বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

রাশিয়ার নতুন “বিস্মৃত হওয়ার অধিকার” আইনের সাথে ইউরোপের সিদ্ধান্তের তুলনামূলক চিত্র

যেহেতু সংসদের নিম্নকক্ষ আইনটির চূড়ান্ত খসড়া পাস করেছে, তাই রাশিয়া তাঁর নিজস্ব “বিস্মৃত হওয়ার অধিকার” প্রবর্তনের দিকে আজ একটি বড় ধরনের পদক্ষেপ নিয়েছে। উল্লেখ্য এ আইনে যে কোন ব্যক্তি তাদের সম্পর্কে নির্দিষ্ট ধরণের কিছু তথ্যের লিঙ্কগুলো মুছে দিতে ইন্টারনেট সার্চ ইঞ্জিনের উপর জোর খাটাতে পারবেন। ফেডারেশন কাউন্সিলে বিলটি পাস হওয়ার পর প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের কাছে চলে গেছে। আশা করা হচ্ছে, তিনি এতে অনুমোদন দিবেন।

ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের কোর্ট অব জাস্টিজ ২০১৪ সালের মে মাসে এই সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছে যে প্রত্যেক ব্যক্তির তাঁর নিজের সম্পর্কে খুঁজে পাওয়া নির্দিষ্ট কিছু ফলাফল মুছে ফেলার জন্য গুগলের মতো সার্চ ইঞ্জিনগুলোর কাছে কৈফিয়ত চাওয়ার অধিকার আছে। এই সিদ্ধান্ত নেয়ার পর থেকে গুগল একাই অপসারণের জন্য (২ লক্ষ ৭৯ হাজার অনুরোধের মধ্য থেকে চিহ্নিত করা) ১ মিলিয়নেরও বেশি ইউআরএল যাচাই-বাছাই করেছে, এর মধ্যে শতকরা ৪১ দশমিক ৩ শতাংশ ইউআরএল সরিয়ে ফেলা হয়েছে।

রাশিয়া যদি তাঁর নিজস্ব “বিস্মৃত হওয়ার অধিকার” আইনটি বাস্তবায়ন করে তবে গুগল এবং ইয়ানডেক্স এই দুটি ওয়েবসাইট সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হবে। আইনটি বাস্তবায়ন করতে গেলে কি ধরণের পরিস্থিতি সৃষ্টি হবে তা বুঝতে রুনেট ইকো নতুন এই রাশিয়ান আইন এবং গত বছর ইউরোপিয়ান কোর্টে গৃহীত বৈশিষ্ট্য সূচক সিদ্ধান্তের মাঝে একটি তুলনামূলক প্রতিবেদন উপস্থাপন করেছে।

Image created by Kevin Rothrock.

ছবি কৃতিত্বঃ কেভিন রথরক

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .