বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ইন্দোনেশিয়ার প্রধান পুলিশ কর্মকর্তা পদে মনোনয়ন প্রাপ্ত ব্যক্তির বিরুদ্ধে সন্দেহ রয়েছে যে সে হয়ত ঘুষ কেলেঙ্কারিতে যুক্ত

Indonesian activists held a rally demanding a 'clean' new national police chief in Jakarta. Photo by Nugroho Budianggoro, Copyright @Demotix (1/18/2015)

নতুন, পরিষ্কার ভাবমূর্তি সম্পন্ন এক পুলিশ প্রধানের দাবীতে ইন্দোনেশিয়ার একটিভিস্টরা জাকার্তায় এক মিছিল করেছে। ছবি নুগোরোহ বুদিয়ানঙ্গগোরোর কপিরাইট @ডেমোটিক্সের (১/১৮/২০১৫)

পুলিশ প্রধানের পদে যে একমাত্র ব্যক্তিকে মনোনয়ন প্রদান করা হয়েছে ইন্দোনেশিয়ার দূর্নীতি দমন বিভাগের সন্দেহ যে সে হয়ত ঘুষ গ্রহণ করেছে, যার ফলে অনেক ইন্দোনেশিয়া নাগরিক দ্রুত রাষ্ট্রপতি জোকো উইদোদোর (জোকোউই) প্রতি আহ্বান জানায় যেন তিনি এই মনোনয়ন বাতিল করে নতুন পরিষ্কার ভাবমূর্তি সম্পন্ন এক পুলিশ প্রধান নিয়োগ প্রদান করেন।

দূর্নীতি নির্মূল কমিটির (কেপিকে) মতে পুলিশের কমিশনার জেনারেল বুদি গুনাওয়ান, দেশটির পুলিশ সদর দপ্তরে কাজ করার সময় তার ব্যাংক অ্যাকাউন্টে বেশ কিছু প্রশ্নবোধক লেনদেন সম্পন্ন হয়েছিল। ইন্দোনেশিয়ার দূর্নীতি পর্যবেক্ষণ (আইসি ডাব্লিউ) সংস্থা এবং ইন্দোনেশিয়ার অর্থনৈতিক লেনদেন বিষয়ক সংবাদ ও বিশ্লেষণ কেন্দ্র (পিপিএটিকে) এই বিষয়টিকে সমর্থন করেছে।

এই বিষয়ে রাষ্ট্রপতির কাছে একটি রিপোর্ট প্রদান করা হয়েছে, কিন্তু সংসদ থেকে গুনাওয়ানের মনোনয়ন প্রত্যাহার করা হয়নি।

জাতীয় পুলিশ কমিশনার (কমপোলনাস) গুনাওয়ান বিষয়ে তথ্য দেরিতে প্রদান করার কারণে কেপিকে এবং পিপিএটিকে নামক সংস্থার বিরুদ্ধে অভিযোগ এনেছে। কিন্তু পিপিএটিকে-এর প্রধান মুহাম্মদ ইউসুফ বলেন যে গত বছরের অক্টোবর মাসে তার প্রতিষ্ঠান এই বিষয়ে আনুষ্ঠানিক পরামর্শ প্রদান করেছিল।

গুনাওয়ান, প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি মেঘবতী সুকার্নোপুত্রীর সহকারী হিসেবে কাজ করেছে, যে মেঘবতী ইন্দোনেশিয়ার ডেমোক্রেটিক পার্টি অফ স্ট্রাগল (পিডিআইপি) নামক দলের নেত্রী, আর এই দলটি রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে জোকোউই-এর প্রার্থীতা সমর্থন করেছিল। তবে অনেক ইন্দোনেশীয় নাগরিক জোকোউইকে স্মরণ করিয়ে দিচ্ছে, যারা তাকে সমর্থন প্রদান করেছে সেই সমস্ত রাজনীতিবিদের কাছে নয়, বরং তার জবাবদিহিতা জনতার কাছে:

Ingat selalu Pak @jokowi_do2 Bpk tdk berhutang budi kpd Megawati atau PDIP, Bpk berhutang budi kpd RAKYAT. #TarikBudi

— Sari Widuri (@sarinafa) January 18, 2015

জনাব জোকো উইদোদো, মেঘবতী অথবা পিডিআইপি-এর কাছে আপনি ঋণী নন, আপনার সকল ঋণ জনতার কাছে।

গুনাওয়ানের প্রার্থীতা প্রত্যাহার করে নেওয়ার আহ্বান জানিয়ে জোকোউইকে লেখা এক দরখাস্তে ইতোমধ্যে ২৭,০০০ জন নাগরিক স্বাক্ষর করেছে:

ইতোমধ্যে ২৭,০০০ নাগরিক এই দরখাস্তে স্বাক্ষর করেছে। এই দরখাস্তের প্রতি সমর্থন প্রদান করুন।

সরকারের সকল বিভাগ থেকে দূর্নীতি দূর করার বিরুদ্ধে লড়াই-এ কেপিকে নামক সংস্থার প্রতি অনেকে তাদের সমর্থন প্রকাশ করেছে:

আমরা কেপিকে-এর সামনে এসে এসে হাজির হয়েছি এই সংস্থার প্রতি সমর্থন প্রকাশ করতে। দুর্নীতিমুক্ত পুলিশ (বিভাগ) আবশ্যই প্রয়োজন।

জোকাউই-এর অবস্থান বিবেচনা করলে, গুনাওয়ানকে তার পুলিশ বাহিনির প্রধান হিসেবে বেছে নেওয়া খানিকটা বিস্ময়কর বটে, যে জোকাউই দেশটির রাজধানী জাকার্তার প্রাক্তন গর্ভনর হিসেবে কাজ করেছেন। সংস্কার-পন্থী এবং নতুন ধারার নেতা হিসেবে তিনি সুপরিচিত। রাষ্ট্রপতি হিসেবে নির্বাচিত হওয়ার পর, তিনি “নয়া সিটা” অথবা নয়টি প্রাথমিক প্রশাসনিক বিষয়সূচি নামক ধারণার সাথে সবার পরিচয় করিয়ে দেন, যার মধ্যে পদ্ধতিগত সংস্কার এবং সকল ধরনের আইন শৃঙ্খলা বাহিনীকে দুর্নীতিমুক্ত করার বিষয়ও অর্ন্তভুক্ত ছিল। দূর্নীতি দমন বিভাগের গুনাওয়ানের এই কলঙ্কের বিষয় তালিকাভুক্ত করার সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে, অনেকে প্রশ্ন করা শুরু করে যে জোকোউই ইতোমধ্যে তার “নয়া সিটার” চিন্তা থেকে সরে এসেছে কিনা:

“নয়া সিটা” লঙ্ঘন করবেন না, বুদি গুনাওয়ানকে না বলুন।

গুনাওয়ান-এর নিয়োগের ক্ষেত্রে যে অস্পষ্টতা, সে বিষয়ে ব্লগার ফেরিজাল রামি তার দৃষ্টিভঙ্গি তুলে ধরছে:

PDIP itu tidak sepenuhnya di bawah Jokowi. PDIP itu di bawah Mega. […] Birokrasi juga „enggan“ dekat dengan Jokowi karena banyak kebijakan Jokowi mengganggu „zona nyaman“ para pejabat birokrat. Di titik ini secara realitas jika Jokowi BERANI menentang maunya Mega dengan menolak BG maka ini „harakiri“ politik! […] kita semua tahu bahwa Mega itu punya jejak rekam buruk tentang BLBI yang saat ini sedang dikotak-katik KPK. Sangat mungkin Mega benar-benar butuh BENTENG yang melindunginya yaitu Kapolri yang siap sikat habis pihak-pihak yang berani otak-atik BLBI. Di titik ini bagi saya, Jokowi cukup cerdas untuk berkelit dalam situasi sulit dengan pilihan-pilihan sulit.

জোকোউই, পিডিআইপি, বা মেঘবতীকে কাউকেই নিয়ন্ত্রণ করে। আমলাতন্ত্র জোকোউয়ইকে তার এই সকল কাজ শেষ করতে দিতে অনিচ্ছুক, কারণ তার অনেক নীতি আমলাতন্ত্রের আরামে এই ধরনের কাজ করাকে হারাম করতে যাচ্ছে। জোকাউই এই অবস্থায় যদি [আর আমরা যা দেখতে পাচ্ছি] যদি বুদি গুনাওয়ানের প্রার্থীতা প্রত্যাহার করে মেঘবতীকে উপেক্ষা করে, তাহলে বিষয়টি তার জন্য হবে এক রাজনৈতিক আত্মহত্যার শামিল। আমরা সকলে জানি যে মেঘবতী বিএলবিআই কেলেঙ্কারিতে জড়িত ছিল, যা এখন কেপিকে-এর সক্রিয় অনুসন্ধানের তালিকায় রয়েছে। মেঘবতীর নিজের জন্য নিজেকে রক্ষা করার বিষয়টি অত্যন্ত জরুরী, আর এই অবস্থায় সকলের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করা জাতীয় পুলিশ প্রধানকে বিএলবিআই-এর ঘটনায় নাক গলাতে হবে। এই ক্ষেত্রে আমি মনে করি জোকোউই এক অজনপ্রিয় সিদ্ধান্ত প্রদানের মাধ্যমে যথেষ্ট বুদ্ধিমত্তার সাথে অসম্ভব এক পরিস্থিতিকে এড়িয়ে সক্ষম হবে।

জোকোউই জনতার এই ক্ষোভের প্রতি সাড়া দিয়েছেন এই ভাবে যে কেপিকে নামক সংস্থা যতক্ষণ পর্যন্ত না এই বিষয়ে তাদের তদন্ত সমাপ্ত করছে, ততক্ষণ পর্যন্ত গুনাওয়ানের নিয়োগ স্থগিত রাখা হবে

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .