বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

জাপানের বিখ্যাত কার্টুন ‘ডোরেমন’ এখন ইংরেজি ভাষাভাষীরাও উপভোগ করতে পারবেন

Photo by Flickr user Héctor García. CC BY-NC-SA 2.0

ছবিটি ফ্লিকার ব্যবহারকারী হেক্টর গার্সিয়া থেকে নেয়া হয়েছে। সিসি বিওয়াই-এনসি-এসএ ২.০।

জাপানের সবচে’ জনপ্রিয় পপ কালচার আইকন হিসেবে পরিচিত ডোরেমনকে নিয়ে বেশ আলোচনার সৃষ্টি হয়েছে। জাপানের অ্যানিমেশন শিল্পের ভক্তরা অনলাইনে এটা নিয়ে আলোচনা করছেন। উল্লেখ্য, ডোরেমন হলো বাইশ শতকের একটি রোবট বিড়াল। ১৯৬৯ সালে চরিত্রটির প্রথম দেখা মেলে। এরপরেই এটি ব্যাপক জনপ্রিয় হয়ে উঠে।

ডোরেমন সিরিজ ইতোমধ্যে ১০০ মিলিয়নের বেশি কপি বিক্রি হয়েছে। মাঙ্গার ইতিহাসে এটিই সবচে’ বেশি বিক্রিত কার্টুন। তাছাড়া ৩৫টি দেশের টিভিতে এটি সম্প্রচারিত হয়েছে। যদিও বেশিরভাগই দক্ষিণপূর্ব এশিয়ার দেশ।

৩৫ বছর ধরে জনপ্রিয় থাকলেও এতোদিন পর্যন্ত এর কোনো অফিসিয়াল ইংরেজি সংস্করণ বের হয়নি। তবে প্রতীক্ষার অবসান ঘটলো ২০১৪ সালের মে মাসে। প্রথমবারের মতো ইংরেজিতে অনুবাদিত হলো মাঙ্গা সিরিজের ১২ হাজারের বেশি পাতা। পরে প্রকাশও পেল তা। সিরিজের ইংরেজি অনুবাদের কিছু নমুনা পড়তে ঢুঁ মারতে পারেন এখানে

একই মাসে আরেকটি ঘটনাও ঘটলো। বিখ্যাত অ্যানিমেশন সিনেমা নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ডিজনি ডোরেমনের ইংরেজি সংস্করণের স্বত্ত্ব কিনে নেয়ার ঘোষণা দেয়। তার পর পরই তারা ডিজনি এক্সডি স্যাটেলাইট চ্যানেলে সপ্তাহের পাঁচদিন এর সম্প্রচার কার্যক্রম শুরু করে।

ডিজনি কিনে নেয়ার পরেই ডোরেমনের অনুরক্ত জাপানি ভক্তরা অনলাইন তুমুল আলোচনা শুরু করেন।

উল্লেখ্য, জাপানে এমন কোনো ব্যক্তি নেই যিনি ডোরেমন পড়েন নি। ডোরেমনের সাথে নবিতা ও তার বন্ধুবান্ধবের রোমাঞ্চকর ঘটনামালার কথা জানেন না। নবিতার বন্ধুদের মধ্যে রয়েছে জিয়ান, সুনিও এবং সিজুকা-চ্যান।

ছবি কৃতজ্ঞতা: ফুজিকো প্রো কোং অ্যান্ড শোগাকুকান ইনকরপোরেশন।

ডোরেমনের ইংরেজি সংস্করণ প্রকাশ হবার পরে একজন মন্তব্যকারী ২চ্যানে (রেডিড-এর মতো) লিখেছেন:

アメリカ遅れすぎ

অবশেষে সেই সময় এসেছে!

ডোরেমনের অনন্য গলার স্বর কীভাবে করা হবে, তা নিয়ে চিন্তিত অন্য একটি ফোরামের কিছু মন্তব্যকারী:

ドラえもんの声はいいね。
日本の声と似てると思う。

ডোরেমনের ইংরেজি কণ্ঠ আমার পছন্দ হয়েছে। আমার কাছে মনে হয়েছে, এটা জাপানি কণ্ঠস্বরের মতোই।

অন্য আরেকজন মন্তব্যকারী তার সাথে একমত হয়েছেন:

ドラえもんの英語版の声は合ってるね。
日本版の声と比べても違和感がまったくない。
成功するといいな。

তারা ডোরেমনের গলার স্বর ঠিকঠাকমতোই ধরতে পেরেছে। এটা মোটেও উদ্ভট লাগছে না। আশা করি ইংরেজি সংস্করণ সফল হবে।

তবে একই ফোরামের কিছু পর্যবেক্ষক অবশ্য আমেরিকান সংস্কৃতির কথা তুলে ধরেছেন। তারা বলছেন, মূল জাপানি সংস্করণের সাথে ডিজনির ইংরেজি সংস্করণের মধ্যে কিছু পার্থক্য রয়েছে:

のび太はノビー ジャイアンはビッグ・ジー ついにドラえもんも全米デビューだって〜 まじびっくり‼︎‼︎‼︎

নবিতা এবং জিয়ানের ডাকনাম দেয়া হয়েছে!!!

ডোরেমনের পশ্চিমা সংবেদনশীলতার বিষয়টি অন্য কয়েকজন পর্যবেক্ষণকারী লক্ষ্য করেছেন:

「健康的な食生活を推進すること」が放送基準の一つとして挙げられている米国の基準に合わせ、ドラえもんがたくさんのどら焼きをほおばるシーンを短縮したり、のび太のおやつをフルーツに変更するなどの修正が加えられる。

আমেরিকার সম্প্রচারমাধ্যমগুলো স্বাস্থ্যকর খাবার-দাবাবের প্রতি উৎসাহ দেয়। কিন্তু ডোরেমন এতো এতো মিষ্টি খাওয়া ছাড়তে পারবে না। তবে ডোরেমনকে এর পরিবর্তে ফলমূল খেতে হবে।

একজন টুইটার ব্যবহারকারী লক্ষ্য করেছেন:

রাতের খাবার টেবিলে চ্যাপস্টিকের পরিবর্তে কাটা চামচ রয়েছে।

ডোরেমনের ইংরেজি সংস্করণে সবচে’ বেশি যে বিষয়টি নজরে এসেছে, সেটি হলো সিজুকা-চ্যানের নাম। সহজ করার জন্য তার নাম বদলে দিয়ে শুধু “সু” রাখা হয়েছে।

তাছাড়া, মূল সিরিজে গোসল করার সময়ও সিজুকাকে নবিতার সাথে কথা বলতে দেখা যায়। নতুন ইংরেজি সংস্করণে এই দৃশ্য নেই। কেটে ফেলে দেয়া হয়েছে:

これも国民性の違いか
事前にアメリカの子どもたちに日本版を視聴させた結果「しずかちゃんの性格を変えた方がいい」という意見が多かったため、入浴が趣味のおしとやかな『しずかちゃん』がボーイッシュな『スー』に生まれ変わるようだ。

এটা কি আরেকটি সাংস্কৃতিক পার্থক্য?

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ছোট ছোট ছেলেমেয়েদের ডোরেমন দেখানোর জন্য ইংরেজি সংস্করণে সিজুকা-চ্যানের চরিত্রে বেশ পরিবর্তন আনা হয়েছে। তাকে এখন “সু” নামে ডাকা হচ্ছে। তাছাড়া তাকে গোসল করতে দেখা যাবে না। এখন সে সম্পূর্ণ অন্যরকম একটি চরিত্র!

ইংরেজি ভাষাভাষী বাইরের মানুষের কাছে ডোরেমন অবশ্য নতুন কিছু নয়। তারা দীর্ঘদিন ধরেই টেলিভিশনের পর্দায় ডোরেমন দেখে আসছে:

ずいぶん前にマレーシアで放送してたのを見たけど
アメリカではまだだったのか

আমরা মালয়েশিয়াতে সেই ছোটবেলা থেকেই ডোরেমন দেখে আসছি। ইংরেজি ভাষাভাষীদের জন্য এতো সময় লাগলো কেন?

ইংরেজি ভাষী দর্শকরা ২০১৪ সালে এসে প্রথম ডোরেমন দেখতে পেলেও অন্যান্য দেশ এবং সংস্কৃতির মানুষের কাছে ডোরেমন মিকি মাউসের মতোই জনপ্রিয়। উদাহরণ হিসেবে বলা যায়, হিন্দি, বাংলা এবং ভিয়েতনামিজ ভাষায় ডোরেমনের অনুবাদ হয়েছে।
আপনার পরিচিত কোনো ভাষায় যদি ডোরেমনের অনুবাদ হয়ে থাকে, তাহলে মন্তব্যের ঘরে আমাদের জানান।

ফুজিকো প্রো কোং অ্যান্ড শোগাকুকান ইনকরপোরেশন

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .