বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

উগান্ডার আদালতে বাতিল হল সমকামী-বিরোধী আইন

Protest against Uganda anti-gay legislation

গত ১০ ডিসেম্বর, ২০১২ সালে উগান্ডার সমকামি বিরোধী আইনের বিরুদ্ধে কারাগারের ইউনিফরম পরিহিত অবস্থায় সক্রিয় কর্মী জন বস্ক (হাতকড়া) এবং বিসি আলিমি (প্ল্যাকার্ড) লন্ডনে বিক্ষোভ করছেন। ছবিঃ রিপোটারস#২০২৯৯। কপিরাইট ডেমোটিক্স।  

উগান্ডার সাংবিধানিক আদালত একটি সমকামী-বিরোধী আইনকে বাতিল করে দিয়েছে। কিছু কিছু মামলার ক্ষেত্রে আইনটিতে সমকামী আচরণের জন্য যাবজ্জীবন কারাদন্ডে দণ্ডিত করার বিধান রাখা হয়েছিল। প্রেসিডেন্ট ওয়েরি কাগুতা মুসেভেনি আইনটিতে স্বাক্ষর করার ছয় মাস পর এটি আদালতে বাতিল করা হল।   

আদালতের জারি করা রুলে আইনটির ভেতরে থাকা অনুচ্ছেদগুলো নির্দেশ করা হয়নি। তবে আইনটির অধীনে থাকা কিছু প্রক্রিয়া সংসদে পাস করা হয়েছে। এর অর্থ হচ্ছে, বিলটি সংসদে পুনরায় পাস করা যাবে। ফলে সমকামিতা উগান্ডাতে অবৈধ থেকে গেল। 

আইনটি উগান্ডাকে দেয়া তহবিলের কিছু অংশ কেটে নিতে ইউরোপ এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে উৎসাহিত করেছে।

আইনটি কয়েকজন উদারপন্থী উগান্ডানকে এ বছরের মার্চ মাসে আইনটির বিরুদ্ধে সাংবিধানিক আদালতে মামলা দায়ের করতে উদ্বুদ্ধ করেছে। তাদের মধ্যে আছেন ফক্স ওদই-ওয়েলোও এর সংসদ সদস্য প্রফেসর জো ওলোকা-ওনিয়াঙ্গো, প্রবীণ সাংবাদিক এ্যান্ড্রু এমওয়েন্ডা, প্রফেসর মোরিস ওগেঙ্গা লাটিগো, ডঃ পল এনসুবুগা সেমুগোমা, এলজিবিটি সক্রিয় কর্মী এবং উগান্ডা সেক্সুয়াল মাইনরিটিজ এর সদস্য জ্যাকেলিন কাশা নবাগেসেরা, জুলিয়ান পেপে ওনজিমা এবং ফ্রাংক মুগিশা

সহকারী প্রধান বিচারপতি স্টিভেন কাভুমার নেতৃত্বে গঠিত একটি প্যানেল গত ১ আগস্ট তারিখে আবেদনকারীদের সাথে একমত হয়েছেন। প্যানেলটি জানিয়েছে, কোন রকম কোরাম গঠন না করেই আইনটি পাস করা হয়েছিল। সুতরাং আইনটি অকার্যকর হয়ে গেছে। বিচারপতি সংসদের স্পিকার রেবেকা কাডাগাকে এই অন্যায় আচরণের জন্য দোষী সাব্যস্ত করেছেন।

এলজিবিটিআই সম্প্রদায়ের সদস্যরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে আদালতের রুল জারি করা নিয়ে উদযাপন করেছেন। সেক্সুয়াল মাইনরিটিজ উগান্ডা’র নির্বাহী পরিচালক এবং এলজিবিটিআই পক্ষের উকিল ডঃ ফ্রাংক মুগিশা আইনটি অকার্যকর করে দেয়ার পরপরই টুইট করেছেনঃ  

আমরা এখনও আনন্দ উদযাপনের মেজাজে আছি। সাংবাদিক এবং সমকামী বিরোধী দলগুলোর বিক্ষোভের ভিড়ের মাঝে আমরা নিরাপদভাবেই পক্ষে বিপক্ষে যুক্তি প্রদর্শন করা শেষ করতে পেরেছি। উগান্ডার সমকামী বিরোধী আইন বাতিল করা হয়েছে।  

@পোনিসিনজুদাহ উগান্ডার এলজিবিটি সম্প্রদায়কে অভিনন্দন জানিয়েছেনঃ 

@ফ্রাংকমুগিশা @জেঙ্গরিমান কে অভিনন্দন! সত্যিই দারুণ! কেউ একজন বলেছেন এ কারণে সম্ভাষণ কার্ড দেয়া উচিৎ। তাই আমি এটি তৈরি করেছি 

@স্যামব্যানজ পরামর্শ দিয়েছেন উগান্ডাতে যারা আইনটির বিরোধী ছিলেন তাদের সবাই এত সহজে জনসম্মুখে উদযাপন করতে পারেন নাঃ 

#এন্টিহোমোসেক্সুয়ালিটিল আদালত বাতিল করে দেয়ার কারণে যারা উদযাপন করছেন ঠিক সেই মুহুর্তে আপনার বাবা যখন টেলিভিশনে আপনাকে তাদের মাঝে উদযাপন করতে দেখেন।  

তবে আইন বাতিল করায় উগান্ডার সকল জনগনই খুশি হননি। আইনটি করতে যারা জোরালো ভূমিকা রেখেছেন তাদের একজন গির্জার যাজক মার্টিন সেমপা। তিনি প্রতিক্রিয়া জানিয়ে টুইট করেছেনঃ 

ইউরো-আমেরিকান অর্থায়নে গঠিত সমকামিতার পক্ষে আদালত রুল জারি করায় অত্যন্ত গভীরভাবে মর্মাহত। আমাদের আফ্রিকান পূর্বপুরুষেরা দুঃখ পেয়েছেন। #বংশধর 

এ্যান্ড্রু কাজিবয়ি আদালতের রুল জারির বিরুদ্ধেঃ 

আগামীকাল শোক দিবস ঘোষণা করা হল। শোকাহত উগান্ডানদেরকে তাদের শোক প্রকাশের জন্য কালো কাপড় পরতে বলা হল। #আহারুলিং  

আদালতের রুল জারি করার বিরুদ্ধে আছেন যারা, তারা এখনও প্রতিশ্রুতিবদ্ধ যে আইনটি পুরোপুরিভাবে পাস না হওয়া পর্যন্ত তারা হাল ছেড়ে দেবেন না। এনদরওয়া ওয়েস্টের সংসদ সদস্য ডেভিড বাহাটি প্রথম সংসদে আইনটি পাস করার সুপারিশ করেছিলেন। তিনি কথা দিয়েছেন যে আইনটিকে তিনি আবার ফিরিয়ে আনবেন।

আফ্রিকার ৩৮ টি দেশে সমকামিতা একটি আইন বিরোধী আচরণ। মৌরিতানিয়া, সুদান এবং উত্তর নাইজেরিয়াতে সমকামিতার শাস্তি হচ্ছে মৃত্যুদণ্ড।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .