বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

জাপানের জনপ্রিয় এক ভিডিও গেম শিশুদের ভুত দেখাচ্ছে

yokai watch

‘ইয়ো-কি ওয়াচ’ অ্যাানিমের স্ক্রিনশট, ইউটিউব-এর লেভেল ৫ চ্যানেল থেকে নেওয়া।

এক বছর আগে যখন এই গেমটি বাজারে ছাড়া হয় তখন থেকে নিন্টেনন্ডো থ্রিডি-এসের মূল ভূমিকা গ্রহণকারী এই ভিডিও গেম ইয়ো-কি ওয়াচ জাপান জুড়ে শিশুদের কল্পনা শক্তিকে আকর্ষণ করেছে। এমনকি এই গেমের দ্বারা অনুপ্রাণিত হয়ে কয়েকজন ভক্ত বাস্তব জগতে ঘটা কোন বাজে অথবা সাধারণ নয় এমন ঘটনার জন্য এর দুষ্ট চরিত্রকে দায়ী করেছে।

মুক্তি পাওয়ার সাথে সাথে এই গেমটি একটি হিট অ্যানিমে সিরিজে পরিণত হয় এবং দৃশ্যত গেমটি এই দ্বীপ রাষ্ট্রের সংস্কৃতি রপ্তানির আরেকটি অন্যতম উপাদানে পরিণত হতে যাচ্ছে। এই গেমসের চরিত্রগুলোকে এখন সকল জায়গায় দেখা যাচ্ছে- অনলাইন মেমে, হ্যালোউইনের কুমড়া এবং ম্যাকডোনাল্ড-এ।

জাপানী সংস্কৃতিতে “ইয়ো কি” মানে হচ্ছে প্রেতাত্মার জগতের এক অতিপ্রাকৃত অধিবাসি, যারা ভুত থেকে আকার পরিবর্তন করা খেঁকশিয়াল পর্যন্ত হতে পারে দি ইয়ো কি ওয়াচ অ্যানিমে হচ্ছে বিভিন্ন ধরনের প্রেতাত্মা সম্বন্ধে জানার সবচেয়ে সেরা মাধ্যম যা জাপানের বিভিন্ন ধরনের আত্মাকে শিকার করে থাকে, আর বিষয়টি কেইটা নামের এক কিশোরের চোখ দিয়ে দেখা। উইকিপিডিয়া অনুসারে:

  এক “ইয়ো কি” কেইটাকে একটি যন্ত্র দেয় যার নাম ‘ইয়ো কি’ দেখার যন্ত্র, এই যন্ত্র ব্যবহার করে কেইটা বিভিন্ন ধরনের ‘ইয়ো কি’ চিহ্নিত করতে এবং দেখতে পারে, যারা একই সাথে মানুষ শিকার করতে এবং তাদের ক্ষতি করতে সক্ষম, কেইটা এবং হুইস্পার সেই সকল ইয়ো কি-এর সাথে বন্ধুত্ব করা শুরু করে, যাদেরকে সে আরো খারাপ ধরনের ‘ইয়ো কির’ সাথে লড়াই-এ ডাক দেয়, আর এই সকল কিছু ঘটে তার নিজের শহরে বসবাসের সময়। এই সব ইয়ো কিরা শহরের বাসিন্দাদের শিকার করে এবং ভয়াবহ বিপদ সৃষ্টি করে।

এই অ্যানিমেতে চিত্তাকর্ষক, আকর্ষণীয় গান রয়েছে যা তাদের নিজেদের পপ-সংস্কৃতির উপাদানে পরিণত হয়েছে:

ইয়ো কি ওয়াচ জাপানে কেন এত জনপ্রিয় তাঁর বেশ কয়েকটি কারণ রয়েছে
লেভেল-৫, যিনি এই উদ্ভাবনী গেমের ডেভলপার, তিনি ইয়ো কি ওয়াচের সৃষ্টিকর্তা, তিনি সৃষ্টিশীল ট্রান্সমিডিয়া ফ্রাঞ্চাইজ তৈরীর জন্য কঠোর পরিশ্রম করেছেন। ভিডিও গেম থেকে শুরু করে অ্যানিমে ও পপ সঙ্গীত ব্যবহার করে বিভিন্ন মিডিয়ার সাথে ইয়ো কি ওয়াচের সম্পৃক্ততার মাধ্যমে, লেভেল ৫ তার পণ্য বিপণনের জন্য বিভিন্ন চ্যানেলে তুলে ধরতে সমর্থ হয়ছে।

সেপ্টেম্বরে, ম্যাকডোনাল্ড হ্যাপি মিলের অংশ হিসেবে ইয়ো কি ওয়াচ–এর চরিত্র ট্রেডিং কার্ড হিসেবে প্রথম বিক্রি শুরু হয়, প্রথম পাঁচ দিনে লক্ষ্যমাত্রার ধারণাকে ছাড়িয়ে ৩০০ গুণ বেশি বিক্রি হয়।

আমি আবাক হয়েছিলাম কেন ম্যাকডোনাল্ড এত জনাকীর্ণ এবং আমি উপলব্ধি করতে পারলাম ঐ সমস্ত ইয়ো কি ট্রেডিং কার্ডের কারণে এটা ঘটেছে।

অনেক টুইটার ব্যবহারকারী ইয়ো কি ওয়াচের জনপ্রিয় সংস্কৃতিতে প্রভাব তৈরীর বিষয়টি খেয়াল করেছেন,:

দৃশ্যত মনে হচ্ছে এমন সংখ্যক শিশুর পরিমাণ বাড়ছে যারা স্বাভাবিক এবং অস্বাভাবিক যে কোন ঘটনার জন্য ভূতকে দায়ী করছে।

এই মুহূর্তে এক মেমে যা বাস্তব জগতের ছোটখাট সমস্যা বা অস্বাভাবিক অভিজ্ঞতার জন্য এই গেমসের অন্যতম এক চরিত্র কোমো সানকে দোষারোপ করছে:

আইসক্রিম ফুরিয়ে গেছে, কিন্তু আমি মনে করি সকলকে ক্ষমা করা যায়- কোমা সান তা খেয়ে ফেলেছে।

অবশ্যই, এই গেমস যখন জনপ্রিয়তার তুঙ্গে তখন হ্যালোউইন-এসেছে। এই অ্যানিমার অন্যতম এক চরিত্র জাবানইয়ান হ্যালোউইনের কুমড়োর জন্য এক জনপ্রিয় ডিজাইনে পরিণত হয়েছে। :

আজ আমরা কুমড়ো দিয়ে জাবানিয়ান বানিয়েছি

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .