বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

উরুগুয়েতে ১১বছরের একটি গর্ভবতী মেয়ে গর্ভপাত করতে অস্বীকৃতি জানায়

১১ বছর বয়েসী গর্ভবর্তী মেয়ে গর্ভপাত করতে অস্বীকৃতি জানিয়ে বিতর্কের সৃষ্টি করলো।

আমরা সম্পতি প্যারাগুয়েতে একটি ১০ বছর বয়েসী গর্ভবতী মেয়ের কথা লিখেছিলাম যাকে তার সৎবাবা ধর্ষণ করেছে বলে অভিযোগ করা হয় এবং যে দেশটির আইনগত সীমাবদ্ধতার জন্য গর্ভপাত ঘটাতে সমর্থ ছিল না। এখন উরুগুয়েতে যেখানে গর্ভাবস্থার প্রথম ১২ সপ্তাহের মধ্যে গর্ভপাত বৈধ সেখানে ১১ বছর রয়েসী গর্ভবতী শিশুর গর্ভপাত না করতে চাওয়াটি দেশকে মর্মাহত করেছে।

এই মেয়েটি যার বুদ্ধি প্রতিবন্ধিতা আছে বলে বলা হচ্ছে তাকে তার সৎবোনের ৪১ বছর বয়েসী পিতামহ ধর্ষণ করেছে। এই লোকটি এখন আটক আছে এবং ধর্ষণের জন্য তার বিচার করা হবে, উরুগুয় কর্মকর্তারা আজঁস ফ্রঁস-প্রেস-কে জানিয়েছে

পারিবারিক সদস্য, ডাক্তার, সামাজিক সংগঠক, এবং গণমাধ্যমগুলো এই মেয়েটিকে গর্ভপাত করার জন্য উৎসাহিত করেছে। তারা এমনকি সরকারকেও চাপ দিয়েছে যাতে তাকে এই প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে নেয়ার চেষ্টা করা হয় ও বাধ্য করা হয়, পানজিয়া টুডে-এর বরাত অনুসারে। এর প্রতিউত্তরটি যদিও তাদের মনোপুত হয় নি:

“There is no risk for the life of the child or baby, so we cannot force her to have an abortion,” the director of INAU, Monica Silva, said.

‘এই শিশুটি বা তার বাচ্চাটির মৃত্যু হবার কোন ঝুঁকি নেই, সুতরাং আমরা তাকে গর্ভপাত করতে বাধ্য করতে পারি না,’ আইএনএইউ-এর পরিচালক মোনিকা সিলভা বলেন।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .