বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ভারত: ভুপাল গ্যাস দুর্ঘটনার রায়- অনেক দেরিতে অনেক কম শাস্তি?

১৯৮৪ সালের ডিসেম্বর ২-৩ তারিখ রাতে ভারত তার সব থেকে খারাপ কারখানা বিপর্যয়ের মুখোমুখি হয় যখন মধ্য প্রদেশের ভুপালে ইউনিয়ন কার্বাইড (ইউসিয়আইএল) কীটনাশক প্লান্ট থেকে কয়েক টন ভয়ঙ্কর মিথাইল আইসোসায়ানেট (এমআইসি) গ্যাস আর অন্যান্য বিষাক্ত পদার্থ নির্গমণ হয়, যার ফলে উচ্চপর্যায়ের বিকিরণ ঘটে। এতে হাজার হাজার মৃত্যু আর আরো অনেক হাজার জীবন পঙ্গু হয়ে যায়।

২৫ বছরের বেশী সময় পরে ভুপালের একটা আদালত ইউনিয়ন কার্বাইডের ভারতীয় শাখাকে দোষী করে রায় দিয়েছে আর ৮ জন ভূতপূর্ব ইউসিআইএল কমকর্তাকে (সবাই ভারতীয়) দোষী সাব্যস্ত করেছেন ভারতীয় দন্ডবিধির ধারা ৩০৪-এ অনুসারে অপরাধী হিসেবে (অবহেলার কারনে মৃত্যু ঘটানো), ৩০৪-২ (শাস্তিযোগ্য নরহত্যা যা হত্যার সামিল না), ৩৩৬, ৩৩৭ আর ৩৩৮ (বড় মাপের অবহেলা) অনুসারে। তাদের প্রত্যেকের ২ বছরের জেল আর ভারতীয় রুপিয়া ১০০,০০০ (প্রায় আমেরিকান ডলার ২০৯৭) জরিমানা করা হয়। ইউসিয়আইএলকে ভারতীয় রুপিয়া ৫০০,০০০ (প্রায় আমেরিকান ডলার ১০,৪৮৩) জরিমানা করা হয়।

তবে তখনকার ইউনিয়ন কার্বাইডের চেয়ারম্যান ওয়ারেন এন্ডারসন এর কোন উল্লেখ নেই রায়ে যিনি জামিন এড়িয়ে, দেশ থেকে পালিয়ে যান আর তাকে পলাতক ঘোষণা দেয়া হয় যখন তিনি আমেরিকা থেকে ভারতে এসে বিচারের সম্মুখীন হতে অস্বীকৃতি জানান।

অনেক ধারণা আর আশা ছিল সকাল থেকে যখন মানুষ রায়ের অপেক্ষায় ছিল। তবে বেশীরভাগ ভারতীয় মনে করেছে যে খুব দেরিতে দেয়া হচ্ছে ভুপাল গ্যাস দুর্ঘটনার শিকারদের ক্ষতিপূরণের এই মামলার রায়। টুইটারে মন্তব্য ভরা ছিল যেখানে মানুষের মনোভাব বোঝা যাচ্ছিল- যার মধ্যে আশাবাদী থেকে সংশয়পূর্ণ কথাবার্তা ছিল।

ভিরাল_গান্ধী১১: ওহ ভুপাল গ্যাস দুর্ঘটনার রায় ২ দিনে! আমি আশা করছি আমার বন্ধু যে তার বাবাকে এই দূর্ঘটনায় হারিয়েছে ন্যায় পাবে কিছুটা, যদিও এখন অনেক দেরি হয়ে গেছে!

সেনথিলকুমারসি: ভুপাল গ্যাস দূর্ঘটনা…রায়ের দিন আজ। আশা করছি রায় যেটা ঘোষণা করা হবে তাতে পুরো ন্যায় বিচার হবে যদিও সিবিআই মামলা এরই মধ্যে দুর্বল করে ফেলেছে।

চৈতন্য: ২৬ বছর পরে… ভুপাল গ্যাস দুর্ঘটনার রায়ের দিন এসেছে। স্বাভাবিকভাবে বড় মাছেরা বিচার এড়িয়ে গেছে।

দিব্যেশএন: দেরিতে করা বিচার মানে বিচারে অস্বীকৃতি। @ভুপাল গ্যাস দুর্ঘটনার রায়।

রমেশশ্রীভাতস: ২৬ বছর পরে রায়। আসল ভুপাল গ্যাস দুর্ঘটনা বিচার ব্যবস্থার গরম বাতাস।

কিছু নেটিজেন দ্রুত তুলনা করেছেন ভোপাল ঘটনার বিচারের দীর্ঘসূত্রীতা আর সাম্প্রতিক গালফ অফ মেক্সিকোতে বিপির ডিপওয়াটার হরাইজন তৈলকূপ থেকে তেল ছড়িয়ে পড়ার ঘটনার দ্রুততার সাথে বিচারের।

শাহহামিদ: ভুপাল দুর্ঘটনা- ভারতীয় সরকারের দরকার ইউনিয়ন কার্বাইডকে দায়ী করা যেভাবে আমেরিকা তেলের দুর্ঘটনার জন্য বিপিকে চেপে ধরেছে।

রায়ের ব্যাপারে প্রতিক্রিয়া আসতে শুরু করেছে। ওই স্থানের মানুষ আর গত ২৫ বছর ধরে যারা এই ঘটনার শিকারদের জন্য বিচার পাইয়ে দেওয়ার কাজে নিয়োজিত ছিলেন তারা মনে করছেন যে সরকার, তদন্তকারী সংস্থা আর বিচার ব্যবস্থা ভুপালের মানুষকে কেবল হতাশই করে নি বরং অস্বাস্থ্যকর একটা উদাহরণ রেখেছে যে কিভাবে বড় বিদেশী কোম্পানি দেশে যারা শিল্প কারখানা স্থাপন করবে তারা কিভাবে কাজ করবে, বস্তুতই এখন থেকে খুব কম জবাবদিহীতা সহকারে।

ব্লগার গুহান সারাভানান তার ব্লগে লিখেছেন:

২৫ বছর লাগল ৮ জন মানুষকে দোষী সাব্যস্ত করতে আর দুই বছরের জন্য তাদের জেলে দিতে। ভারতে, কেউ অবাক হয়নি- সময় এমনি দীর্ঘ লাগে। আর যখন এটা কোন শিল্প দুর্ঘটনার জন্য হয় ভুপালের দুর্ঘটনার সমান, এটাই স্বাভাবিক, কারন ভারত সরকার এখানে জড়িত। সরকার আর শিল্প যখন লড়ছিল কার উপরে দায়িত্ব চাপিয়ে দেয়া যায়, কতটা ন্যায় ও যথেষ্ট ক্ষতিপূরণ হবে আর সেটা কিভাবে বিতরণ করা হবে- এই দুর্ঘটনার শিকারেরা ভুগেছে আর আজ পর্যন্ত ঠিকভাবে তাদেরকে ক্ষতিপূরণ দেয়া হয়নি। পুনর্বাসনের আর চিকিৎসার দাবি কেউ শোনেনি একইভাবে যেভাবে তাদের সমস্যার পুনর্তদন্তের দাবি। ভুপাল গ্যাস দূর্ঘটনা গবেষণার বিষয়ে পরিণত হয়েছে মানবাধিকার আর মানবিকতার মধ্যের সম্পর্কে।

রায়ের ব্যাপারে প্রতিক্রিয়া জানানো টুইটগুলোর কয়েকটি নীচে তুলে ধরা হয়েছে:

মোহিত_পানোয়ার: আজকে ভুপাল গ্যাস ট্রাজেডির রায়। সর্বোচ্চ সাজা ২ বছরের। এটা যেন আবার সেই ১৫০০০ মানুষকে পুনরায় হত্যা করা। আমি এর বিরুদ্ধে। আপনি?

পার্থি_ট্রেন্ডস: আদালতের এই রায়কে ভুপাল ট্রাজেডি ২য় সংস্করণ বলে বিবেচনা করা যায়…

সুপ্রিয়া১৩১০: ভুপাল গ্যাস নির্গমনের ৮ জন দোষী ২৫ বছর পরে ২ বছরের সাজা পেয়েছে…দাঁড়ান! এটা কি মজা করা হচ্ছে??

জেয়াগনেশ: ক্রোধ! ভুপাল গ্যাস লিকের অপরাধীদের জামিন

শেখরকাপুর: ‘ভুপাল’ যদি আমেরিকায় থাকত, সেই কোম্পানি আর সকল বীমা কোম্পানি লাটে উঠত বিপুল পরিমাণ ক্ষতিপূরণ দেবার কারণে।

স্যাভিস্লাইভার: ভারতীয় আদালত ভোপাল দূর্ঘটনায় ৭ জনকে দায়ী করেছে, তারা হাজার হাজার মানুষ মেরে হাতে তালি দিয়ে বেরিয়ে গেল।

এডভ্যেটবোরেট: ভোপাল গ্যাস দূর্ঘটনায় অনেক দেরিতে অনেক কম শাস্তি… 🙁

যখন রায়ের ব্যাপারে প্রতিক্রিয়া জানানোর জন্য জানতে চাওয়া হয়, ইউনিয়ন কার্বাইড দায় এড়িয়ে গেছে এই বলে যে এটি ইউনিয়ন কার্বাইড ইন্ডিয়া লিমিটেডের দায় যারা জবাব দেয়ার দায়িত্বে ছিলেন তাদের নয় (যেমন ইউনিয়ন কার্বাইড বা এর কর্মকর্তারা) আর তাদের মামলার একটা অংশ ভারতীয় আদালতের এখতিয়ারের মধ্যে।

যেমন সংসদের বিরোধীদল এখন ভুপাল কেসের উল্লেখ করে পুনর্বিবেচনা দাবি করেছে প্রস্তাবিত বিতর্কিত পারমাণবিক দায়িত্বের বিলের ব্যাপারে সেই সূত্রে কলামিস্ট/ সাংবাদিক মাধবন নারায়নন এই টুইটে সম্ভবত সময়ের প্রয়োজনীয়তার কথা সব থেকে ভালো তুলে ধরেছেন:

আসুন এই উদাহরণ সিএসআর থেকে সিএসএর দিকে আমরা ফেরাই: কর্পোরেট সামাজিক দায়িত্ব থেকে কর্পোরেট সামাজিক দায়িত্বশীলতার।

ছবির জন্যে কৃতজ্ঞতা: ফ্লিকার থেকে অব্বিনো

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .