বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

২০ বছর পর নেপালের প্রথম স্থানীয় নির্বাচনে পুরোনো দলগুলোর জয় জয়কার

স্থানীয় নির্বাচনে প্রথম পর্যায়ের ভোট প্রদানে সিন্ধুলি জেলার কামালামাই পৌরসভার এক স্থানীয় ভোট কেন্দ্রে ভোটারের দীর্ঘ সারি। ছবি সৌরভ ঢাকালের, অনুমতিক্রমে ব্যবহার করা হয়েছে।

২০ বছর পর ১৪ মে, ২০১৭ তারিখে নেপালের স্থানীয় নির্বাচনে প্রথম পর্বে তিনটি প্রদেশে এই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এর দ্বিতীয় পর্বে নেপালের বাকী চারটি প্রদেশে এই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে, যার তারিখ পুনরায় নির্ধারণ করা হয়েছে ২৩ জুন, ২০১৭ তারিখে

কিন্তু ধীর গতিতে ভোট গণনার কারণে নির্বাচন কমিশন দারুণ সমালোচিত হয়েছে। দেশটির রাজধানী কাঠমান্ডুর নতুন মেয়রের নাম ঘোষণা করার জন্য নির্বাচন কমিশনের ১৪ দিন সময় লেগেছে।

যদিও স্থানীয় পর্যায়ে ক্ষমতা দখলের জন্য নতুন রাজনৈতিক দলগুলো তীব্র প্রচারাভিযান চালায়, কিন্তু প্রথম দফা নির্বাচনের চূড়ান্ত ফলাফল তিনটি প্রধান রাজনৈতিক দলের পক্ষে গিয়েছে, আর এগুলো হচ্ছে কমিউনিস্ট পার্টি অফ নেপাল (ইউনাইটেড মার্ক্সসিস্ট-লেনিনিস্ট), নেপালি কংগ্রেস এবং কমিউনিস্ট পার্টি অফ নেপাল (মাওবাদী-কেন্দ্র)

২০০২ সালে মাওবাদী বিদ্রোহ এবং ২০০৬ সালে দেশটির প্রধান রাজনৈতিক দলগুলোর নির্বাচন বয়কট করার কারণে প্রথম স্থানীয় নির্বাচনের আয়োজন করতে দেশটির ২০ বছর সময় লেগে গেল।

২০১৭ সালের স্থানীয় নির্বাচনে প্রায় ৭০ শতাংশ ভোট পড়েছে, এতে নেপাল কেন্দ্রীয় ব্যবস্থার অধীনে এই প্রথম নেপালের নাগরিকেরা স্থানীয় প্রতিনিধি নির্বাচনের সুযোগ পেল। ২০১৫ সালের নতুন সংবিধান প্রণীত হওয়ার ঘোষণার পর-এর অধীনে তিন স্তর বিশিষ্ট সরকার পদ্ধতির সূচনা করা হয়, যেগুলো হচ্ছে, জাতীয়, প্রাদেশিক এবং স্থানীয় পর্যায়ের সরকার।

ধীর গতির গণনা

তবে, অত্যন্ত ধীর গতিতে ভোট গণনার কারণে নির্বাচন কমিশন সর্বস্তরের সমালোচনা কুড়িয়েছে।

কার্টুনিস্ট রাজেশ কেসি টুইট করেছে:

নেপালের ভোট, নেপালের ভোট গণনা

রবীন্দ্র মানানধার নামের আরেক কার্টুনিস্ট টুইট করেছে:

ভোট গণনার তাজা ছবি

রাজনৈতিক দলগুলোর কাঠমান্ডুতে মেট্রো রেল চালু করার প্রতিশ্রুতির প্রতি ইঙ্গিত করে কার্টুনিস্ট আবিন শ্রেষ্ঠা একটি কার্টুন পোস্ট করে বলছে, মনে হচ্ছে মেয়রের আগে মেট্রো রেল চলে আসবে।

আজকের কান্তিপুর থেকে…

মহিলা প্রার্থীরা নির্বাচনে বিজয়ী হয়েছে

পৌরসভা এবং গ্রাম পঞ্চায়েতে মহিলা প্রার্থীরা সফলতার সাথে মেয়র, প্রধান, ডেপুটি মেয়র, এবং উপ প্রধান পঞ্চায়েত নির্বাচিত হয়েছে। চারটি পৌরসভা এবং আটটি গ্রামে পঞ্চায়েত প্রধান হিসেবে নারী প্রার্থীকে বেছে নিয়েছে

২৬৩টি পৌরসভার ডেপুটি মেয়র ও গ্রাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধান হিসেবে নির্বাচিত হয়েছে। একই ভাবে ১৩,০০০ নারী, যার মধ্যে ৬,৫০০ জন দলিত (তথাকথিত অচ্ছুত) সম্প্রদায়ের অংশ তারা ওয়ার্ড কমিটির সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হয়েছে

এমন কি কাঠমান্ডুর উল্লেখযোগ্য সংখ্যক নাগরিক ২১ বছরের তরুণী রঞ্জু দরশনাকে ভোট প্রদান করেছে।

নির্বাচনে বড় রাজনৈতিক দলগুলোর প্রাধান্য রয়ে গেছে

যদিও নেপালে শখানেকের মত রাজনৈতিক দল আছে, তারপরেও তবে, নির্বাচনে বেশীর ভাগ আসন জিতেছে সেই পুরোনো তিন বড় দল-কমিউনিস্ট পার্টি নেপাল (ইউনাইটেড মার্ক্সসিস্ট-লেনিনিস্ট), নেপালি কংগ্রেস এবং কমিউনিস্ট পার্টি (মাওবাদী-কেন্দ্র)।

দেশটির সামাজিক মিডিয়া ব্যবহারকারীরা বিষয়টিকে তুলনা করেছে রেস্তোরাঁয় গিয়ে দীর্ঘ সময় পরে খাদ্য তালিকায় নজর দেওয়ার পরেও খাবারের জন্য মোম (নেপালী জনপ্রিয় খাবার, যার উৎপত্তি তিব্বতে) এবং চাওমিন (ভাজা নুডুলস) বেছে নেওয়ার সঙ্গে।

জনগণ খাদ্য তালিকার দিকে তাকালো, সবগুলোর দিকে নজর প্রদান করল, কী খাবে সেটা নিয়ে কিছুক্ষণ ভাবল, শেষে মেমো এবং চাও মিন বেছে নীল। এটাই স্থানীয় নির্বাচনের ফলাফল তাই বলছে।

তাজা সংবাদঃ ১জুন, ২০১৭ : নেপালের উপপ্রধান এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বিমলেন্দ্র নিধি বলেছেন যে দ্বিতীয় পর্বের নির্বাচনের তারিখ পুনরায় নির্ধারণ করা হয়েছে ২৮ জুন-এ, এবং এর প্রভাব নিয়ে মন্ত্রীসভা শীঘ্রই এক সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .