বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

ফ্রেঞ্চ ক্যারিবিয়ান: লো স্কুপস ডর প্রতিযোগীতা

Le Scoops
ছবি তুলেছে স্কুপসডরলো আজেন্স মুল্টিকুলটুরেলের সত্যম ডরভিলের সৌজন্যে এবং অনুমতি নিয়ে ব্যবহৃত।

লো স্কুপস ডর ব্লগে লাগেন্সদোকম আর স্কুপ ঘোষণা করেছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজে নতুন এক ব্লগের আরম্ভের আর প্রতিযোগিতার একটা ওয়েবসাইটের কথা:

Après le succès de l’édition 2008, les Scoops d’or reviennent en 2009 avec un nouveau défi : faire découvrir non plus uniquement les sites internet de la Martinique, mais ceux aussi de Guadeloupe, Guyane et de la Diaspora antillaise.

A cette occasion nous lancons notre site Internet qui permettra à tout un chacun de visiter la première exposition virtuelle des meilleurs sites internet de la caraïbe francophone.

২০০৮ সালে ভালো সাফল্য পাওয়ার পরে ‘স্কুপস ডর’ ফিরে এসেছে ২০০৯ সালে নতুন একটা চ্যালেঞ্জ নিয়ে: মানুষকে কেবলমাত্র মার্টিনিকান ওয়েবসাইটের সাথেই পরিচিত করা না, বরং গুয়াদেলুপ, ফরাসী গায়না আর ফরাসী পশ্চিম ইন্ডিয়ান প্রবাসী জনগোষ্ঠীর ব্লগগুলোকেও।

এটা আমাদেরকে সুযোগ দিয়েছে আমাদের ওয়েবসাইট শুরু করার, যাতে ব্যবহারকারীরা প্রথম ভার্চুয়াল প্রদর্শনী দেখতে পারেন সেরা ক্যারিবিয়ান ওয়েবসাইটগুলোর।

প্রতিযোগীতার শ্রেনীগুলো হচ্ছে:

Sites Perso/Blog, Sites de Ecommerce, Site ou blogs d’Entreprises, Sites de Media, Réseau Sociaux & Forums

ব্যক্তিগত ওয়েবসাইট বা ব্লগ, ব্যবসার সাইট, কোম্পানির সাইট বা ব্লগ, মিডিয়া ওয়েবসাইট, সামাজিক নেটওয়ার্ক আর ফোরাম।

বর্তমানে প্রায় ৬৯টা ব্লগ প্রতিযোগিতায় নিবন্ধন করেছে আর এ পর্যন্ত অগ্রগামীরা হলেন গুয়াদেলুপের ‘ম্যাসাকার সুর ফেসবুক‘ ৮৮টি ভোট নিয়ে আর মার্টিনিকের ‘ক্যাস্পার এক্সটেন্ডেড” ১৪৪টি ভোট পেয়ে। ফরাসী গায়ানাতে এগিয়ে আছে ফরাসী নামে একটা ব্লগ “গাই ইয়ান”, যেটি এ পর্যন্ত সব থেকে বেশী ভোট পেয়েছে: ৩৬৫টি। পরিশেষে ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান প্রবাসী ব্লগ প্রতিনিধিত্ব করছে ‘জাগ্রিয়েন.এফআর” যা মাত্র ৯টি ভোট পেয়েছে- বোন্ডামাঞ্জাকের সাথে সমান তালে, যেটি একটি সামাজিক আর রাজনীতি ঘেষা মার্টিনিকান ব্লগ, যারও ভোটের হিসাব এ পর্যন্ত ৯টি।

প্রতিদিন যেমন ভোট বৃদ্ধি পাচ্ছে তেমন এলাকা ভিত্তিতে সংখ্যায় অনেক পার্থক্য দেখা যাচ্ছে- ফরাসী গায়না মনে হচ্ছে সব থেকে কর্মঠ, প্রবাসী ব্লগের খারাপ পারফর্মেন্স সত্ত্বেও। এটাই হয়তো কারন যে স্কুপস দল তাদের প্রোজেক্ট শুরু করেছে- ব্লগারদের মধ্যে আরো যোগাযোগ উৎসাহিত করার জন্য। প্রতিযোগিতার আয়োজকরা একভাবে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছেন আর তা হলো ব্লগারদের সাথে সাক্ষাৎকার দিয়ে ওয়েবসাইটের ব্লগ অংশে

ফরাসী ওয়েস্ট ইন্ডিজে দ্রুত বেড়ে ওঠা এই ব্যাপার সম্পর্কে যদি আপনি আরো জানতে চান, ”লে স্কুপস ডর” কে সহজে ফেসবুক আর টুইটারে পাওয়া যাবে।

প্রতিযোগিতার শেষ সময় মে ১০, ২০০৯ আর বিভিন্ন গোত্রের ফলাফল জানানো হবে মে ১১ থেকে ১৭ পর্যন্ত মার্টিনিক, গুয়াদেলুপ, ফরাসী গায়না আর প্যারিসে। জেইম বোতামটা টিপ্তে ভুলবেন না আপনার প্রিয় ব্লগের জন্য ভোট করার জন্য!

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .