বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

আইভরি কোস্ট: রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন আরটিআই কার নিয়ন্ত্রনে?

এই পোস্ট আমাদের আইভরি কোস্ট এর গোলযোগ ২০১১ সংক্রান্ত বিশেষ কাভারেজের অংশ

বর্তমানে আইভরি কোস্টের জাতীয় সম্প্রচার স্টেশন রেডিও টেলিভিশন আইভোরিয়েন (আরটিআই) কার নিয়ন্ত্রনে আছে তা নিয়ে দ্বন্দ্ব দেখা দিয়েছে।

৩১শে মার্চ আন্তর্জাতিকভাবে পরিচিত প্রেসিডেন্ট আলাসানে ওয়তারার প্রতি বিশ্বস্ত রিপাবলিকান বাহিনী (এফআরসিআই) বিদ্রোহীরা আইভরি কোস্টের প্রধান শহর আবিদজানে প্রবেশ করেছেন। তারা যখন আরটিআই এর প্রধান কার্যলয়ে পৌঁছেছে তারা গাগবোর প্রতিরক্ষা আর নিরাপত্তা বাহিনী (এফডিএস) এর বাধার সম্মুখীন হন। জাতীয় টেলিভিশন স্টেশনকে মজা করে ‘প্রোপাগান্ডা টিভি‘ বা ‘এলএএমপি টিভি’ বলা হয় এই ধারনার কারনে যে এটা প্রেসিডেন্ট লরেন্ট বাগবোর প্রতি নমনীয়, যিনি অস্বীকার করেন যে তিনি ডিসেম্বর ২০১০ এর নির্বাচনে হেরে গেছেন আর ক্ষমতা ছাড়তে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন। আরটিআই দখলের যুদ্ধ ক্ষেত্রে পরিণত হয়েছে

এর প্রচার তরঙ্গ প্রথমে ২৪ ঘন্টার জন্য বন্ধ করা হয়েছিল আর ১লা এপ্রিল ২০১১ তারিখে ডাইরেক্টস্কুপ নামে আফ্রিকার উপরে জোর দেয়া একটা নাগরিক তথ্য ব্লগ ঘোষনা দেয় যে চ্যানেলের সিগন্যাল ফিরে এসেছে:

La Radiodiffusion télévision ivoirienne ( Rti) a recommencé à diffuser son signal vendredi peu après 19 heures

শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টার একটু পরে আরটিআই প্রচার আবার শুরু করেছে।

ওয়ানিউ নামে একজন পাঠক মন্তব্য করেছেন:

Un long metrage de Damon : « LA VENGEANCE DANS LA PEAU » est diffusé en ce moment sur la RTI.

ম্যাট ডেমনের একটা চলচ্চিত্র: ‘দ্যা বোর্ন আল্টিমেটাম’ এখন আরটিআই তে দেখানো হচ্ছে।

ইনফোআবিদজান.নেট নাম্নী একটা সংবাদ ওয়েবসাইট ১লা এপ্রিল ২০১১ তারিখে তাদের ইউটিউব প্রোফাইলে পোস্ট করেছে এই নাগরিক ভিডিও:

ভিডিওর নীচের ক্যাপশন ব্যাখ্যা করেঃ

Premieres images de la RTI après sa liberation

মুক্তির পরে আরটিআই এর প্রথম চিত্র

‘আইভরি কোস্টে ফরাসী হস্তখেপের বিরুদ্ধে সংগ্রাম কমিটি’ নামে বড় একটি ফেসবুক দল জড়ো করেছে ৬৭২০ এর মতো গাবগো সমর্থককে, আরটিআই এর ২রা এপ্রিল এর টিভি সংবাদ সংস্করন এর ভিডিও দেখিয়েছে: এফডিএস এর সেনাদের দেখা গিয়েছে একটা সংবাদ বিজ্ঞপ্তি পড়তে, ব্যাখ্যা করে যে তাদেরকে ওত্তারার বাহিনী আক্রমন করেছে, যাদেরকে সমর্থন করেছে কোত দে আইভরির জাতিসংঘের অফিস (ওনুসি)। তারা আরো বলেছে যে আরটিআই আর আবিদজানের পরিস্থিতি এখন নিয়ন্ত্রণে, আর মানুষের উচিত জীবনযাত্রা স্বাভাবিক রাখা।

টুইটারে এই হস্তক্ষেপের ব্যাপারে নাগরিকরা সাথে সাথে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন:

গারে_ও_গোরিলে ক্ষিপ্ত ছিলেন:

@Gare_au_gorille: la RTI veut 1 bouclier humain en ne relayant pas couvre feu #civ2010 > RESTEZ CHEZ VOUS et faites passer le mot !!!

আরটিআই মানুষের ঢাল তৈরি করতে চায় কারফিউ এর ব্যাপারে না জানিয়ে #সিভ২০১০। বাড়িতে থেকে সবাইকে জানান!!!

@জাস্টিস জিএফকে জানাচ্ছেন:

@JusticeJFK: Intervenant FDS sur la RTI: “nous appelons les populations à vaquer normalement à leurs occupations”. Quelle irresponsabilité!!!

আরটিআই এর ব্যাপারে এফডিএস বক্তা: “আমরা জনগনকে আহ্বান জানাই তাদের রোজকার মতো কাজে যেতে” এটা দায়িত্বহীনতা!!!

“আইভরি কোস্টে ফরাসী হস্তখেপের বিরুদ্ধে সংগ্রাম কমিটি’ আর একটি ভিডিও দেখিয়েছেন যা আরটিআই এর অফিসে ২রা এপ্রিল এর সকালে ধারন করা হয়েছে, আর সাক্ষ্য হিসাবে যে রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন এখন বাগবোর সমর্থক এফডিএসদের দখলে। আফ্রিকাউইউইশ এটা ইউটিউবে পুন:প্রকাশ করেছে:

স্টিফেন কাসি নামের একজন আরটিআই কর্মী ব্যাখ্যা করেছেন বৃহষ্পতিবার ৩১ মার্চ ২০১১ তারিখে কি ঘটেছে:

Le jeudi (…) Suite à l'alerte de l'attaque de la rébellion, nous avons essayés de faire un repli, au niveau de la cité qui est en face se trouve à côté (…) Nous ne sommes pas agents de la régie, mais nous avons fait de notre mieux. (…) Les combats ont eu lieu , et nous avons réussi à nous terrer quelque part jusqu'à ce qu'on ait pu nous exfiltrer. Ce matin nous sommes là, comme le pays nous le demande, Nous sommes là pour défendre notre patrie.”

বিদ্রোহের উপরে আক্রমণের খবর দেয়ার পরে, আমরা কাছের এলাকাতে ঢুকে যাওয়ার চেষ্টা করি। আমরা নির্মানে নিয়োজিত মানুষের এজেন্ট না, কিন্তু আমরা আমাদের যথাসাধ্য চেষ্টা করেছি। মারামারি হয়েছে, আর আমরা সক্ষম হয়েছি কোথাও লুকাতে যতক্ষণ না আমদেরকে বের করে দেয়া হয়। আজ সকালে আমরা এখানে আছি, দেশের দাবিতে, আমরা এখানে আমাদের পিতৃত্বকে রক্ষায় এসেছি।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .