বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ইরান: রাষ্ট্রপতি আহমেদিনেজাদের লেবানন সফর


ইরানের রাষ্ট্রপতি মাহমুদ আহমেদিনেজাদ কেবল তার দুই দিনের লেবানন সফর সমাপ্ত করেছে। ২০০৫ সালে আনুষ্ঠানিকভাবে রাষ্ট্রপতির দায়িত্ব নেবার পর এটাই তার প্রথম সেদেশ সফর। তিনি লেবানন সরকারের কর্তাব্যক্তিদের সাথে আলোচনায় বসেন এবং রাজধানীর দক্ষিণ উপশহর এবং দক্ষিণ লেবাননে অবস্থিত ইরানের অন্যতম সুদৃঢ় সহযোগী হেজবুল্লাহর এলাকা ভ্রমণ করেন। সেখানে তিনি বীরের সম্মান লাভ করেন। বেশ কিছু ইরানী ব্লগার এই ভ্রমণের উপর তাদের প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছে।

আহমেদিনেজাদের এই লেবাননে সফরের উপর মেইবোডেমা বেশ কিছু ছবি প্রকাশ করেছে এবং লেবাননে হেজবুল্লাহ দলের প্রধান সাইয়্যেদ হাসান নাসরুল্লাহ বাণী উদ্ধৃত করেছে [ফারসী ভাষায়] – তিনি ইসলামিক প্রজাতন্ত্রের প্রশংসা করেন এবং মাহমুদ আহমেদিনেজাদকে স্বাগতম জানান।

ব্লগার নাসরুল্লাহর এই বক্তব্য উদ্ধৃতি করেছে, যেখানে সে বলছে যে সকল প্রচারণার বিপরীতে, “ইরান নিপীড়িতদের সাহায্য করছে”

সাইয়েহ আজাদি রোজঅনলাইনে [ফার্সী ভাষায়] এ ছাপা হওয়া ইরানের বিখ্যাত কার্টুনিস্ট নিকাহাঙ্গ এর একটি কার্টুন পুনরায় প্রকাশ করেছে (উপরে দেখুন), যার শিরোনাম “ আহমেদিনেজাদ লেবাননের জন্য স্বপ্ন দেখে”।

জে৮উনাক, কেন লেবাননের জনতা আহমেদিনেজাদকে স্বাগত জানিয়েছিল তার কিছু কারণ বের করেছেন। ব্লগার লিখছে [ফার্সী ভাষায়]:

মোল্লাহ পরিহাসের সাথে লিখেছে:

লেবাননের জনতা ইরান সরকারে কোন খারাপ কিছু দেখতে পায় না। যদি আমরা লেবাননে থাকতাম এবং ইরান সরকার প্রদত্ত অর্থ লাভ করতাম, তাহলে আমরাও ইসলামিক প্রজাতন্ত্রের সমর্থক হতাম..। তারা বলে কেউ অভ্যুত্থানের মাধ্যমে ক্ষমতায় এসেছে কিনা বা তারা কারো উপর অত্যাচার করছে কিনা, তা নিয়ে আমাদের কোন মাথা ব্যথা নেই..। কেবল আমাদেরকে ডলার দিয়ে যাও।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .