বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ভারী বর্ষণের পর কলম্বিয়ায় লাল সতর্কতা জারী

‘লা নিনা’-[স্পেনীশ]এর প্রভাবে ২০১০ সাল থেকে কলম্বিয়ায় ভারী বর্ষণ শুরু হয়। ২০১১ সালের মার্চে শুরু হওয়া বৃষ্টিপাতের কারনে দেশটিতে লাল সতর্কতা (Red alert) জারী করা হয়েছে। দেশের ২৮ টি ডিপার্টমেন্টের বাসিন্দা গণ অত্যন্ত কষ্টকর জীবন যাপন করছেন।বন্যা [স্প্যানিশ ভাষায়], ভূমিধ্বস এবং নদীর পানির হঠাৎ বৃদ্ধি প্রায় ত্রিশ লক্ষ পাঁচ হাজার মানুষকে বিপদগ্রস্ত করে তুলেছে।

ইন্টারনেটে এ বিষয়ের উপর মতামত ব্যাপক বিস্তার[স্প্যানিশ ভাষায়] লাভ করেছে। নোটিশিয়াস দেল ক্লিমা (আবহাওয়া সংবাদ)- ব্লগ জানায় ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা বিভাগ এবং স্বরাষ্ট্র ও বিচার মন্ত্রণালয় এ শীত মৌসুমে দ্বিতীয়বারের মত নিবারণমূলক লাল সতর্কতা [স্প্যানিশ ভাষায়] জারী করতে বাধ্য হয়।

কালি থেকে জুনাকমু ল্যামেন্টস তাঁর ব্লগ লো দে জুয়ানকমু -এ বলেন ২০১০ সাল থেকে এ জটিল পরিস্থিতির [স্প্যানিশ ভাষায়] সৃস্টি হয়েছে:

Como siempre, la gente de este país sigue creyendo que el problema de los damnificados se resuelve solamente mandándoles comida y agua. P**O PAÍS DEL INFIERNO!. Es increíble que haya gente que desde diciembre vive en carpas y arrinconados en polideportivos y escuelas, y hoy estén pasando por lo mismo. ¿Qué diablos hicieron los gobernantes en todo este tiempo?

বরাবরের মত এদেশের জনগণ এখনো বিশ্বাস করে যে দুর্গতদের সমস্যার একমাত্র সমাধান খাবার ও পানি পাঠানো। ঘোড়ার ডিমের দেশ! এটা অবিশ্বাস্য যে জনগণ গত ডিসেম্বর থেকেই তাঁবু, ক্রীড়া কেন্দ্র এবং বিদ্যালয়গুলোতে বাস করে আসছে এবং আজও তাঁরা সেখানে আছে। এত সময় ধরে কর্তৃপক্ষ সেখানে কি ঘোড়ার ডিম করলো ?

ইবাগুয়ে থেকে কার্লোস গামবোয়া তাঁর ব্লগ টিউটর ভার্চুয়াল [স্প্যানিশ ভাষায়]-এ প্রাক্তন কলম্বিয়ার রাষ্ট্রপতি আলভারো উরিবে- কে প্রশ্ন করেন এবং এ করুণ অবস্থার জন্য দায়ী করেন:

¿Para qué le sirve, al desmantelado general Uribe Vélez, haber invertido la mayor parte del presupuesto nacional en un programa de seguridad democrática durante diez años,  hoy cuando el país naufraga en la desidia? Hubiese sido mejor construir un Plan Nacional de Desarrollo pensando en las prioridades de la gran población expuesta a estas catástrofes, no porque ellos lo deseen, si no que por falta de vivienda se ven abocados a construir sus ranchos en los desfiladeros, en las orillas de las quebradas o a la sombra de montañas inestables.

দেশ যখন আজ উদাসীনতায় ডুবে যাচ্ছে তখন দশ বছর ধরে গণতান্ত্রিক নিরাপত্তা কর্মসূচীর নামে জাতীয় বাজেট থেকে বিনিয়োগ করে আর জেনারেল উরিবে ভেলেজ কে বাদ দিয়ে এমন কি ভালো টা হলো? বিপর্যয়ে ক্ষতিগ্রস্ত জনগণের জন্য জাতীয় উন্নয়ন পরিকল্পনা গ্রহণ করা উচিত। এ কারনে নয় যে এটা তাঁরা চায় বরং এটা এ কারনে যে তাঁরা বাস্তুহারা। তাঁরা সমুদ্র পাড়ের উচু পাহাড়ে, নদীর পাড়ে এবং যে কোন সময় ভেঙ্গে পড়তে পারে এমন পাহাড়ের ছায়ায় কুড়ে ঘর নির্মাণে বাধ্য হয়েছে।

সংহতি প্রচারণার অংশ হিসেবে বিভিন্ন জনগণ ফেসবুকে একাধিক একাউন্ট[স্প্যানিশ ভাষায়] তৈরী করেছেন। এ প্রচারণার একটি নিজস্ব অফিসিয়াল ওয়েবসাইট আছে যা কলম্বিয়া হিউম্যানিটারিয়া [স্প্যানিশ ভাষায়] (মানবাধিকার কলম্বিয়া) নামে পরিচিত। এ ওয়েব সাইটটি প্রজাতন্ত্রী কলম্বিয়ার প্রেসিডেন্সির সঙ্গে কাজ করে, এবং ওয়েব সাইটটির নিজস্ব টুইটার একাউন্ট [স্প্যানিশ ভাষায়] আছে। দিনেরো ম্যাগাজিন(@RevistaDinero)-এর করা টুইটের প্রতিক্রিয়ায় আলেজান্দ্র আইয়ুর (@Alejoayure) যে মন্তব্য করেন তার থেকে এ ওয়েবসাইটের উদ্ভব হয়। সাইটটিতে বিভিন্ন মন্তব্যের পোস্ট করা হয়েছে:

Ojalá! Hoy estuvimos en Utica, y no a ido ningún representante de Colombia Humanitaria!!… ¿Dónde están? ¡Que aparezcan!

আশা করি আজ আমরা উটিকা যাবো। সেখানে কলম্বিয়া হিউম্যানিটারিয়ার কোন সাড়া নেই!!…. তারা কোথায়? তাঁদের সেখানে যাওয়া উচিত!

লুইস আরমানডো হেরেরা (@luisarmandohb) প্রশ্ন করেন [স্প্যানিশ ভাষায়] কিভাবে কলম্বিয়া হিউম্যানিটারিয়ার তহবিল পরিচালিত হয়:

En términos castizos, se están robando los recursos de Colombia Humanitaria

সত্যি বলতে কি তাঁরা কলম্বিয়া হিউম্যানিটারিয়ার সম্পদ চুরি করে।

কলম্বিয়ার আ্যন্টিওকুইয়ার সাবনেতা অস্থায়ী আশ্রয়ে বন্যা দুর্গতরা। ছবি: লালি

অন্যান্য টুইটার ব্যবহারকারীগণ বিভিন্ন অঞ্চলে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সমস্যা তুলে ধরেছেন। কার্লোস রডরিগুয়েজ আরানা (@CarlyRodriguezA) বলেন [স্প্যানিশ ভাষায়]:

Muy preocupado con la ola invernal!!! El Rio magdalena en Magangué esta subiendo 10 cm diarios. Colombia necesita de todos!!! Yo ♥ Colombia

শৈত্য প্রবাহ থেকে সতর্ক থাকুন! মাগানগে-তে মাগদালেনা নদীর পানি প্রতিদিন ১০ সে:মি: করে বৃদ্ধি পাচ্ছে। প্রত্যেককে কলম্বিয়ার প্রয়োজন!!! আমি ♥ কলম্বিয়া

জেভিয়ার কনট্রেরাস (@jcontrerasa) এক বাক্যে পরিস্থিতি ব্যাখ্যা করেন [স্প্যানিশ ভাষায়]:

Viendo las imágenes de la situación en el país, lo que está viviendo Colombia no es una ola invernal sino una ola infernal…

ছবিগুলো দেখলে দেশের অবস্থা বুঝা যায়। কলম্বিয়া এখন শৈত্য প্রবাহের অভিজ্ঞতা অর্জন করছে না নরকের ঢেউ অনুভব করছে…

ডারউইন হোসে কুয়েস্তা (@pecesito_03) তাঁর টুইটে সাহায্যের আহ্বান জানিয়েছেন [স্প্যানিশ ভাষায়]:

Critica la situación por ola invernal en Colombia, y las ayudas nada que llegan en la mayoría de zonas afectadas del país.

কলম্বিয়ায় শৈত্য প্রবাহের কারনে পরিস্থিতি জটিল আকার ধারণ করেছে। দেশের সবচাইতে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় এখনো সাহায্য পৌছায়নি।

সর্বোপরি হোসে এন্টানিও দাজা (@joseplazagarcia) সতর্ক করেন [স্প্যানিশ ভাষায়]:

Las Inundaciones y derrumbes por El Invierno en Colombia eran Tragedias Anunciadas…Y para Variar no se hizo nada para prevenirlas…

শীতকালে কলম্বিয়ার বন্যা ও ভূমিধ্বস বিপর্যয় ডেকে নিয়ে এসেছে… এবং স্বাভাবিকভাবেই প্রতিরোধের জন্য কিছুই করা হয়নি…
(Photo taken in a neighborhood of the upper area of ​​the district north-east of Medellín, Antioquia. A house is endangered by a landslide. Image: Lully)

উত্তর-পূর্ব মেডেলিন জেলার অ্যান্টিওকুইয়ার উচু এলাকা থেকে তোলা ছবিতে ভূমি ধ্বসে ঝুকিঁপূর্ণ একটি বাড়ী দেখা যাচ্ছে। ছবি: লালি

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .