। বাহরাইনের উপর নির্দিষ্ট হালনাগাদ তথ্য এবং সৌদী তারবার্তার উপর সংবাদের জন্য আমাদের চেকডেস্ক-এর প্রবন্ধটি দেখুন ‘#SaudiCables: Wikileaks Publishes Secret Documents on Bahraini Matters।’ এছাড়াও Checkdesk Global Voices এ আমাদের প্রচারণাগুলো দেখুন, যেখানে আমরা সৌদী তারবার্তার প্রতি নাগরিক মাধ্যমগুলোর প্রতিক্রিয়া আমরা অনুসরণ করছি।

আমাদের বিশেষ প্রচারণাগুলো পড়ুন: WikiLeaks Reveals the #SaudiCables

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .