বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

বলকান: কসোভোকে স্বীকৃতি দিল ম্যাসেডোনিয়া ও মন্টেনিগ্রো

৯ই অক্টোবর কসোভোর স্বাধীনতাকে স্বীকৃতি দিয়েছে ম্যাসেডোনিয়া ও মন্টেনিগ্রো।

আ ফিস্টফুল অব ইউরোস এর ডগলাস মুইর লিখেছেন, কাকতালীয়ভাবে এর ফলে স্বীকৃতি প্রদানকারী দেশের সংখ্যা দাড়ালো ৫০ এ। তিনি সহজভাবে এই ঘটনার গুরুত্ব তুলে ধরেছেনঃ

[…] ম্যাসেডোনিয়া এবং মন্টেনিগ্রো ক্ষুদ্র দেশ, কিন্তু তাদের ক্ষুদ্রতা ছাপিয়েও গুরুত্ব সমাধিক; কারণ (১) উভয়ই সার্বিয়া এবং কসোভোর প্রতিবেশী দেশ, (২) ইইউ এর সদস্য হতে যাচ্ছে, (৩) ভূতপূর্ব যুগোস্লাভ এর অংশ। সুতরাং এটা আশ্চর্যজনক না হলেও বেশ মজারতো বটে। […]

বেলগ্রেডেড এর ভিক্টর মার্কোভিক (এর আগে বেলগ্রেড ২.০ নামে পরিচিত ছিল) রসাত্মকভাবে উপস্থাপন করেছেন “যা ঘটেছে এবং যা ঘটতে পারতো তার একটা ক্ষুদ্র সংস্করণ”:

[….] এখন, মন্টেনিগ্রো ও ম্যাসেডোনিয়া উভয়ই কসোভোকে স্বীকৃতি দেবার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। প্রত্যুত্তরে কসোভো এখন সম্ভবত তাদেরও স্বীকৃতি প্রদান করবে। এমন সিদ্ধান্ত নেয়ার ধারাবাহিকতায় এ বৎসর জর্জিয়া (রাশিয়ার অংশ, আমেরিকার খন্ড নয়) থেকে স্বাধীনতা ঘোষণাকারী দক্ষিণ ওসেথিয়া এবং আবখাজিয়াকেও স্বীকৃতি দেবার সিদ্ধান্ত নিতে পারতো। একইভাবে কসোভো রাশিয়াকে সাহায্য করবে যেন দক্ষিণ ওসেথিয়া এবং আবখাজিয়া পৃথক হয়ে যেতে পারে। তবে এর ফলে রাশিয়ার বিরোধীতাকারী বাকী বিশ্ব ও আমেরিকা অসন্তুষ্ট হয়ে পড়বে যারা আবার কসোভো, মন্টেনিগ্রো ও ম্যাসেডোনিয়ার স্বাধীনতা সংগ্রামে সমর্থন দেয়। নিশ্চিতভাবেই সার্বিয়া সমর্থন দেবে জর্জিয়াকে কারণ নিজের দেশ থেকে কোন অঞ্চল ছুটে যাওয়ার মর্মপীড়া সে ভালভাবেই জানে। কিন্তু এর ফলে কসোভোকে স্বীকৃতি না দেয়া সূত্রে মহান বন্ধু রাশিয়া অসন্তুষ্ট হবে। ইউএস জর্জিয়া ইতোমধ্যে কসোভোকে স্বীকৃতি দিয়েছে; কিন্তু নিশ্চিত থাকা যায় জর্জিয়া নামের দেশটি স্বীকৃতি প্রদান করবে না; একটা দেশ থেকে তার প্রদেশ ভেঙ্গে বেড়িয়ে যাওয়াটা সে সুনজরে দেখতে পারে না। সেক্ষেত্রে আবার হয়তো আমেরিকা ও অন্যান্য দেশ যারা কসোভোকে স্বীকৃতি দিয়েছে তারা অসন্তুষ্ট হতে পারে।

প্রথম দিকে রাশিয়া কোন প্রদেশের স্বাধীন হওয়াটাকে সমর্থন দেয় নাই কিন্তু এখন দিচ্ছে। অন্যদিকে আমেরিকা প্রথম দিকে একটা প্রদেশ ভেঙ্গে বেড়িয়ে যাওয়াটা ইতিবাচক দেখলেও এখন তীব্র বিরোধিতা করছে। […]

ভিক্টরের পোস্টে পাঠকদের মধ্যে একজন ঔয়েন এই মন্তব্য করেছেন:

আমার মনে হয় আপনি খুব বেশী সরলীকরণ করে ফেলেছেন।

ভিক্টর একটা প্রস্তাবনা সহ জবাব দিয়েছেন, “বিষয়টাকে আরো বেশী বিভ্রান্তিকর এবং মজাদার করার জন্য” – তা হলে
সার্বিয়ার “মন্টেনিগ্রো এবং ম্যাসেডোনিয়াকে দেয়া স্বীকৃতি প্রত্যাহার করে নেবে”।

[…] আমি জানি না একটা দেশকে প্রদত্ত স্বীকৃতি আবার ফিরিয়ে নেয়া সম্ভব কিনা। তবে কসোভোকে স্বীকৃতি প্রদানকারী দেশগুলোর সাথে আমরা তো তেমনই করছি; ঠিক কিনা! অতএব এটা দৃষ্টান্ত স্থাপন করে ফেলি, ম্যাসেডোনিয়া ও মন্টেনিগ্রোকে প্রদত্ত স্বীকৃতি বাতিল করে দেই। […]

দ্যা এইটথ সার্কেল এর ভিটালি উল্লেখ করেছেন কসোভোকে স্বীকৃতি প্রদানকারী সার্বিয়ার প্রতিবেশী রাষ্ট্রগুলোর পরিনতি – মন্টেনিগ্রোতে সংঘর্ষ এবং বেলগ্রেড থেকে দুই দেশের কুটনৈতিককে বহিষ্কার। তবে তার পোস্ট একটা ইতিবাচক বক্তব্য দিয়ে শেষ হয়েছে:

[…] ধারণা করি সংগঠিত প্রতিবাদ তাৎক্ষণিক ক্ষুব্ধতার বহিঃপ্রকাশ হলেও দীর্ঘ মেয়াদে এটা কোন বড় সমস্যা হয়ে দাড়াবে না। পরিবর্তন হতে পারে যদি মানুষের স্মরণে ছাপ মেরে থাকা বিদ্বেষ ধুয়ে মুছে যেতে সমর্থ হয় অথবা দেশগুলো যদি ভবিষ্যতের দিকে দৃষ্টি দেয় যেখানে সীমান্ত আর তেমন গুরুত্বপূর্ণ থাকবে না ইইউ এর তত্ত্বাবধানে।

লিম্বিক নিউট্রেশন ওয়েবলগের জোনাথন ডেভিস লিখেছেন তিনি “একটা স্বাধীন কসোভোর জন্য” চান “ইইউতে যথাশীঘ্র সম্ভব সার্বিয়ার অন্তর্ভূক্তি” – কিন্তু “ইইউ/ইউএস/কসোভো ব্লকের মিথ্যা, অবৈধ ক্রিয়াকর্ম, প্রতারণা এবং শক্তি প্রয়োগ দেখে অসুস্থ্য হয়ে পড়েছেন”। তার মনে হয় ম্যাসেডোনিয়া এবং মন্টেনিগ্রোর ভবিষ্যৎ তেমন উজ্জ্বল নয়ঃ

তথাপি এখনও তাদের সবচেয়ে বড় বাণিজ্যিক অংশীদারদের ক্ষুব্ধতার মধ্যে বসবাস করতে হবে ও স্বীকৃতি প্রাপ্তি অভ্যন্তরীণ রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিরিখে বিবেচিত হবে।

ম্যাসেডোনিয়া এবং মন্টেনিগ্রো কর্তৃক কসোভোকে স্বীকৃতি দেবার পূর্বে “আন্তর্জাতিক বিচারালয়ে কসোভোর আইনগত ভিত্তিকে চ্যালেঞ্জ করার অনুমতি দিয়ে বিশাল সংখ্যক সমর্থন প্রাপ্তি” বিষয়ে লিখতে গিয়ে জোনাথন অভিমত দিয়েছেন যে “মনস্তাত্ত্বিক ও উদ্দেশ্যমূলক প্রভাব বিস্তারের জন্য ভোটের একদিনের মধ্যে সার্বিয়ার দুই ক্ষুদ্র প্রতিবেশীকে […] কসোভোকে স্বীকৃতি প্রদানের পূর্বপ্রস্তুতি নেয়া ছিল”:

[….] (১) সার্বদের দল ধ্বংস করা এবং (২) জাতিসংঘের উপর সার্বিয়ার বিজয় থেকে বৈশ্বিক মিডিয়ার ফোকাস সরিয়ে মন্টেনেগ্রো ও ম্যাসেডোনিয়ার বিশ্বাসঘাতকায় হতভম্ব সার্বিয়ার উপরে পুন:স্থাপনের জন্য [….]

অপমানের পাল্টা আঘাতের চাল পর্যবেক্ষণ করে তিনি আরো লিখছেন:

[….] সার্বিয়াতে ঘৃণ্য একটা চরিত্র মার্টি আহটিসারিকে এমনকি নোবেল শান্তি পুরষ্কার দেয়া হয়েছে, যিনি আলবেনীয়দের প্রতি ব্যাপকভাবে সহানুভূতিশীল হিসাবে পরিচিত এবং যার কারণেই কসোভো স্বাধীনতা (অবৈধ) অর্জন করেছে। বন্দী চৈনিক বংশোদ্ভব গাও ঝিশেং কে পুরষ্কার প্রদান প্রত্যাশিত ছিল কিন্তু কমিটি তার ঐতিহ্যবাহী রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত পুরষ্কার প্রদানের ধারাকে বজায় রেখেছে, আমার মতানুযায়ী এটা একদমই সার্বিয়ার ইউএন বিজয়ে সমন্বিত প্রত্যুত্তর দেবার অংশ হিসাবে করা হয়েছে।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .