বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

আরব বিশ্ব: বিন লাদেনের মৃত্যুকে ঘিরে সংশয় ও তুষ্টি

এই পোস্টটি আমাদের ওসামা বিন লাদেনের মৃত্যু সংক্রান্ত বিশেষ কাভারেজের অংশ

সৌদি আরবে জন্মগ্রহণ করা শীর্ষ সন্ত্রাসী ওসামা বিন লাদেন গতকাল পাকিস্তানের অ্যাবেটাবাদে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সিআইএ-এর এক অভিযানে নিহত হয়েছেন। আরব বিশ্ব থেকে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা এ সংবাদের উপর তাদের মন্তব্য প্রকাশ করেছেন।

৫৪ বছর বয়সী এই আলকায়েদা নেতার মৃত্যুতে টুইটারে সারাদিনই চলে নানান প্রতিক্রিয়া; কেউ কেউ প্রকাশ করেছেন উল্লাস, আবার কেউ কেউ তাকে শহীদের মর্যাদা দিয়ে শোক পালন করছেন।

প্রশ্ন:

এই ঘোষণা জন্ম দিয়েছে নানা প্রশ্নের এবং তার কিছু কিছু এখানে দেয়া হল:

সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে সুলতান আল কাশেমী জানতে চাচ্ছেন:

আমি কৌতূহলী যে আরব ও বিশ্ব নেতারা ওসামা বিন লাদেনকে হত্যার জন্য ওবামাকে শুভেচ্ছা বার্তা পাঠাবে কিনা…

মিশরীয় রানিয়া হাফিজ যোগ করছেন:

তাহলে কি তারা এটা প্রমাণ করতে যাচ্ছে যে তারা তাকে হত্যা করেছে নাকি আমাদের তাদের কথা বিশ্বাস করতে হবে?!!

এনপিআর-এর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম বিশেষজ্ঞ অ্যান্ডি কার্ভিন, যিনি আরব বিপ্লবের সংবাদ নিয়ে সক্রিয়ভাবে টুইট করে যাচ্ছেন একই রকম প্রশ্ন করেছেন:

শুনে অবাক হলাম যে প্রকৃত অভিযান আজই হয়েছে। কিভাবে তারা এত নিশ্চিত হলেন। আঙুলের ছাপ? ফাস্ট ডিএনএ কিট বা এরকম কিছু?

এছাড়া লেবানিজ আনটুন ইসা সংশয় প্রকাশ করেছেন এভাবে:

আমাদের কি এটা ধরে নিতে হবে যে আল-কায়েদা ভাবেনি যে ওসামা বিন লাদেনের আকস্মিক মৃত্যু হতে পারে? তার শূন্যস্থান পূরণের জন্য অসংখ্য অনুসারী রয়েছে। #এখনওশেষহয়নি

প্রত্যাশা

মিশরের মাহমুদ সালেম, যিনি স্যান্ডমান্কি নামেও পরিচিত, টুইট করেছেন:

যদি তারা গতকাল গাদ্দাফিকে আর আজ ওসামা বিন লাদেনকে সরিয়ে ফেলতে পারতো তাহলে সেটা হতো এক ঢিলে দুই পাখি মারার মতো!

এবং সৌদি আরবকে বিদ্রূপ করে বলছেন:

প্রিয় সৌদি, এ অঞ্চল ও আল-কায়েদা নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য আমরা দু:খিত। তোমরা আল-কায়েদাকে ফেরৎ নিয়ে যেতে পারো! #আমরাকতদয়ালু

লিবিয়ান ইবন ওমার আশা করছেন বিন লাদেনের মৃত্যুতে তার দরুণ ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তিদের পরিবার সান্তনা পাবে। তিনি লেখেন:

আশা করি বিন লাদেনের মৃত্যু তার সন্ত্রাসী হামলার দরুণ ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তিদের পরিবারে মানসিক সান্তনা বয়ে আনবে।

এছাড়া ব্রায়ান কনলি, যিনি @BaghdadBrian পরিচয়ে টুইট করেন, লিখেছেন:

এর মানে কি এই যে আমরা সেখান থেকে সৈন্য প্রত্যাহার করে নিব এবং #আফগানিস্তানের কথা বেমালুম ভুলে যাবো? এটা কি ২০১১ নাকি ১৯৯১? এখনও অনেক কাজ বাকি রয়েছে।

ওবামা:

বিন লাদেনের মৃত্যু নিয়ে তার বিবৃতির জন্য যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা টুইটারে প্রশংসা ও ব্যঙ্গ বিদ্রূপ দুটোই পেয়েছেন।

সারাহ রাসরান তার বক্তৃতার প্রশংসা করে বলেন:

দারুণ বক্তব্য, #ওবামা। তাকে সম্মান করি কারণ তিনি দেখিয়েছেন যে বিন লাদেন একজন মুসলিম নেতা নন বরং একজন মুসলিম ও অমুসলিম হত্যাকারি।

অপরদিকে ইমান হাশিম মিশর থেকে লিখেছেন:

ওবামা: আমেরিকা কখনও যুদ্ধকে বেছে নেইনি! তুমি কি তামাশা করছ? চলো তোমাকে মনে করিয়ে দেই একটি নাম…ইরাক!!! #ওবামা #ওসামা বিন লাদেনে #ইরাক

আরব-আমেরিকান গ্রুপ ব্লগ কাবোবফেস্ট-এর টুইটার একাউন্টে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরুনকেও বিদ্রূপের হাত থেকে রেহাই দেয়া হয়নি। তাদের ধারালো মন্তব্য:

আসলে কারো সমস্যারই অবসান হয়নি। ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরুন: ওসামার মৃত্যু সারা বিশ্বে “প্রশান্তি বয়ে আনবে” http://aje.me/jlqOzi

ভুল সংশোধন:

ইতোমধ্যে মিশরীয় কলামিস্ট মোনা এল তেহায়ি বিন লাদেনের হত্যাকে দেখছেন একটি ভুল সংশোধনী হিসেবে যাতে ৩১ বছর সময় ব্যয় হয়েছে। তিনি টুইট করেছেন:

যুক্তরাষ্ট্রের জন্য এটা ছিল মস্ত বড় ভুল যে তারা ওসামা বিন লাদেনকে আফগানিস্তানে সোভিয়েতদের বিরুদ্ধে লেলিয়ে দিয়েছিল। ৩১ বছর লাগলো এই ভুল সংশোধন করতে।

ওসামা বিন লাদেনের মৃত্যু নিয়ে আরব বিশ্বের আরো প্রতিক্রিয়া জানার জন্য আমাদের সাথেই থাকুন।

এই পোস্টটি আমাদের ওসামা বিন লাদেনের মৃত্যু সংক্রান্ত বিশেষ কাভারেজের অংশ

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .