বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

মার চোখে বিশ্ব

বিশ্বের চারদিকে যেসব মা ব্লগ করছেন তারা মা হওয়ার পাঁচটা সব থেকে ভালো দিক হিসেবে কি কি মনে করেন? কানাডীয় ব্লগ হার ব্যাড মাদার খ্যাত ক্যাথেরিন কনোর্স এর সাথে গ্লোবাল ভয়েসেস একত্র হয়েছে সারা বিশ্বে মা- ব্লগারদের কাছে এই প্রশ্ন করার জন্য আর তাদেরকে একে অপরের সাথে সংযুক্ত হতে উৎসাহিত করতে। এই পর্যন্ত ২৬টা দেশের ৮৫ জনের বেশী ব্লগার সাড়া দিয়েছেন। কিন্তু আমরা আরো মা ব্লগার খুঁজছি।

ক্যাথেরিন এই পোস্ট দিয়ে শুরু করেছেন, চিন্তাটির প্রেক্ষাপট সম্পর্কে বর্ণনা করে:

কয়েক মাস আগে, আমার বন্ধু ডেভিড আমাকে জিজ্ঞাসা করেছিল যে ব্লগের মাধ্যমে বিশ্ব ভ্রমণ করা সম্ভব কিনা । ”যেমন ৮০ দিনে বিশ্বের চারদিকে ভ্রমণের মতো,” সে বলেছিল, “কিন্তু ইন্টারনেটে। বিশ্বের চারদিকে ৮০টা ক্লিকে। ৮০টা মা-ব্লগারের ব্লগে ক্লিক!” আমি বলেছিলাম, ”আমি জানিনা। কিন্তু এটা অবশ্যই চেষ্টা করে দেখার মতো মজার একটা জিনিষ হবে।” “ভালো। আর যদি তুমি যেতে পারো, ভার্চুয়ালি, বিশ্বে চারদিকের মায়েদের কাছে, তাদের সাথে কোন বিষয়ে কথা বলতে চাইবে?”

কিছু মর্মভেদী লেখার মধ্যে আছে ভারতের হিপ হপ গ্রান্ডমা যিনি বর্ণনা করেছেন তার বাচ্চাদের জন্য তার ভালোবাসা কেমন করে পাল্টিয়েছে আর তিনি নিজের পরিবারের সাথে কেমন করে সম্পৃক্ত হন। বলিভিয়ার ব্লগার ক্যাপ্সুলা দেল তিয়েম্পো লিখেছেন (ইংরেজী আর স্প্যানিশে) মাতৃত্বের সাথে সাথে তিনি যে অতিমানবীয় ক্ষমতা পেয়েছেন সে সম্পর্কে, যেমন ‘রাতে সুপারসনিক শোনার ক্ষমতা’ আর ‘ ভবিষ্যৎ বলার ক্ষমতা'। আর ফিলিপিনো মা ব্লগার টাচড বাই এন এঞ্জেল নিজের জন্য একটা ‘গ্রাজুয়েশন বক্তব্য’ লিখেছেন তিনটা সুন্দর বাচ্চার মা হওয়ার পরে।

গ্লোবাল ভয়েসেস এর লেখকরা বিশ্বে চারদিকের ব্লগিং করা মাদেরকে চিহ্নিত করতে সাহায্য করেছেন, আর ক্যাথেরিনের আমেরিকান বন্ধু ডেভিড ওয়েসকট অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছে তাদের সাথে যোগাযোগ করার আর তার নিজের ব্লগ ইট ইজ নট এ লেকচার এ অংশগ্রহণকারী সব মায়েদের লিন্ক সংকলন করেছেন। এই পযর্ন্ত তার চারটে লেখার মধ্যে (এখন পর্যন্ত) দ্বিতীয় লেখায় তিনি লিখেছেন:

এই জিনিষ আসলেই এগিয়ে যাচ্ছে। ক্যাথিরিন গ্লোবাল মাদের মীম শুরু করার পর থেকে, আমি প্রায় ১৪টা আলাদা দেশের মায়েদের কাছ থেকে ৪০টির মতো পোস্ট পেয়েছি। প্রায় অর্ধ ডজন দেশের মায়েরা এরই মধ্যে ট্যাগড হয়েছেন, আর কিমচি মামাস নামে একটা কোরিয়ান- আমেরিকান মায়েদের দলগত ব্লগ কোরিয়ান ব্লগারদের অংশগ্রহনের আহ্বান জানিয়েছে।

পোস্টগুলো বুকমার্ক করে দেশ ভিত্তিক ট্যাগ করা হয়েছে ৮০ক্লিক এর মজার পাতায়। সবকিছুর নিশানা রাখা কঠিন হয়ে পড়বে, তাই আপনি যদি অংশগ্রহণ করছেন আর তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হতে চান এখানে বা ক্যাথেরিনের পোস্টে মন্তব্য করুন যাতে আমরা নিশ্চিত হতে পারি যে আপনাকে প্রতিনিধিত্ব করা হচ্ছে।

কয়েক দিন পরে ডেভিড তার চতুর্থ আপডেটে লিখেছেন:

গ্লোবাল মা মীম এগিয়ে চলেছে যা হার ব্যাড মাদার ব্লগে শুরু হয়েছিল। আমি ২৬টা দেশে ৮৫টার বেশী মায়ের ব্লগ পেয়েছি যারা জানিয়েছেন মা হওয়ার ব্যাপারে তারা কি ভালোবাসেন। এখানে আমি আর যা পেয়েছি অতিরিক্ত তা দেয়া হলো- আর আমি জোর দিয়ে বলছি “আমি পেয়েছি” কারন আমি নিশ্চিত যে বেশ কয়েকটা পোস্ট আমি এখনো পাইনি…

… এই মীমে আধিপত্য আছে [আমেরিকান] প্রবাসী ব্লগারদের তাই আমি দেশের ঠিক অবস্থান খোঁজার চেষ্টা করছি। এই ক্ষেত্রে ইটালি, বাহরাইন আর মরোক্কোর ব্লগাররা সবাই আমেরিকান, আর কোরিয়ার অন্তত একজন ব্লগার কানাডীয়- কিন্তু তাদের সবার ক্ষেত্রেই কিছু আছে যাতে আমার মনে হয় তাদের ওই দেশে তালিকাভুক্ত করতে অসুবিধা নেই।

বিশ্বে চারদিকের গ্লোবাল ভয়েসেস এর পাঠকরা: আপনারা আমাদেরকে সাহায্য করুন আরো বেশী বিশ্ব ব্লগারদের এই মীমে আনতে। আপনারা যে কোন ভাষাতে পোস্ট লিখতে পারেন ওই পাঁচটা বিষয়ে যেগুলো আপনাকে মা হতে সব থেকে বেশী আনন্দ দেয় (বা বাবা!)। বন্ধুদের ট্যাগ করুন, যোগ করুন #গ্লোবালমমস ট্যাগ আপনার পোস্ট আর টুইটে, আর আমাদের সাহায্য করুন ‘৮০ক্লিকে বিশ্ব ঘুরতে'।

1 টি মন্তব্য

আলোচনায় যোগ দিন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .