বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

প্যালেস্টাইন: কারাবন্দীদের গণ অনশন

ইজরায়েলী কারাগারের পরিবেশের বিরুদ্ধে ফিলিস্তিনি কারাবন্দীরা ১৭ এপ্রিল তারিখ থেকে এক গণ অনশন শুরু করে। শুরুতে যা ছিল মাত্র মাত্র কয়েকজনের প্রতিবাদ, এখন তা বৃদ্ধি পেয়ে হাজার হাজার অংশগ্রহণকারীতে পরিণত হয়েছে, ( তারতম্য ভেদে অংশগ্রহণকারীর সংখ্যা ১,৪০০ থেকে ৩,০০০ জন)। বেশ কয়েকজন বন্দী যারা প্রথম থেকে অনশন করে আসছে তাদের অনেকে এখন মৃত্যুর হুমকির মুখে

ইজরায়েলে-এর বিভিন্ন কারাগারে প্রায় ৪,০০০-এর বেশী ফিলিস্তিনি কারাবন্দী রয়েছে, এবং এদের মধ্যে প্রায় ৩২০ জনকে কোন ধরনের অভিযোগ ছাড়া অথবা তথাকথিত প্রশাসনিক গ্রেফতারের নামে বিচারাধীন অবস্থায় আটকে রাখা হয়েছে।

বছর যত গড়িয়েছে, ইজরায়েলে-এর কারাগারগুলো পরিবেশ তত খারাপ হয়েছে। কারাবন্দীরা নিঃসঙ্গ কারাকক্ষের ব্যবস্থা, প্রশাসনিক গ্রেফতার এবং কারাগারে নেওয়া বিভিন্ন শাস্তিমূলক ব্যবস্থার পরিসমাপ্তির দাবী জানাচ্ছে অতীতেও এই ধরনের প্রতিবাদ করা হয়েছে, কিন্তু এবারের অনশনের প্রেক্ষাপট ভিন্ন, বিশ্ব জুড়ে ছড়িয়ে পড়া খাদের আদনান-এর অনশনের ঘটনার পর এই অনশন শুরু হয়েছে।

ব্লগার এবং সাংবাদিক জোসেফ ডানা, ফ্রেব্রুয়ারিতে আদনানের ঘটনা সম্বন্ধে লিখেছিল:

আদনানের ঘটনা প্রশাসনিক গ্রেফতারের এক প্রতীকী উদাহরণ, অনেক ফিলিস্তিনি নাগরিকের যে অভিজ্ঞতা রয়েছে। সে দাবী করেছিল যে আটক অবস্থায় ইজরায়েলী সেনার তাকে প্রহার এবং অপমান করে। আর এর প্রতিবাদে সে অনশন ধর্মঘট শুরু করে।

বিলাল ধিয়াব এবং আমাদের সকল কারাবন্দীদের মুক্তি চাই। ‘উই আর অল হান্না সালাবি’ নামক ফেসবুকের পাতা থেকে নেওয়া হয়েছে।

একটানা ৬৬ দিন অনশনের পর, ১৭ এপ্রিল তারিখে যখন ইজরায়েলী কর্তৃপক্ষ তাকে মুক্তি দিতে রাজী হয় তখন ফেব্রুয়ারি মাসে খাদের আদনান এর ইতি টানেন। আরেকজন কারাবন্দী ৪০ দিন একটানা অনশনের পর তখন তার এই অনশনের ইতি টানেন, যখন ইজরায়েলী কর্তৃপক্ষ তাকে তিন বছরের জন্য গাজা থেকে বহিষ্কার করে

বর্তমান অনশন ধর্মঘটের ঘটনায়, দুই কারাবন্দী, বিলাল ধিয়াব এবং থায়ার হালাহেলে, এখন ক্রমশ মৃত্যুর দিকে এগিয়ে যাচ্ছে।

টুইটার হ্যাশট্যাগ # প্যালহাঙ্গারে গিয়ে আপনি এই অনশন সম্বন্ধে এবং এর প্রতি একাত্মতা প্রকাশ করে যে সব কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে, সে সবের বিষয়ে জানতে পারবেন।

রামাল্লা ভিত্তিক কারাবন্দী সমর্থক এবং মানবাধিকার সংস্থা আডড্যামির এই অনশন সম্পর্কে তাজা সংবাদ টুইট করছে।

@আডড্যামির_পিএস: ওহালেই কেইদার কারাগারে অনশনরত কারাবন্দীর সকলকে নিঃসঙ্গ কারাকক্ষে প্রেরণ করা হয়েছে, একটি কারাকক্ষে ২ জন করে বন্দীকে রাখা হয়েছে। #প্যালহাঙ্গার

@আডড্যামির_পিএস: ওফের কারাগারের ২২০ জন কারাবন্দী অনশন ধর্মঘট পালন করছে। #প্যালহাঙ্গার

@আডড্যামির_পিএস: এশেল কারাগারে ১০৫ জন কারাবন্দীর সকলেই অনশনে অংশ নিচ্ছে। #প্যালহাঙ্গার

@আডড্যামির_ পিএস: নাকাব কারাগারে অনশনরত কারাবন্দীদের ক্ষেত্রে প্রতিদিন জোর করে তল্লাশী চলানো হচ্ছে, এর মধ্যে তাদের কারাকক্ষে হামলা চালানো এবং দেহতল্লাশি অর্ন্তভুক্ত। #প্যালহাঙ্গার

@আডড্যামির_ পিএস: আডড্যামির, হিসেব করে দেখা গেছে যে বর্তমানে প্রায় ২,০০০ থেকে ২,৫০০ জন কারাবন্দী অনশন পালন করছে, কিন্তু সংখ্যাটি এর চেয়ে বেশী হতে পারে। #প্যালহাঙ্গার

গাজার, ওয়ালা এল ঘুশিয়েন টুইট করেছে:

@ওয়ালজিএইচ: আমার খালার প্রেমিক ২০ দিন ধরে অনশন ধর্মঘট পালন করে যাচ্ছে। আমার খালা তাকে বিয়ে করতে চায়, সে চায় না তার প্রেমিক মৃত্যুবরণ করুক! #প্যালহাঙ্গার # প্যালেস্টাইন

একটিভিস্ট আলি আবু নিমাহ মন্তব্য করেছে:

@ আলিআবুনিমাহ : পশ্চিমের প্রচার মাধ্যম সব সময় “ফিলিস্তিনি নাগরিকদের গান্ধীর মত হবার” দাবী জানায়, আর এখন, যে সময় ২০০০ জন রাজনৈতিক বন্দী অনশন ধর্মঘট পালন করছে, তখন তারা এই সংবাদ উপেক্ষা করছে। #প্যালহাঙ্গার

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .