বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ভেনেজুয়েলার সাংবাদিক লুইস কার্লোস ডায়াজকে খুজে পাওয়া যাচ্ছেনা

“লুইস কার্লোস কোথায়?” ছবিটি অনলাইন প্রচারণার জন্যে প্রকাশ করেছে প্রভিয়া। ছবিটিতে তারা শেষ কখন লুইস কার্লোসের সাথে যোগাযোগ হয় এবং শেষ কখন তিনি টুইট করেন তা দেখানো হচ্ছে।

১১ই মার্চ সন্ধ্যায়, ভেনেজুয়েলার সাংবাদিক ও গণমাধ্যম কর্মী লুইস কার্লোস ডায়াজের স্ত্রী এবং রাজনৈতিক বক্তা ‘নাকি সোটো’ টুইট করেন যে গত পাঁচ ঘন্টা থেকে তার কোন খবর পাওয়া যাচ্ছেনা।

[হালনাগাদ] ইউনিয়ন অব প্রেস ওয়ার্কারস (স্প্যানিশে এসএনটিপি) জানায় যে লুইস কার্লোস কে বলিভারিয়ান ইন্ট্যালিজেন্স ফোর্স (সেবিন) আটক করেছে।

জরুরি খবর, একজন সেবিন কর্মকর্তা জানান যে সাংবাদিক লুইস কার্লোস কে পুলিস আটক করেছে। এসময় তারা সাংবাদিক ও প্রেস উনিয়নের সদস্য মারকো রুইজ, লাজ মেলি রেইস এবং ফেডেরিকো ব্লাকের দিকে অস্ত্র তাক করে ছিলেন।

এর কয়েক ঘন্টা আগে সোটো লুইস কার্লোসকে পাঁচ ঘন্টা যাবৎ খুজে না পাওয়ার বার্তা টুইট করেন।

প্রিয় বন্ধুরাঃ আমি লুইসের সাথে বিকেল ৫ঃ৩০ থেকে যোগাযোগ করতে পারছিনা। সে আমাকে বলেছিল যে সে বাসায় আসছে বিশ্রাম করার জন্য কারণ রাত ১০টা থেকে ভোর ৫টা পর্যন্ত তার ইউনিয়ন রেডিওতে বিশেষ সাক্ষাৎকার আছে। #দোনদেএস্তালুইসকার্লোল

@লুইসকার্লোস তার গাড়িতে ছিল কিন্তু ৫ঃ৩০ থেকে তাকে আর পাচ্ছিনাঃ

-সে রেডিও স্টেশনে যায়নি।

- সে বাসায় নেই।

-সে কোন টুইট করছেনা

-সে ফোনের উত্তর দিচ্ছেনা

-সে কোন মেসেজও দিচ্ছেনা #দোনদেএস্তালুইসকার্লোল

[হালনাগাদ] সেবিন কর্মকর্তারা ডায়াজ ও সোটোর বাড়ি তল্লাশি করেছে। লাজ মেলি রেইস সেখান থেকে সরাসরি সম্প্রচার করেছে। এসএনটিপিও ঘটনার বিবরণ দিয়েছে।

জরুরী খবর, এখন রাত ৩ঃ৩০, ইন্টালিজেন্স ফোর্সের একজন কর্মকর্তা সাংবাদিক ও মানবাধিকার কর্মি লুইস কার্লোসের বাড়ি তল্লাশি করতে এসেছেন, তাকে বিকেল ৫ঃ৩০ থেকে পাওয়া যাচ্ছেনা।

#লুইসকোর্লোসকোথায়

অন্যান্য মত প্রকাশের স্বাধীনতা এবং মানবাধিকার সংস্থাও এই প্রচারণায় অংশ গ্রহণ করেছে #দোনদেএস্তালুইসকার্লোল (লুইস কার্লোস কোথায়?) এই শ্লোগানের মাধ্যমে। এই মুহুর্তে এটাই ভেনেজুয়েলার টুইটারে সবচেয়ে আলোচিত বিষয়।

ডায়াজ একজন সাংবাদিক, মানবাধিকার কর্মি এবং মত প্রকাশের স্বাধীনতায় বিশ্বাসী। তিনি ভেনেজুয়েলায় এবং বিদেশেও তার বক্তব্য ও নিকোলাস মাডুরো সরকারের সমালোচনার জন্য অত্যন্ত পরিচিত এবং সমাদৃত। তিনি দীর্ঘ দিন থেকে সোটোর সাথে বিভিন্ন ধরণের ভিডিও ও রেডিও অনুষ্ঠানের মাধ্যমে ভেনেজুয়েলার রাজনীতি এবং মানবাধিকার নিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন। তিনি নাগরিক এবং স্বাধীন গনমাধ্যম তৈরিতে শিক্ষক ও সহায়ক হিসেবে কাজ করেছেন। এছাড়াও ডায়াজ দশ বছরেরও বেশী সময় ধরে গ্লোবাল ভয়েসেস এর একজন সদস্য

আমার মতে, লুইস কার্লোস একজন অত্যন্ত বুদ্ধিমান মানুষ, তিনি আমাদের এই বিশৃঙ্খল ভেনেজুয়েলাকে খুব ভালোভাবে জানেন। তিনি সামাজিক বিষয়গুলো (সমালোচনা বা সংস্কৃতি) খুব ভালো বুঝেন।#লুইসকোর্লোসকোথায়

 

ডায়াজের গুম হওয়ার কয়েকদিন আগে, সরকার সমর্থিত একটি অনুষ্ঠান কন এল মাজো দান্দো তে ডায়াজের একটি সাম্প্রতিক সম্প্রচার দেখানো হয়। যেখানে অনুষ্ঠানের বক্তা রাজনীতিবিদ দিওসদাদো কাবেল্লো ইঙ্গিত দেন যে, ডায়াজের কারণেই, ৭ ও ৮ ই মার্চ ২৪ ঘন্টা পুরো দেশে বিদ্যুৎ না থাকায় ভেনেজুয়েলা অন্ধকারে ডুবে যায় ।

এই অভিযোগ সমর্থন যোগ্য কোন প্রমাণ নেই।

#ডিনাউন্সইপি বিকেল ৫ঃ৩০ থেকে সাংবাদিক লুইস কার্লোস ডায়াজের অবস্থান জানা যাচ্ছেনা। “কন এল মাজো দান্দো” নামক টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে তাকে “ফ্যাসিবাদী ধারণা প্রচারক” বলে দায়ী করা হচ্ছে।

যেহেতু নির্ভরযোগ্য কোন তথ্য পাওয়া যাচ্ছেনা, তাই এসএনটিপি ইন্টেলিজেন্স সার্ভিসের সদর দপ্তরে তল্লাশি করার জন্য একটি প্রচারণা করছে।

প্রায় সাত ঘন্টা হয়ে গেল লুইস কার্লোস ডায়াজকে খুজে পাওয়া যাচ্ছেনা। ডায়াজ ইউনিয়ন রেডিওর একজন সাংবাদিক এবং একজন মানবাধিকার কর্মি। আমরা সেবিনের সদর দপ্তরে এসেছি কিন্তু তারা বলছে তাদের কাছে ডায়াজ নেই। #লুইসকোর্লোসকোথায়

[হালনাগাদঃ তারা পরে জানায় যে ডায়াজ তাদের জিম্মায় আছে]

সাংবাদিক ভ্লাদিমির ভিল্লেজাস জানান যে তাকে সরকারি বাহিনী আটক করে রেখেছে।

আমরা জানতে পেরেছি যে @ইউনিওয়নরেডিও সাংবাদিক লুইস কার্লোসকে সরাকারি বাহিনী আটক করেছে। আমরা তার শারীরিক নিরাপত্তা কামনা করছি। আমরা তার অবস্থান জানাতে সরকারের কাছে দাবি জানাচ্ছি এবং তার মানবাধিকারের প্রতি শ্রদ্ধা জানাচ্ছি।

গ্লোবাল ভয়েসেস পরিবার লুইস কার্লোস, তার পরিবার এবং সকল স্বনির্ভর সাংবাদিক যারা ভেনেজুয়েলায় সুশাসন প্রতিষ্ঠার জন্য কাজ করে যাচ্ছে তাদের প্রতি সংহতি জানাচ্ছি। আমারা তার নিরাপদ ও দ্রুত প্রত্যাবর্তন আশা করি। এই ঘটনার আরো হালনাগাদ তথ্য পেলে আমারা জানাবো।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .