বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

জাপান: পরিবেশ-প্রযুক্তির উপর সংক্ষিপ্ত পর্যালোচনা

মে মাসের মাঝামাঝি জাপান সরকার একটি লোভনীয় প্যাকেজ ছেড়েছে এক নতুন পরিবেশ-বান্ধব (ইকো-পয়েন্ট) ব্যবস্থার প্রবর্তনের মাধ্যমে স্বল্প জ্বালানী শক্তি ব্যবহৃত গৃহস্থ যন্ত্রপাতির চাহিদা বাড়াতে। এই ব্যবস্থার বিস্তারিত আগামী মাসে ডায়েটের (সংসদের) দ্বারা গৃহীত সম্পূরক বাজেটের পর স্পষ্ট করে ব্যাখ্যা করা হবে।

এই উদ্যোগের লক্ষ্য কিয়োটো প্রটোকল এর উৎপত্তিস্থল জাপানের প্রযুক্তির দেশ হিসেবে সাম্প্রতিক ভাবমূর্তি তুলে ধরার প্রচেষ্টাকে জাগিয়ে তুলবে মনে হচ্ছে এবং এটাও প্রমাণ করা যে জাপান পরিবেশ বান্ধব ও বটে। এছাড়া এই লক্ষ্যটি জাপানের নিকট প্রতিদ্বন্দ্বী প্রতিবেশী চীনের সাথেও একটা পার্থক্য গড়ে দেবে।

প্রকৃতপক্ষে ‘পরিবেশগত পন্থা” নিজে কোন নতুন ধারণা নয়। আসলে, বিগত কয়েক বছর ধরে অনেক ব্যবসায়িক কোম্পানী নতুন প্রযুক্তির সাথে সাথে দৈনন্দিন জীবনে ব্যবহার্য পরিবেশ বান্ধব যন্ত্রপাতি উদ্ভাবনেরও চেষ্টা করে চলেছে।

সকল প্রকার পরিবেশ-প্রযুক্তির খবর আলোচনা করা সম্ভব নয় বলে, এখানে কিছু চমকপ্রদ, নতুন সম্ভাবনার খবর দেয়া হলো যা বিগত বছরে বেশ ঝড় তুলেছে ।

সে-গোয়কেন জাপানী কোম্পানী কর্তৃক উদ্ভাবিত কিছু জিনিসের বিস্তারিত ব্যাখ্যা করেছে (যেগুলোর নাম এখনও অপ্রকাশিত), আরও অনেক দেশে এএই ধরনের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে যা মূল্যবান সম্পদের অপচয় কমাতে সচেষ্ট।

まずはバナナシャツ。
廃棄物として捨てられるバナナの茎、その数年間10億トンもあり、
そのバナナの繊維と綿をミックスすることで新繊維を生み出すことに成功した。
主にシャツやズポンがすでに開発され、春にはジーンズも発売される。

প্রথমত, ‘কলা’ শার্ট।
একটি জাপানী কোম্পানী একটি নতুন ধরনের ফাইবার তৈরীতে সফল হয়েছে যা তৈরী করা হয়েছে সূতা এবং কলার বোঁটা (বিগত কয়েক বছরে এক বিলিয়নেরও বেশী কলার বোঁটা জঞ্জাল হিসেবে ফেলে দেয় হয়েছে) হতে প্রস্তুত পদার্থ একত্রে মিশিয়ে।

তারা ইতিমধ্যে এই নতুন ফাইবার হতে শার্ট এবং ট্রাউজার বানিয়েছে এবং বসন্তে জিন্সও বাজারে চলে আসবে।

次は竹。
ベンチャー企業が、竹から繊維を開発するということに成功した。
竹林は成長が早い為、環境への負担が少なく、CO2の吸収量も高い為、
竹林を数多く育てることがそのままエコに繋がるとのこと。
またコスト的にも綿の1/20 程で購入できるメリットがあるようだ。[…]
今回紹介したような技術革命が進んで行けば、日本の将来も暗くはない。

দ্বিতীয়ত, বাঁশ।

একটি ব্যবসায়িক কোম্পানী বাঁশ হতে প্রস্তুত এক ধরনের ফাইবার উদ্ভাবন করেছে।

বাঁশ ঝাড় দ্রুত বেড়ে ওঠে এবং পরিবেশের উপর স্বল্প বোঝা হয়ে থাকে কারন যে পরিমান কার্বন ডাই অক্সাইড এরা শোষন করে তার পরিমাণ খুব বেশী। শুধুমাত্র এই এক কারনেই বাঁশ ঝাড়ের বৃদ্ধি তাই পরিবেশের নিজের জন্যই পরিবেশ বান্ধব। তাছাড়া সূতির চেয়ে ১/২০ ভাগ কম দামে এর উপকরণ পাওয়া যায়।

১০০% বাঁশের তৈরী পণ্যের মধ্যে বর্তমানে কেবল তোয়ালে আর টিস্যু পাওয়া যায়।

যদি আমরা উপরে বর্ণনাকৃত প্রযুক্তির পরিবর্তনে নতুন নতুন উদ্ভাবনের পথে থাকি, আমি বিশ্বাস করি জাপানের ভবিষ্যৎ অনেক বেশী উজ্জ্বল।

জাপান প্রোবের অনুসন্ধানী আর্টিকেল উপরের ভিডিওটির ব্যাখ্যা দেয়।

ব্লগার আর্থফুরোসিকি জ্বালানী শক্তি উৎপাদনের এক নতুন পথ দেখিয়েছে। একটি ভিন্ন জ্বালানী উৎস যার প্রথম ব্যবহারিক প্রয়োগ শুরু হয়েছিল ২০০৬ সালে ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান সাউন্ড পাওয়ার কর্পোরেশন এর বর্তমান ২৭ বছর বয়সী প্রধান এর দ্বারা ।

それは「振動によって発電する」という技術

橋や改札などの車や人の行き来が激しく、振動が多い場所にこの発電方式を利用して振動をエネルギーに変えるというもの。

কম্পন থেকে বিদ্যুৎ তৈরী মানে হলো সেই সব এলাকায় বিদ্যুৎ তৈরী যেখানে কম্পন খুব বেশী, উদাহরণ স্বরূপ সেতু এলাকা বা টিকেট গেইট এর কথা বলা যেতে পারে যেখানে মানুষ এবং গাড়ী ক্রমাগত আসে যায়।

実際に『首都高五色桜大橋のイルミネーション』にこの技術が利用されています。昼間に振動によって蓄えたエネルギーを使って日没後から24時まで橋をライトアップしています。
振動が生じる場所にこの技術を用いれば原理的に発電することが可能なので
キーボードのタイプで発電、物の移動による発電など、地産地消ならぬ個産個消も可能と期待も高まっているようです。

এই প্রযুক্তি প্রকৃতপক্ষে বর্তমানে টোকিওর গোসিকি জাকুরা বড় সেতু [আংশিক] আলোকিত করার কাজে ব্যবহৃত হচ্ছে। সূর্যাস্ত হতে মধ্যরাত পর্যন্ত সেতু আলোকিত হয় কম্পন শক্তি দ্বারা যা কিনা বিদ্যুৎ শক্তি হিসাবে দিনের বেলা জমা করে রাখা হয়।

তাত্ত্বিকভাবে যেখানেই কম্পন সৃষ্টি হয় সেখানেই জ্বালানী শক্তি উৎপাদন সম্ভব যেমন কিবোর্ড টাইপিং বা ধাবমান বস্তুর গতি প্রভৃতি হতে। এটা প্রচুর পরিমাণে বিদ্যুৎ উৎপাদনের পরিবর্তে কেবল প্রয়োজন এর সাথে সংগতিপূর্ণ শক্তি উৎপাদনের সম্ভাব্যতা জাগায়।

টিভি টোকিওর বরাতে প্রাপ্ত একটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে এই উদ্ভাবন কিভাবে কাজ করে।

Sky Living
স্কাই লিভিং (ছাদের উপর একটি বাগান)। ফ্লিকার ব্যবহারী ‘pict u re’ এর সৌজন্যে

সর্বশেষে, পরামর্শক শিমো৩৭৮১ এমন একটি ধারা সাথে পরিচয় করিয়ে দেয় যা বর্তমানকালে দালান শিল্পে অনেকটাই পরিচিত এবং যার লক্ষ্য হলো শহরে পরিবেশবান্ধব এলাকার সংখ্যা বাড়ানো এবং সাথে শক্তি বাঁচানোও।

温暖化対策の一環として屋上緑化が叫ばれている。
方策の一つとして屋上に芝生を植えたり庭園を設置するものが多い。
ただし土を使う屋上緑化は重量に耐えるだけの建物の強度が必要だ。

বৈশ্বিক উষ্ণতা প্রতিরোধে সহায়ক ব্যবস্থা নির্ণয়ের ক্ষেত্রে ইতিমধ্যে নির্মিত দালানকোঠাগুলোর ছাদকে পরিবেশবান্ধব করার ব্যবস্থাটি অন্যতম। এই পরীক্ষার ফলে দালানের ছাদগুলোতে বাগান সৃষ্টি হতে শুরু করছে যদিও দালানের জন্য সেটা আবশ্যিক ভাবে নিষিদ্ধ, যে দালান বনায়নে ব্যবহৃত পৃথিবীর ওজন সইতে পারে।

日紹介するのはNTT都市開発所有のアーバンネット三田ビルだ。
ここでは屋上緑化にサツマイモを植えた。[…]
エコと野菜の一石二鳥だ。
コンクリートの表面温度が55度のとき、サツマイモの葉に覆われた部分は28度だったというから効果は抜群だ。
ビル内の温度を抑えられるから冷房代が安く抑えられる。
屋上緑化の方法も今後益々多様化していくだろう。

এনটিটি আরবান ডেভেলপমেন্ট কোঃ এর সম্পত্তি শহুরে নেট মিতা দালানগুলোর উদাহরণ দেয়া যেতে পারে যেখানে পরিবেশবান্ধব কার্যক্রমের অংশ হিসেবে আমরা মিষ্টি আলু জন্মিয়েছি। একই মূল্যে পাচ্ছি দুটো সুফল যার মধ্যে একটি: টাটকা সব্জি এবং সাথে সাথে জ্বালানী বাঁচানো।

যদিও খোলা পাথুরে ঢালাই চত্বর ৫৫ ডিগ্রী তাপমাত্রাতে পৌঁছায় গরমকালে, মিষ্টি আলুর পাতাগুলোর ছায়ার নিচে মেঝের তাপমাত্রা সহনীয় পর্যায়ে মাত্র ২৮ ডিগ্রীতে থাকে। অভাবনীয় এক ফলাফল। যেহেতু এই পদ্ধতি দালানের ভেতরের তাপমাত্রাকে নিয়ন্ত্রণ করতে সাহায্য করে তাই শীততাপনিয়ন্ত্রণ যন্ত্র কম ব্যবহার হবে।

[আমার পিতা মাতার দৃষ্টিতে] ‘ছাদের মধ্যে বনায়ন’ এর অনেক নতুন পদ্ধতি সম্পাদনের জন্য এখন থেকেই শুরু করা উচিৎ।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .