বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

#আফ্রিকাযদিকোনপানশালাহত হ্যাশট্যাগ দিয়ে একে অন্যকে খোঁচা দিল আফ্রিকানরা

A public drinking place in Joe Slovo Park, Cape Town, South Africa. Creative Commons photo uploaded by Wikipedia user Discott.

দক্ষিণ আফ্রিকার কেপটাউনে অবস্থিত জো স্লোভো উদ্যানের একটি গণ পানীয় পানের স্থান। উইকিপিডিয়া ব্যবহারকারী ডিসকটের আপলোড করা ক্রিয়েটিভ কমন্স ছবি।

এমনও দিন এসেছে যে টুইটারে আফ্রিকানরা একে অপরের পেছনে লেগেছে। বতসোয়ানার একজন লেখক সিয়ান্ডা-পান্ডা একটি লক্ষ্যহীন টুইট দিয়ে শুরু করে #আফ্রিকাযদিএকটিপানশালাহতো শিরোনামের বেশ মজার এই হ্যাশট্যাগটিকে দ্রুত ছড়িয়ে দিয়েছেন।

সিয়ান্ডা প্রশ্ন করেছেনঃ

আফ্রিকা যদি একটি পানশালা হতো, তবে আপনার দেশ কি ধরণের মদ্যপান করত/ কি কি করত?

নাইজেরিয়ান এবং কেনিয়ানরা মনে হচ্ছে তাদের ন্যায্য ভাগই পেতঃ

কেনিয়ানরা এমন ব্যক্তি হতো যারা অন্যদের পানীয় হাতে নিয়ে ছবি তুলতো

কেনিয়ানরা পানশালা, বাইরে দাঁড়িয়ে থাকা ট্যাক্সিগুলো, পাশের কসাইখানা এবং রাস্তার ওপারের ওষুধের দোকানের মালিক হতো।

…নাইজেরিয়ানরা এমন ব্যক্তি হতো, যারা পানশালাটিতে এসে উপভোগ করার ক্ষেত্রে যথেষ্ট বুড়ো, তবে তাঁর একটি নকল পরিচয়পত্র আছে যাতে লেখা আছে তাঁর বয়স মাত্র ১৯ বছর।

নাইজেরিয়ানরা এমন এক মোটা ধনী ফুলবাবু হতেন, যারা পানশালাতে উপস্থিত প্রতিটি মেয়ের সাথে নাচতে চেষ্টা করতো।

নাইজেরিয়ানরা এমন এক ঝগড়াটে লোক হতেন, যারা সবসময় অন্যদের মনোযোগ আকর্ষণের চেষ্টা করতেন।

নাইজেরিয়ানরা হবেন সেই পানশালার ডিজে।

@নানজালা১ এর মতে, মাদাগাস্কার কোন এক শান্ত লোকঃ

মাদাগাস্কার এমন এক মেয়ে হবে, যিনি একা এসেছেন, মদ্যপান করেছেন এবং নেচেছেন এবং কেউ তাঁকে লক্ষ্য করার আগেই কেটে পড়েছেন।

@ক্যাপ্টেইন_এফবিএস টুইট করেছেন, জিম্বাবুয়ে হয়তো অতীতে আটকে থাকবেঃ

জিম্বাবুয়েনরা এমন এক লোক হবেন, যারা “যখন আমার হাতে টাকা ছিল, তখনকার দিনে ফিরে যাই” মনোভাব দেখিয়ে সবাইকে বিরক্ত করে।

তানজানিয়ানদের প্রতি কিছু কৌতুকের গুঁতা ছিলঃ

…তানজানিয়ানরা হয়তো তেমন একদল মেয়ে হবে, যাদের সারা রাত কেউ আমলে নেবে না কিন্তু তাঁরা যেকোন ভাবেই এটিকে সফল “মেয়েদের বাইরে রাত কাটানো” হিসেবে দাবি জানাতে পারে।

তানজানিয়ানরা হয়তো এমন এক লোক হবেন, যারা মাতাল হলে ইংরেজি এলোমেলো হয়ে যায়।

@ক্রিসপোজার পরিহাস করে বলেছেন, ইথিওপিয়ানদের বিল নিয়ে কোন চিন্তা করতে হবে নাঃ

সবাই ইথিওপিয়ায় পানীয় পাঠিয়ে দেবেঃ

এমনকি বোকো হারাম সেই পানশালায় উপস্থিত থাকবেঃ

বোকো হারাম মেয়েদের পার্টিতে এমন পোশাকে আসবে…

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, চীন এবং ইউরোপকে টুইটে টেনে আনা হবেঃ

ইউরোপ এবং চীন খুব বেশি মাতাল হয়ে পড়বে…

#আফ্রিকাযদিকোনপানশালাহত কোন বিলাসবহুল হোটেলে – তবে হ্যাঙলা পাতলা সাদা চামড়ার অনেক বৃদ্ধ জায়গাটাকে ভয়ার্ত করে তুলতেন।

আমেরিকান এবং ইউরোপিয়ানরা অত্যধিক মদ্যপান সম্পর্কে সবাইকে ডেকে শিক্ষাদান করতেন, কিন্তু নিজেরা ঠিকই মদের গ্লাস পূর্ণ করে নিতেন।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .