বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

মিশর: কাঁদানে গ্যাসের আমদানী যুক্তরাষ্ট্র সম্পর্কে প্রশ্ন তুলেছে

এই পোস্টটি আমাদের মিশর বিপ্লব ২০১১ সংক্রান্ত বিশেষ কভারেজের অংশ।

ভূতপূর্ব মিশরীয় রাষ্ট্রপতি হোসনি মোবারক ক্ষমতা ছেড়ে দেয়ার বেশ কয়েক মাস পরে খবর এসেছিল যে নতুন ধরনের কাঁদানে গ্যাসের কারনে বেশ কিছু মানুষ দম বন্ধ হয়ে মারা গেছেন। মিশরীয় পুলিশ যে নতুন ধরনের কাঁদানে গ্যাসটি ব্যবহার করেছে তা মাত্র কয়েক দিন আগে যুক্তরাষ্ট্র থেকে সুয়েজ বন্দরে এসেছে।

Photo shared by Shadizm on Facebook.

ছবি ফেসবুক থেকে Photo shared by Shadizm on Facebook.

আল আহ্রাম আরবী দৈনিকের খবরে জানা গেছে যে সুয়েজের কাস্টমসের লোকেরা একটি চালান নিতে অস্বীকার করেছে যার মধ্যে বেশ কয়েকটি কন্টেইনার ছিল যার প্রতিটিতে সাত টন করে কাঁদানে গ্যাস ছিল। এ সংবাদ জানার পর সামাজিক নেটওয়ার্কিং সাইটে আলোড়নের সৃষ্টি হয়েছে। এখানে টুইটারের কথোপকথনের অংশ বিশেষ:

@সাইফেরাইজ: ৭ টন ওজনের কাঁদানে গ্যাসের নতুন চালান এসে পৌঁছেছে #কায়রো #সুয়েজ থেকে আর এটা রেখেছে #এমওয়াই। আর একটি আক্রমনের জন্য প্রস্তুত হোন।

রাশাআব্দুল্লাহ: তাহলে দৃশ্যত: ৭ টন কাঁদানী গ্যাসের চালান যুক্তরাষ্ট্র থেকে মিশরে – যা ৩টির ১টি মাত্র। মোট ২১ টন চালান!!

@শরিফকুদ্দুস: সুয়েজ কাঁপছে। সুয়েজ বন্দরের কর্মীরা যুক্তরাষ্ট্র থেকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের মজুদ ভরার জন্য পাঠানো ৭ টন কাঁদানে গ্যাস খালাশ করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে।

পরে মানুষ বুঝেছিল যে কর্মীদের বিরুদ্ধে তদন্ত করা হবে এই চালান না গ্রহন করার জন্য:

احالة موظفي جمرك ميناء السويس للتحقيق الان لرفضهم استلام شحنة غاز مسيل للدموع خاصة بالداخلية
@৩য়ালেলহাওয়া: সুযেজ কাস্টমস এর কর্মীরা তদন্তের মধ্যে পড়বেন কাঁদানী গ্যাসের চালান না গ্রহন করার জন্য।

নেট নাগরিকেরা সরকারের ইচ্ছার কথা চিন্তা করেও চিন্তিত:

@ইল্কাম্মার: আমি আমার সরকারকে অর্থ দিচ্ছি ভালো কাঁদানে গ্যাস পাওয়ার জন্য, আমাকে আর আমার ভাইকে মারার ভালো রাস্তার জন্য

আর সেই কর্মীদের সাথে তাদের একাত্মতা দেখানোর জন্য, অনেক টুইটার ব্যবহারকারী নীচের বার্তাটা ব্যবহার করেছেন:

أعلن أنا تضامني الكامل مع موظفي جمرك ميناء السويس الذين يتم التحقيق معهم الان لرفضهم استلام شحنة غاز مسيل للدموع للداخلية مصرية
@আহমেদ হোস্নি এস: আমি আমার পূর্ণ সমর্থন জানাচ্ছি সুয়েজ কাস্টমসে কাজ করা কর্মীদের সাথে যাদেরকে এখন জিজ্ঞাসা করা হচ্ছে মিশরীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের আনানো কাঁদানে গ্যাসে চালান গ্রহন না করার জন্য।

অন্যরা অন্যান্য মিশরীয় বন্দরে থাকা কর্মীদের একই আহ্বান জানিয়েছেন:

@এনোনিঅপস: মিশরীয় বন্দরের কর্মীদের কাছে খবর পৌঁছে দিন। বন্দরে কাঁদানে গ্যাসকে প্রত্যাখান করুন!

এই চালানের কাঁদানে গ্যাসের বোমা যুক্তরাষ্ট্র তৈরি হয়েছে, যার কারনে মানুষ ভাবছে যে কিভাবে যুক্তরাষ্ট্র দাবি করে আরব বিশ্বের বিপ্লবকে সমর্থন করার আর একই সাথে এলাকার স্বৈরশাসকদের সমর্থন করে।

@ফ্রেডিদেকনাটেল: কিন্তু তাহলে কি বলা হয়, যখন সুয়েজ বন্দরে ‘যুক্তরাষ্ট্র তৈরি’ সিল দেয়া কাঁদানে গ্যাসের চালান এসে পৌঁছায়?

@ওয়ালিদরাশেদ: যুক্তরাষ্ট্র আর ইউরোপের সরকারের প্রতি: আমরা কি করে মিশরে গণতন্ত্র উজ্জীবিত করতে পারি এটা না জিজ্ঞাসা করে, কেবল ওই গ্যাস রপ্তানী করা বন্ধ করুন।

@খারাওব্লগি: #ইউএসএ কে বলছি চুপ থাকুন… মিশরে রাসায়নিক বোমা পাঠানো বন্ধ করুন। তারপরে আমাদের বিদ্রোহকে সমর্থন করুন।

পরিশেষে, জানা গেছে যে চালান মুক্ত করে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ে আনা হয়েছে:

من السويس : تراجعت ادارة الجمرك عن التحقيق مع موظفي المينا ..وتم تسليم 3 حاويات قنابل غاز فعلا الي وزارة الداخلية
@sayedfathy2006: @সাইদফাতি২০০৬: সুয়েজ থেকে- বন্দর কর্তৃপক্ষ সিদ্ধান্ত নিয়েছে কর্মীদের তদন্ত না করতে…আর এখন ৩টি কন্টেইনার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রানলয়ের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

এই পোস্টটি আমাদের মিশর বিপ্লব ২০১১ সংক্রান্ত বিশেষ কভারেজের অংশ।

এই বিষয়গুলোর উপর টুইট বার্তা নিয়ে একটি স্টোরিফাই গল্প তৈরি করেছেন প্রিন্স অফ রেজর। আরো প্রতিক্রিয়ার জন্য সেটা দেখতে পারেন। মিশরে কাঁদানে গ্যাস ব্যবহার নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের স্টেট ডিপার্টমেন্টের বক্তব্য এখানে আছে

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .