বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ইরানী নারী অধিকার ওয়েবসাইট আরএসএফ অনলাইন স্বাধীনতা পুরষ্কার জিতেছে

রিপোর্টার্স উইদাউট বর্ডাস (আরএসএফ) এবং গুগুল নারী অধিকার ওয়েবসাইট উই চেঞ্জ এর অনলাইন সাংবাদিকদের ১২ মার্চ সম্মানিত করেছে প্রথম ‘নেটিজেন পুরষ্কার’ দিয়ে। এ্টি একটি নতুন বার্ষিক পুরষ্কার সেইসব ব্যাক্তিদের জন্য যারা অনলাইনে প্রকাশের স্বাধীনতা রক্ষা করেন। ‘ইন্টারনেটের শত্রুদের’ নিয়ে আরএসএফ এর রিপোর্ট একই দিনে মুক্তি পায়।

উই চেঞ্জ এর পক্ষ থেকে পারভিন আর্দালান এই পুরষ্কার গুগুলের প্যারিস অফিস থেকে গ্রহন করেন। ইরানী নারীদের এই আন্দোলন সব সময়ে প্রতিরোধ দেখিয়েছে… এখন এই প্রচারণা চেষ্টা করছে তাদের অভিজ্ঞতা আর কাজের পদ্ধতিকে গণতান্ত্রিকভাবে সাইবার স্পেসে নিয়ে আসার।

উই চেঞ্জ এর ওয়েবসাইটটি সহায়তা করছে এক ভার্চুয়াল প্রচারণাকে যার শিরোনাম “বিভেদ সৃষ্টিকারী আইন পরিবর্তনের দাবীতে এক মিলিয়ন সই সংগ্রহ“। এই প্রচারণা ইরানী আইনে নারীদের প্রতি বিভেদ সৃষ্টির সমাপ্তি দাবী করে। একই কারণে শান্তিপূর্ন এক বিক্ষোভের পরবর্তী আন্দোলন হচ্ছে এটি যা প্রথমে ২০০৬ সালের ১২ই জুন তেহরানের হাফত-এ তির স্কোয়ারে হয়েছিল।

এখানে একটা ভিডিও যেখানে উই চেঞ্জ তাদের লক্ষ্য আর ইতিহাসের পরিচিতি জানাচ্ছে:

পারভিন আর্দালান ইতোপূর্বে ২০০৭ সালে ওলাফ পালমে পুরষ্কার পেয়েছিলেন, কিন্তু ইরানী কর্তৃপক্ষ তাকে দেশের বাইরে গিয়ে তা গ্রহণের অনুমতি দেয়নি। তিনি তার বার্তা ইউটিউবে রেকর্ড করেছিলেন:

এর মধ্যে বেশ কয়েকজন ইরানী ব্লগার জেলে আছেন যেমন নারী ব্লগার আর মানবাধিকার কর্মী শিভা নাজারাহারি। তিনি গত বছর ১২ জুনের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের পর থেকে কারাগারে আটক আছেন।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .