বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ফটোগ্রাফার প্রদর্শন করেছে সিঙ্গাপুরের ভীড়ে ভারাক্রান্ত ট্রেনে চড়ার অনুভূতি

transit photos

২০১১ সাল থেকে ফটোগ্রাফার এডউইন কোও “সমাজের সামগ্রিক এক চিত্র আঁকার” জন্য সিঙ্গাপুরের গণ পরিবহন বা কমিউটার ট্রেন-এর (ম্যাস র‍্যাপিড ট্রান্সপোর্ট ওরফে এমআরটি) যাত্রীদের ছবি তোলা শুরু করেন।

বিশেষত, তিনি “প্রতিদিন ট্রেনের দরজায় যে নাটকীয়তা তৈরী হয় তার দৃশ্য ধারণ করেন”, যেখানে কামরার “একেবারে কিনারায় অনেকে গাদাগাদি করে থাকতে বাধ্য হয়”, কারণ ট্রেনের প্রতিটি বগি অতিরিক্ত যাত্রীতে পরিপূর্ণ হয়ে থাকে। দেশটিতে প্রায় ২৮ লক্ষ এমআরটির যাত্রী রয়েছে এবং এদের অনেকে এই পরিবহন সেবার মান উন্নয়নে সরকারের কাছে দাবি জানাচ্ছে:

আমি সেই সমস্ত নাগরিকদের ছবি তুলেছি যারা ট্রেনের দরজার কিনারায় ঝুলতে বাধ্য হয়, যে সমস্ত ছবিতে ধরা পড়ে যে পরিস্থিতি কতটা ঝুঁকিকপূর্ণ। হতাশা এবং বিচ্ছিন্নতাবোধের দৃশ্যাবলী থেকে এই সমস্ত ছবির জন্ম।

প্রতিবার যখন যাত্রীতে ঠাসা ট্রেনের দরজা খোল ও বন্ধ হয়, তখন পুনরায় সেই একই নাটকীয় দৃশ্যের অবতারণা ঘটে, আকর্ষণীয় চরিত্রের আগমন, বৈচিত্র্যময় জীবনের এবং অগণিত আবেগের সঞ্চার ঘটে। ক্যামেরা আমাকে সেই সুযোগটি প্রদান করে যা আমার চোখ হয়ত এড়িয়ে যেতে পারে-সিঙ্গাপুরের এক সামগ্রিক চিত্র, যা সবসময় গতিশীল।

এডউইন ব্যাখ্যা করেছে, কেন তিনি অপরিচিত ব্যক্তিদের ছবি তুলেন এবং বিষয়টিকে কমিউটার ট্রেনের সহযাত্রীরা কি ভাবে দেখে তা তিনি তাদের কাছ থেকে বুঝতে চান:

এটা হচ্ছে এই প্রকল্পের ধরনঃ অকপট, ক্ষণস্থায়ী, কোন পুনরাবৃত্তি নেই, কোন বিকল্প নেই- অন্তত এখন পর্যন্ত। সকল প্রকার ছবি এমন ভাবে তোলা হয়েছে, সব ছবিতে হয় আপনি নয়তো আমি রয়েছি। আমরা সকলে গতিশীল, ২৮ লক্ষ নাগরিকের সকলে।

…এই পরিবহনের ছবিগুলো আত্মতৃপ্তির জন্য করা কোন কাজ নয়, এটা কোন ক্ষতি করার অস্ত্র নয় এবং নিশ্চিতভাবে এটা ক্ষণিক সময়ে দোষারোপের উপাদান নয়। এই ছবিগুলো হচ্ছে আজকে আমরা যে সমাজে বাস করি তার এক সামগ্রিক চিত্র।

নীচে কিছু ছবি প্রদর্শন করা হয়েছে যা এডুইন তার ফেসবুকে আপলোড করেছে:

singapore train

transit singapore

transit

transit photo

commuter train

এডউইনের ছবিগুলো ট্রানজিট নামের এক বইয়ে সংকলন করা হবে যা এই সপ্তাহে প্রকাশিত হবে। তিনি তার পাঠকদের নিশ্চিত করেছে যে এই বই থেকে তিনি কোন লাভ করবে না।

সকল ছবি ট্রানজিট নামক বই থেকে নেওয়া, অনুমতিক্রমে ব্যবহার করা হয়েছে। যদি কোন এমআরটি কমিউটার ট্রেন কোম্পানি অনুরোধ জানায় তাহলে ছবি কিছু ছবি হয়ত সরিয়ে নেওয়া হতে পারে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .