বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

আইনজীবীদের টুইট নিরীক্ষণ করছে সৌদি আরব

আইনজীবীরা যাতে আইন ভাঙতে না পারেন সে লক্ষে তাদের টুইট নিরীক্ষণ করছে সৌদি সরকার। একটি সৌদি সরকারী বিবৃত অনুযায়ী, “আপত্তিকর” আইনজীবীরা তাদের টুইটের তীব্রতা অনুযায়ী শাস্তি পাবেন।

আরবি দৈনিক আল শারাককে বিচার মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ফাহাদ আল বারকান বলেন, সমস্ত আইনজীবীদের তাদের “আচরণ এবং আগ্রহ” এর জন্য নিরীক্ষণ করা হচ্ছে। তিনি আরও বলেনঃ

আইনজীবীদের পর্যবেক্ষণের মাধ্যমে অভিযোগ আনার কোন বিশেষ ডেস্ক নেই। কিন্তু, তাদের টুইট এবং আইন ভাঙ্গার সাথে সম্পর্কিত নির্দিষ্ট ক্ষেত্রে তারা কি আলোচনা করছেন আমরা তা নিরীক্ষণ করছি।

তিনি আরও যোগ করেন, শাস্তির ধরণ সতর্কবার্তা জারি করা থেকে তাদের লাইসেন্স প্রত্যাহারের মতো বিভিন্ন ধরণের হবে।

টুইটারে সৌদি নেটিজেনরা # العدل _ تراقب _ تغريدات _ المحامين আরবি হ্যাশট্যাগের অধীনে তাঁদের বিষাদাগার ঢেলেছেন, যার অনুবাদ করলে অর্থ দাঁড়ায়, বিচার মন্ত্রণালয় আইনজীবীদের টুইট নিরীক্ষণ করছে।

সৌদি বিচার মন্ত্রণালয়কে দেশের সবচেয়ে খারাপ মন্ত্রণালয় হিসাবে ইসাম আল জামিল বর্ণনা করেছেন। তিনি টুইট [আরবী ভাষায়] করেন:

বিচার মন্ত্রণালয় – সবচেয়ে খারাপ এক মন্ত্রণালয় – খারাপ কাজগুলো দূর করে উন্নতি করার উপর মনোযোগ নিবদ্ধ না করে এটি এর আইনজীবীদের টুইটার নিরীক্ষণ করে সময় অপচয় করছে।

খালিদ আল বাবতান আরও লিখেছেনঃ

আইনজীবীরা টুইটারে কি করছে তাঁর ওপর পর্যবেক্ষণ না করে, উত্থাপিত মামলা এবং বিষয়গুলো, যেগুলো সমাধান করলে উপকৃত হওয়া যাবে [সমাধানের ক্ষেত্রে] সেগুলো অনুসরণ করা উচিত ।

সৌদি আইনজীবী বদর আল নাকেথান টুইট করেছেন:

বিচার মন্ত্রণালয়ের সরকারী মুখপাত্রের এটি একটি হাস্যকর বিবৃতি। এটা আইনজীবী এবং [সৌদি আরব] কিংডমের খ্যাতির জন্য খারাপ এবং এটি পাস করার অনুমতি দেওয়া উচিত নয় । আমাদের সভা রাত ৯ টা থেকে।

এবং মোহাম্মদ আল ইব্রাহিম তার টুইটে সাড়া দিয়েছেন:

শাসন ​​বর্বরতা থেকে আমাদের রক্ষা করার জন্য আইন প্রয়োগকারী আইনজীবি হিসাবে, আপনি যদি ভয় পান, তাহলে তাঁদের দেশে আর কি অবশিষ্ট আছে ? এই দেশে কোন দিকে যাচ্ছে ?

ইব্রাহিম আল দোসারি অনুমান করেছেন, জনগণের অধিকার সম্পর্কে তাদের মধ্যে সচেতনতা তৈরি করা থেকে নিরস্ত করার জন্য, আইনজীবীরা নির্মমভাবে পীড়নের শিকার হচ্ছেন। তিনি লিখেছেনঃ

আইনজীবীদের টুইটে কেন তারা ভীত হচ্ছে ? কারণ, আইনজীবীরা মানুষের অধিকার সম্পর্কে তাদের সচেতন করে।

সৌদি আরবে আইনজীবীদের কোন সংগঠন না থাকায় তাঁরা অসহায় হয়ে পড়েছেন বলে সুলতান অ্যাটলাস বলেছেন:

অধিকার এবং তাদের রক্ষার জন্য আইনজীবীদের যদি একটি পেশাদারী সংগঠন থাকত, তবে বিচার মন্ত্রণালয় তাদের হুমকি দেবার সাহস পেত না।

আবদুল্লাহ আল জেব্রিন বিস্ময় প্রকাশ করেছেন:

তাঁরা কি ধরনের ​​মানুষ এবং কোন বিশ্বে তারা বসবাস করেন ? দীর্ঘ মুক্ত চিন্তার জন্য রাষ্ট্র তাঁকে অনুমতি দিয়েছে এবং তারা সেই মুক্ত শব্দকে খুন করছে।

এবং ইনিস্তিয়ান আরব মজা করেছেন:

টুইট করার সময় আইনজীবীদের সতর্কতা অবলম্বন করা উচিত।  আমরাও তাদের উপদেশ দিই যে, আপনাদের টুইটের মধ্যে বিচার মন্ত্রীর প্রশংসা এবং তোষামোদ করুন।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .