বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

অনলাইনে হুমকি পাবার পরে ইস্তাম্বুলের বাড়িতে ছুরিকাহত হলেন সিরিয়ান ব্লগার

Blogger Asaad Hanna receiving treatment at an Istanbul hospital after being stabbed in his home earlier today. Photo credit: Asaad Hanna's Facebook page

গত রাতে নিজ বাড়িতে ছুরিকাহত হওয়ার পর ইস্তাম্বুলের একটি হাসপাতালে চিকিৎসা নিলেন ব্লগার আসাদ হান্না। আসাদ হান্নার ফেসবুক পেজ থেকে ছবিটি নেয়া হয়েছে।

সিরিয়ান ব্লগার, সাংবাদিক এবং গ্লোবাল ভয়েসেস-এর লেখক আসাদ হান্না গত রাতে তুরস্কের ইস্তাম্বুলের নিজ বাড়িতে ছুরিকাহত হয়েছেন। দুষ্কৃতকারী তার পেটে চারবার ছুরিকাঘাত করে।

হান্না ফেসবুকে লিখেন:

تعرضت مساء امس لهجوم على بيتي من شخص مجهول ضربني بشي حاد ببطني اربع طعنات مما سبب دخولي للمشفى وخرجت قبل قليل للمنزل
لا اتهم احد بالموضوع لكن لا استطيع ان اقول انها صدفة، فالفاعل طرق الباب وضربني ولم يسرق شيئ من البيت، وكان قد سبق عدة جهات وان ارسلت لي تهديدات.
انا بصحة جيدة وقمت بتقديم ضبط للشرطة

গত রাতে আমি আমার বাড়িতে আক্রান্ত হয়েছিলাম। একজন অজ্ঞাত পরিচয়ধারী ব্যক্তি আমার পেটে চারবার ছুরি মেরেছে। হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা নিয়ে মাত্রই বাড়ি ফিরেছি। আমি কারো বিরুদ্ধেই অভিযোগ করছি না। তবে এও বলতে পারছি না যে আততায়ী কাকতালীয়ভাবে আমার দরজায় এসেছিল, আমাকে আঘাত করেছিল। আমার বাড়ি থেকে কিছুই চুরি যায়নি। তাছাড়া এর আগে আমি বিভিন্ন জায়গা থেকে হুমকি পেয়েছিলাম।

আমি এখন ভালো আছি। পুলিশের কাছে অভিযোগ দাখিল করেছি।

হান্না হোমসের বাসিন্দা। মানবাধিকারকর্মী। সিরিয়ায় যুদ্ধ শুরু হলে সেখান থেকে তুরস্কে পালিয়ে আসেন। এখন ফ্রিল্যান্স সাংবাদিকতা করছেন।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .