বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

শিশু শ্রমিকদের জন্য ইউনিয়ন

বলিভিয়া, যেখানে সমাজের সদস্যদের দ্বারা ব্যাপকভাবে ইউনিয়ন গঠন করা হয়, সেখানে আরেক দল শ্রমিকদের একটি ইউনিয়ন আছে, এটি হচ্ছে শিশু শ্রমিকদের সংগঠন।

গ্রাউন্ড শিফটারঃ স্টোরিজ অফ ওমেন চেঞ্জিং আন সিন ওয়ার্ন্ড ( পরিবর্তন সাধন: অদেখা এক বিশ্ব পরিবর্তনকারী নারীদের কাহিনী) নামক এক সিরিজে/ কাহিনীতে জ্যাঁ ফ্রিডম্যান রুডভোস্কি বলিভিয়ার শিশু শ্রমের বিষয়টি উপস্থাপন করেছে। রুডোভস্কি লিখেছে:

বলিভিয়ায় ৯০ লক্ষ বাসিন্দা রয়েছে, যার মধ্যে ১০ লক্ষ হচ্ছে শিশু শ্রমিক। এদের মধ্যে অনেকে সাত বছর বয়স থেকে শ্রমিক হিসেবে কাজ শুরু করে। এদের প্রায় অর্ধেক হল নারী শিশু। মেয়েরা যেন অনেকটা তাদের কাজের মত, প্রায়শ যা দেখা যায় না, তাদের গৃহে এবং রেস্টুরেন্ট-এ, পেছনের অংশে কাজ করতে হয়।

ব্লগ বলিভিয়া প্রিমেরা প্লানা-এ মুরিচিয়এইরা [স্প্যানিশ ভাষায়] যুক্তি প্রদান করেছেন যে, বলিভিয়া সমাজে শিশু শ্রম কোন উদ্বেগের বিষয় নয় এবং এর সাথে তিনি যোগ করেছেন:

el anonimato en el que viven [los niños trabajadores] simplemente refleja el desprecio que siente el mundo adulto por la niñez en Bolivia.

তারা [শিশু শ্রমিকেরা] যে এক নামহীন জীবনে বাস করে, তা খুব সাধারণ ভাবে দেখতে গেলে বলিভিয়ার বয়স্করা যে শিশুদের অবজ্ঞা করে, সেই বিষয়ের প্রতিফলন।

হিস্পানিকালি স্পিকিং নিউজ এর আগে সংবাদ প্রদান করেছিল:

এই শিশু এবং কিশোররা তাদের পরিবারকে সাহায্য করার জন্য, তাদের লেখাপড়া চালিয়ে নিয়ে যাবার জন্য, নিজেদের ব্যক্তিগত খরচ মেটানোর জন্য কাজ করে থাকে। তারা, তাদের পিতা বা ভাই যাদের তার সিলিকোসিসি (নিঃশ্বাসে ময়লা প্রবেশের মাধ্যমে সৃষ্ট ফুসফুসের রোগ) আক্রান্ত হতে এবং খনি বা আখ মাড়াইয়ের কলে দুর্ঘটনায় চাপা পড়ে শেষ হয়ে যেতে দেখেছে, তাদের তুলনায় নিজেদের ভবিষ্যৎ সমৃদ্ধ করতে চায়।

বলিভিয়ার শিশু শ্রমিক। ছবি ইউনাউটে নেশনস-এর, তার ফ্লিকার পাতা থেকে নেওয়া ( সিসি বাই-এনসি-এনডি-২.০)

শিশু শ্রমিকদের বেশির ভাগই স্কুলে যায়, একই সাথে তাদের চাহিদা মত কাজে যুক্ত থেকে তা করে। এমনকি এদের অনেক সারাদিন কাজ করে। সরকারের ছত্রছায়ায়, তারা তাদের ইউনিয়ন গঠন করেছে এবং সমাজের সবাই তাদের শ্রদ্ধা করে, যেমনটা মারিওন গিবনেই লিখেছে:

এই সমস্ত শিশুরা তাদের পরিস্থিতিকে খারাপ হিসেবে বিবেচনা করে না; তারা কাজ করতে চায়, এবং তাদের নিজস্ব সুবিধার জন্য এই ইউনিয়ন গঠিত হয়েছে, ইউনিয়ন তাদের রক্ষা এবং সরকারে কাছ থেকে মৌলিক অধিকার দাবির জন্য কাজ করবে, এবং একই সাথে কাজের ক্ষেত্রে অন্যের শ্রদ্ধা অর্জনে কাজ করবে। শিশু হবার কারণে প্রায়শই বয়স্করা তাদের ধরে নিয়ে যায় এবং পেটায়, কিন্তু তারা নিজেদের মানিয়ে নিতে এবং রক্ষা করতে শিখেছে।

যেহেতু দেশটিতে শিশু শ্রম নিষিদ্ধ, তাই সরকার বা অন্য সংগঠনের কাছে শিশু শ্রমিকদের রক্ষা করার আহ্বান জানানো কঠিন। নাওমি গুতিয়ারেজ , কোননাটসপ নামক একটি সংগঠনের এক তরুণ সমন্বয়কারী, এটি সংগঠিত শিশু শ্রমিকদের একটি পটাসি কাউন্সিল, সে বলছে:

“প্রত্যেকে বলছে যে, শিশুদের কাজ করা উচিত নয়, কিন্তু তারা দেশটির অর্থনৈতিক বাস্তবতাকে বিবেচনা করছে না । নিঃসন্দেহে বলা যায়, যদি আমাদের সকলে সম্পদশালী হত তাহলে আমাদের কাউকে আর কাজ করতে হত না। কিন্তু যুক্তিযুক্ত ভাবে চিন্তা করার বদলে, সরকার কেবল বলছে যে আমাদের শিশু শ্রম সমূলে উত্পাটন করা প্রয়োজন। আমি বলব, প্রথম তাদের দারিদ্র্য নির্মূল করা প্রয়োজন।”

ব্লগ চিলড্রেন পার্টিসিপেশন, ইউনাটসাবো (“ইউনিয়ন দে নিনোস, নিনাস, ইয়া এ্যাডোলোসেন্টাস ত্রাবাখাদোরেস দে বলিভিয়া, নামক স্প্যানিশ শব্দের সংক্ষিপ্ত রূপ, যার অর্থ বলিভিয়ার বালক, বালিকা, কিশোর শ্রমিকদের সংগঠন ) কয়েকটি দাবীর সারসংক্ষেপ করেছে। ইউনাটসাবো, বলিভিয়ার শিশু শ্রমিকদের সবচেয়ে বড় সংগঠন।

তারা এই বিষয়টি নিশ্চিত করতে চায় যে শিশুরা, বয়স্ক শ্রমিকদের মত একই সমান মজুরি এবং অর্থনৈতিক সুবিধা লাভ করবে। এছাড়া শিশুদের সেভিং এ্যাকাউন্ট বা ব্যাংকে হিসাব খোলার অধিকার নেই। এবং প্রায়শই তাদেরকে তাদের উপার্জিত অর্থ সরাসরি তাদের বাবামার হাতে তুলে দিতে হয়। এছাড়াও ইউনিয়নের সদস্যরা কাজের উন্নত পরিবেশ এবং চিকিৎসা সুবিধা, বিশেষ করে যে সমস্ত শিশু স্বাস্থ্যের জন্য ঝুকিপূর্ণ পরিবেশে বাস করে, তাদের চিকিৎসা সুবিধার জন্য তদবির করে যাচ্ছে।

যে সমস্ত শিশুরা কাজ করছে তাদের উন্নত জীবন ধারণের পথে শিশুদের কাজের স্বীকৃতির অভাব, অন্যতম প্রধান এক বাধা।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .