বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

“জিটলার” টি-শার্ট পরিহিত চীনা আন্দোলনকর্মী আটকবস্থা থেকে নিখোঁজ

Photo: Twitter/Kwon Pyong.

ছবি: টুইটার/কোওন পিয়ং

এই পোস্টটি ক্যাথিরিন লাই লিখেছেন ও গত নভেম্বর ৩, ২০১৬ তারিখে এটি হংকং ফ্রি প্রেস-এ প্রকাশিত হয়েছিল। নিচের এই সংস্করণটি গ্লোবাল ভয়েসেস-এর সাথে তাদের চুক্তির আওতায় ইংরেজিতে প্রকাশ হয়েছে ও সেখান থেকে বাংলাতে অনুবাদ করা হয়েছে।

চীনা রাষ্ট্রপতি শি জিনপিং এর অনুভূতিতে আঘাত করে এমন একটি বার্তা সম্বলিত টি-শার্ট পরিধানের ইচ্ছা প্রকাশ করার পর কোওন পিইয়ং নামে ২৮ বছর বয়সী একজন চীনা আন্দোলনকর্মী চীনের জিলিন অঞ্চল থেকে আটক হয়েছেন।

উপরের ছবির মত টি-শার্টটি চীনের রাষ্ট্রপতির পারিবারিক নামের অংশ জি ও হিটলারের নামের সমন্বয়ে তৈরি।

এই সক্রিয়কর্মী গত ১লা অক্টোবর চীনের জাতীয় দিবসে এন্টি-জি আন্দোলনের অংশ হিসেবে টি-শার্টটি পরিধানের কথা তার এক বন্ধুকে প্রথম জানিয়েছিল। কোওন পিয়ং এর অন্য বন্ধুরা – যারা কোরীয় বংশদ্ভূত ও পূর্বে যুক্তরাষ্ট্রে লেখাপড়া করেছেন – বলেন, যে তারা এক মাস যাবৎ তার কোন খোঁজ পাচ্ছেন না।

যুক্তরাষ্ট্রে লেখাপড়া করা গু ইয়াই নামক কোওনের একজন বন্ধু বলেন যে, তিনি ৩০শে সেপ্টেম্বর কোওন এর কাছ থেকে “খারাপ কিছু ঘটেছে” বলে একটি বার্তা পান, এরপর থেকে তিনি তার সাথে যোগাযোগ করতে পারছেন না। ইয়ানজি পুলিশ ডিপার্টমেন্টের একজন কর্মকতা যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক রেডিও চ্যানেল ফ্রি এশিয়াকে বলেন, কোওন বর্তমানে পুলিশ এর তত্ত্বাবধানে রয়েছেন। হংকং ফ্রি প্রেস থেকে যোগাযোগ করা হলে একই ডিপার্টমেন্টের পুলিশ কর্মকর্তা যিনি ফোনের উত্তর দিয়েছিলেন তিনি কোওন এর আটকাবস্থার কথা জানাতে পারেননি।

গু বলেন, কোওন এর পূর্বে আটককৃত একজন মানবাধিকার আইনজীবিকে পোস্টকার্ড প্রেরণ করার পর রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তা কর্মকর্তারা তাকে প্রশ্ন করার জন্যে ডেকেছিলেন। গু রেডিও ফ্রি এশিয়াকে বলেন:

কিন্তু তারপর সে আমাকে ৩০শে সেপ্টেম্বর বলে যে, সে ওই টি-শার্ট পরিধান করার পরিকল্পনা করছে। আমি তাকে এটি করতে নিষেধ করেছিলাম, কিন্তু সে অটল ছিল […] আমরা চিন্তাও করিনি সে সমস্যার সম্মুখীন হতে পারে কারণ সে এর পূর্বেও এ ধরণের টিশার্ট পরিধান করেছিল।

কোওন সক্রিয়ভাবে টুইটারে চীনা মানবাধিকার আইনজীবিদের উপর নির্যতন, তিয়েনআনমেন হত্যাযজ্ঞ, তিব্বত, হংকং-এর স্বাধীনতা, মানবাধিকার, ও চীনা সরকারের বিরোদ্ধে অন্যান্য কার্যক্রমের বিরুদ্ধে সক্রিয় ছিলেন।

আমি অবশ্যই এটা দেখতে ভালবাসব যে ভবিষ্যতে একটি স্বাধীন হংকং জেগে উঠবে।

আগস্টের শেষের দিকে, কোওন টুইটারে টি-শার্টসহ টুইটারে তার নিজের একটি ছবি পোস্ট করেন যেটাতে লেখা ছিল, “জিটলার” ব্যাপারটি তিয়েনআনমেন স্কয়ারের সাবেক ছাত্রনেতা ও আন্দোলনকর্মী রোজ ট্যাং এর থেকে অনুপ্রানিত। “জিটলার” শব্দের নিচে লেখা রয়েছে চীনা একটি প্রবাদ, “জি বাওজি” (তপ্ত প**দেশ) ও “বেহিসেবী” – দুটোই চীনা রাষ্ট্রপ্রধানকে উল্লেখ করে লেখা। ছবিটির প্রেক্ষাপট সম্ভবত তার বাসস্থান সম্পর্কে কর্তৃপক্ষকে ধারণা দিয়েছিল।

ট্যাং কোওন এর গ্রেফতার সম্পর্কে বলেন:

তিনি খুবই কম সংখ্যাক চীনা যুবকদের মধ্যে অন্যতম যিনি তার আসল নাম ব্যবহার করে টুইটারে চীন সরকারের সমালোচনা করেছেন। বেইজিং বেশ কয়েক বছর ধরে চীনা টুইটার ব্যবহারকারীদের উপর নজরদারি করে আসছে কিন্তু তার ব্যাপারটি তরুণ টুইটার ব্যবহারকারীদের উপর নির্যাতনের মাত্রাকে একটি অন্যন্য উচ্চতায় নিয়ে গিয়েছে যা শি জিনপিং ক্ষমতাগ্রহণ করার পর থেকেই গণতন্ত্রকামী ও মানবাধিকার আন্দোলনের কণ্ঠগুলোকে কোণঠাসা করার চেষ্ঠাগুলোর মধ্যে একটি।

যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক চীনা ছাত্র সংগঠন ও বুদ্ধিজীবিগণ কোওন এর গ্রেফতার ও তার মুক্তির দাবিতে একটি যৌথ বিবৃতি দিয়েছে। গু পৃথিবীব্যাপী টি-শার্টটি পরিধাণরত অবস্থায় চীনা দূতাবাস ও মিশনগুলোর সামনে মানুষকে সংগঠিত করার চেষ্ঠা করছেন।

Xitler's T-shirt

জিটলারের টি-শার্ট

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .