বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ইন্দোনেশিয়া: ন্যায়বিচারের জন্যে পয়সা সংগ্রহ

গত ৬ই ডিসেম্বর, ইন্দোনেশীয়ার গৃহবধু প্রিতা মুলিয়াসারীকে রাজধানী জাকার্তার পাশের জেলা ট্যান্গেরাঙ এর এক আদালত অভিযুক্ত করে একটি হাসপাতালের খারাপ সেবা নিয়ে একটি ইমেইল লেখার জন্য। কোর্ট তাকে বিশ কোটি ইন্দোনেশিয়ান রুপিয়া (২১,৬৮০ মার্কিন ডলার বা প্রায় ১৫ লাখ টাকা) জরিমানা করে যা অমনি ইন্টারন্যাশনাল আলম সুতেরা হাসপাতালের মাণহানির ক্ষতিপূরণ হিসেবে প্রদেয় হবে।

জাকার্তার একজন ফ্যাক্টরী শ্রমিকের বেতন মাসে ১০৬ মার্কিন ডলার (প্রায় ৭,৪০০ টাকা)।

ইন্দোনেশিয়ার ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা আদালতের এই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে নেমে পড়েছেন প্রিতার জন্যে এই জরিমানা পয়সার আকারে সংগ্রহের জন্যে। স্থানীয় সংবাদপত্র কমপাস কে একজন সামাজিক কর্মী বলেছেন যে তারা এর মাধ্যমে হাসপাতালটিকে একটি শিক্ষা দিতে চান।

“ন্যায়বিচার পাওয়া যায় নি বলে, আমারা পয়সা সংগ্রহ করছি,” এটিই হচ্ছে “কয়েন কিদিলিন” (ন্যায় বিচারের জন্যে পয়সা সংগ্রহ) আন্দোলনের প্রধান বক্তব্য। তারা একটি ওয়েবসাইট চালু করেছে পয়সার দান গ্রহণের মাধ্যমে প্রিতার জরিমানার টাকা সংগ্রহ করার জন্যে।

www.koinkeadilan.com ওয়েবসাইটের সৌজন্যে

www.koinkeadilan.com ওয়েবসাইটের সৌজন্যে

এই সাইটে একটি ঘোষণা আছে:

Tentang cara, kita bisa dan boleh berbeda pendapat. Misalnya tentang perlu atau tak perlu dalam pengumpulan koin. Yang pasti kita sama-sama di posisi ini: rasa keadilan kita terlukai. Spirit kita pun sama, bahwa keangkuhan kekuasaan yang ingin mengenyahkan kebebasan berpendapat melalui kriminalisasi harus kita lawan.

কিভাবে (পয়সা) সংগ্রহ করা হবে সে নিয়ে অনেকের দ্বিমত থাকতে পারে। শুধু পয়সা দিয়েই সাহায্য করা যেতে পারে কিনা সে বিষয় নিয়েও বিতর্ক আছে। কিন্তু সবাই এক বিষয়ে একমত: ন্যায়বিচার পাওয়া যায় নি। আমরা সবাই বুঝি যে মানুষের বাক স্বাধীনতা রোধ করতে স্বার্থান্বেষী শক্তি তৎপর এবং তার জন্যেই এই শাস্তির প্রয়াস। এর বিরুদ্ধে লড়াই করা দরকার।

টুইটারে প্রতিবাদ এবং এই আন্দোলনের সমর্থনে বার্তা গুলো #freeprita এবং #helpprita হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করে প্রকাশিত হচ্ছে।

AdibHidayat: Rencana acara akan dibuat di Hard Rock Cafe Jakarta. Detail akan kami update secepatnya. Konser Amal Pengumpulan Coin #freeprita

জাকার্তার হার্ড রক কাফেতে পয়সা সংগ্রহের একটি চ্যারিটি কনসার্টের আয়োজন করা হয়েছে। বিস্তারিত পরে জানানো হবে।

ট্রিস্পটার: অনুগ্রহ করে সবাই প্রিতার জন্যে আপনার পকেটের পয়সাগুলো দান করুন। একটি দুটি পয়সা – বা অনেকগুলো – বিচারবুদ্ধি ফিরিয়ে আনার জন্যে। তার দরকার ২.৫ টন পয়সা http://koinkeadilan.com/।

এলিজাবেথ: সামাজিক মিডিয়া মরে যায় নি। আমরা জানি প্রিতা নিরপরাধ। এই রায় অমনি হাসপাতালকে শুধুই অখ্যাতি এনে দেবে।

hiYano: #freeprita gambaran sebuah “dpr online” yang bisa lebih “berbahaya” daripada “dpr jalanan” jangan pernah remehkan kami yang “online”

#freeprita হচ্ছে অনলাইনে জনগণের সংসদ যা রাস্তার সংসদের থেকেও বিপদজনক হতে পারে। আমরা যারা অনলাইনে আছি তাদের অবজ্ঞা করবে না।

আইন বিশেষজ্ঞরা বলছেন যে নতুন সাইবার আইন অনুযায়ী প্রিতার বিচার সুষ্ঠু হয় নি কারণ এই আইন কার্যকর হবার কথা আগামী বছরের এপ্রিল মাসে

ব্লগার আদিত্য মাইক্রোব্লগিং এর শক্তি সম্পর্কে তার ধারণা জানাচ্ছে:

Saya percaya dengan kekuatan jejaring sosial untuk menyebarkan kabar ini seluas-luasnya, paling tidak se-massive gerakan facebookers untuk gerakan “cicak vs buaya”. Tapi, saya tidak tahu apakah uang sejumlah itu dalam bentuk koin busuk pula akan terkumpul dalam waktu cepat.

Bukan saya mau meremehkan gerakan ini, tapi tahu sama tahu, biasanya yang seperti ini hangat-hangat di awal saja. Mudah-mudahan tidak ya!

আমি বিশ্বাস করি যে সামাজিক নেটওয়ার্কগুলোর এই ধরনের সংবাদ দ্রুত প্রচার করার শক্তি আছে। আমরা তেমনটিই দেখেছি পুলিস আর দুর্নীতি দমন কর্মকর্তার মধ্যে লড়াই নিয়ে ফেসবুক ব্যবহারকারীদের ব্যাপক আন্দোলন। কিন্তু আমি আশঙ্কা করছি যে এত পরিমাণ টাকা পয়সার মাধ্যমে জোগাড় করা সম্ভব কি না।

আমি এই আন্দোলনকে খাটো করছি না। কিন্তু আমরা জানি অনেক ক্ষেত্রেই এইসব উদ্যোগ মাঠে মারা যায়। আশা করছি এক্ষেত্রে তা হবে না।

আদিত্য তার লেখা শেষ করেছেন তার পাঠকদের এই প্রশ্ন করে:

Kawan, jika dan hanya jika, Anda peduli dengan persoalan kebebasan berpendapat dan perlindungan atas hak-hak konsumen, bergeraklah.

বন্ধুরা, যদি কেবল যদি তোমরা বাক স্বাধীনতা এবং ক্রেতা অধিকারকে মূল্য দাও তাহলে এগিয়ে চল।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .