বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

সৌদি আরবঃ সিরিয়ার জন্য তহবিল সংগ্রহকে না বলা হয়েছে

সৌদি আরবের ধর্মীয় পণ্ডিতরা সিরিয়ার জন্য অর্থ সংগ্রহে নিষেধাজ্ঞা জারির ঘটনায় তাদের হতাশা প্রকাশ করার জন্য টুইটারকে একটি আওয়াজ সৃষ্টিকারী মাধ্যম হিসেবে ব্যবহার করছে।

বিশ্বের অনেক স্থানে বিভিন্ন ধরনের দাতব্য কাজের মাধ্যমে সিরিয়ার সরকার বিরোধী রাজনৈতিক এবং সামরিক অঙ্গ সংগঠনের জন্য অর্থ সংগ্রহের বিষয়টি গতি লাভ করেছে। বিশেষ করে হোউলা গণহত্যার পর তহবিল সংগ্রহ অভিযানে আরো গতিবৃদ্ধি ঘটে। একই সময়ে সৌদি কর্তৃপক্ষ সিরিয়ার জন্য অর্থ সংগ্রহের উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। অন্যদিকে কুয়েত এই অর্থ সংগ্রহের প্রচেষ্টা বিষয়ক অভিযান আরো জোরালো করেছে। সৌদি ধর্মীয় নেতারা তহবিল সংগ্রহের নিষেধাজ্ঞার বিষয়ে টুইট করেছে, আর এই বিস্ময়কর সিদ্ধান্তের বিষয়ে সৌদি নেট নাগরিকরা তাদের ক্ষোভ প্রকাশ করেছে।

সিরিয়ার জন্য তহবিল সংগ্রহের নিষেধাজ্ঞায় সৌদি আরবের শেখেরা

সিরিয়াকে রক্ষার জন্য সৌদি আরবে তহবিল সংগ্রহের উদ্দেশ্য তৈরী করা পোষ্টার দেশটিকে রক্ষার জন্য স্থানীয় পর্যায়ের কমিটির সংখ্যা প্রদর্শন করছে।

সিরিয়াকে রক্ষা করার জন্য বিদ্বানদের কমিটির সকল সদস্যকে কর্তৃপক্ষ আনুষ্ঠানিকভাবে ভাবে ডেকে সিরিয়ার জন্য তহবিল সংগ্রহের প্রচেষ্টা বন্ধ করতে বলে। সৌদি ইমাম মুহাম্মদ আল আরিফি টুইট করেছে [আরবী ভাষায়]:

@MohamadAlarefe: خرجت الآن من إمارة الرياض قضيت ساعتين وقّعت بعدها تعهداً بعدم جمع التبرعات لسوريا.. أرجو ممن عزم المجيء لجامع البواردي للتبرع ألا يكلف نفسه
রিয়াদের আমিরাত ভবনে দুই ঘন্টা কাটিয়ে এবং সিরিয়ার জন্য তহবিল সংগ্রহ না করার এক অঙ্গীকার নামায় স্বাক্ষর করে আমি এইমাত্র ফিরলাম। আমি তাদেরকে উদ্দেশ্য করে বলছি যারা আল বাওয়ারদি মসজিদে দান করার জন্য আসবে, তারা যেন এই কাজে ক্লান্তি অনুভব না করে।

আলি বাদাহদা তার নিজের কাহিনী বর্ণনা করছে:

@AliBadahdah: تم استدعائي من قبل مكتب مدير شرطة منطقة مكة المكرمة وأبلغوني بورود برقية من الأمارة بطلب التعهد بعدم استقبال التبرعات وقد تم امتثالا للتوجيه
পবিত্র মক্কার মেট্রো এলাকার পুলিশ প্রধানের অফিসে আমাকে তলব করা হয়। তারা আমাকে মক্কার আমিরাত ভবন থেকে টেলিগ্রামের মাধ্যমে তলব করে আমার কাছে একটি অঙ্গীকারপত্র দাবী করে, যেন আমি দান সংগ্রহ না করি এবং এই আদেশ মেনে চলি।

হোসাইন আল হোমাইদ বলছে:

@halhomaid: تم استدعائي للمباحث بشأن تبرعات سوريا
সিরিয়ার জন্য তহবিল সংগ্রহের ঘটনায় অপরাধ তদন্ত বিভাগ আমাকে তলব করে।

আর্কড থেকে আসা নীচের এই ভিডিওটি আরবের বিভিন্ন এলাকার ইমামদের সিরিয়ার জন্য তহবিল সংগ্রহের ঘটনার বিষয়ে স্বাক্ষ্য প্রদান করছে:

http://www.youtube.com/watch?v=TlM-LePb0WU&

এই নিষেধাজ্ঞার বিষয়ে নেট নাগরিকদের প্রতিক্রিয়া

আবদুলরাহমান আল রাশাদ টুইট করেছে:

@ARalabdullatif: الهجوم على الدعاة الذين تقدموا بمبادرة جمع التبرعات للشعب السوري متوقع .حملة للشماتة ولاهداف غير بريئة .ولا يصح الا الصحيح, والزمن كشاف !
যারা সিরিয়া নাগরিকদের জন্য তহবিল সংগ্রহ উদ্যোগ গ্রহণ করেছ, সেই সমস্ত ইমামদের উপর আসা আক্রমণের বিষয়টি পূর্ব থেকে অনুমান করা যায়। এটা সংকীর্ণ প্রচারণা, যার উদ্দেশ্য অসৎ এবং সময় বিষয়টি পরিষ্কার করবে।

সৌদি শেখ আবদুলআজিজ তারেফ, সিরীয় বিদ্রোহীদের প্রতি তার সমর্থনে এই বলে টুইট করেছেন:

@abdulaziztarefe: نصرة المُستضعفين في سوريا واجب أمة قبل أن يكون واجب دولة. قال النبي لمظلوم مغلوب: (استعن عليه بمن حولك من المسلمين.. استعن عليه بالسلطان)
সিরিয়ায় যারা অসহায়, মুসলমান উম্মাহর দায়িত্ব [সম্প্রদায়ের] রাষ্ট্রের আগে তাদের প্রতি হাত বাড়িয়ে দেওয়া। রাসুল একজন অসহায় ব্যক্তির জন্য তা করতে বলেছেন (আপনাদের চারপাশে যে সমস্ত মুসলমান আছে তাদের সাহায্য করুন… শাসকের সাহায্য নিন)।

ইউসুফ আল হাজেরি টুইট করেছে:

@ABO3ADL:لما أصابت الزلازل بلاد الكفار تسابقت الأموال لهم وتراق دماء أطفال المسلمين فتمنع الأموال لإنقاذهم تبا لكم ‎‫#مجزرة_الحولة‬‏ ‎‫#منع_التبرعات‬‏
যখন এমন কোথাও ভূমিকম্প সংগঠিত হয়, যেখানকার নাগরিকরা অবিশ্বাসী, তখন দ্রুত সেখানে টাকা পৌঁছে যায়, আর যখন মুসলমান শিশুদের রক্তে সব ঢেকে যায়, তখন সেখান থেকে টাকা সরিয়ে নেওয়া হয়। গোল্লায় যাক।

মোহাম্মদ আল হোদাইফ, এর সাথে আনুগত্যহীনতা যুক্ত করেছে:

@mohmd_alhodaif: #منع_التبرعات‬‏ يمنعون التبرعات،أو يسمحون بها، ستصل ل(أهلها).مايحدث في سوريا تحركه يد الله. إرادته سبحانه تشاء،أن الأمة،وليس روسيا،تصنع الحدث
আদৌ কি তারা [আরব উপসাগরীয় অঞ্চলের কয়েকটি সরকার] তহবিল সংগ্রহকে নিষিদ্ধ করবে, নাকি এই উদ্যোগ চালিয়ে যেতে দেবে, জনগণের হাতে পৌঁছে দিতে। সিরিয়ায় যা ঘটছে তা ঈশ্বরের ইচ্ছায় ঘটছে হচ্ছে। এটা হচ্ছে উম্মাহ, রাশিয়া নয়, যারা সেখানে এই ঘটনা ঘটাচ্ছে।

মিশরীয় লেখক ফিদেল সোলেইমান এই নিষিদ্ধ করার কারণে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানাচ্ছে:

@FadelSoliman: إن لم تهبوا لنجدة أطفال الشام بأنفسكم فعلى الأقل لا تمنعوا تسليح المقاومة و إطعام اللاجئين يا نساء بعمائم و لحى. ‎‫#منع_التبرعات‬
যদি আপনারা লেভান্তের শিশুদের নিজেরাই দ্রুত উদ্ধার করতে না যান, তাহলে অন্তত প্রতিরোধকারীদের সশস্ত্র হতে দিন এবং উদ্বাস্তুদের খাবার দিন, পাগড়ি মাথায় এবং দাড়ি মুখে আপনি এক রমণী।

মোহাম্মদ এল হাজেরি টুইট করেছে:

@moha1976: جاءتني خادمتي سيلانية مسلمة بدينارين ونصف تتبرع بها لسوريا أحسست بعزة الاسلام وتمنيت أن الزعماءوالتجار يملكون غيرتها على دينها ‎‫#اغيثوا_سوريا‬‏
আমার বাসার গৃহকর্মী শ্রীলঙ্কার এক মুসলমান মেয়ে, সে সিরিয়ার নাগরিকদের অর্থদান করার জন্য আড়াই দিনার নিয়ে আমার কাছে এলো। আমি ইসলামের গৌরবের বিষয়টি অনুভব করলাম । আমি আশা করি, উক্ত গৃহকর্মীর যেমন নিজ ধর্মের প্রতি যে মর্যাদা রয়েছে, নেতৃবৃন্দ এবং ব্যাবসায়ীদের মাঝেও তেমনটা থাকবে।

সৌদি আরবের ইমাম সালমান আল-ওউদা নাগরিকদের সিরিয়ার ঘটনার ক্ষেত্রে দান করার জন্য উৎসাহ প্রদান করছে :

@salman_alodah: لكل من يرغب بدعم الجيش السوري الحر.. العطشان يكسر الحوض! ‎‫#سوريا‬‏ ‎‫#الشعب_يريد_تسليح_الجيش_الحر‬‏ ‎‫#ماذا_نفعل_لسوريا‬‏ ‎‫#مجزرة_الحولة‬‏ ‎‫#منع_التبرعات‬‏
যারা ফ্রি সিরিয়ান আর্মিকে সমর্থন করে, তারা নিষেধাজ্ঞার বেড়াজাল ভেঙ্গে ফেলুক।

এদিকে সাংবাদিক হাসান হাসান এই নিষেধাজ্ঞার পেছনের মুল কারণ ব্যাখ্যা করছে:

@এইচহাসান১৪০:#সৌদিআরব দুটি কারণে #সিরিয়ার জন্য তহবিল সংগ্রহের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে; ইমাম তথা ধর্মীয় নেতার এই প্রচারণার আয়োজক, যারা বলছে যে রাষ্ট্রীয় উদ্যোগের জন্য অপেক্ষা করার দরকার নাই, আর তারা তাদের মত করে সাহায্য করতে চাচ্ছে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .