বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

· ফেব্রুয়ারি, 2010

গল্পগুলো আরও জানুন মানবতামূলক কার্যক্রম মাস ফেব্রুয়ারি, 2010

পোস্টটি পড়ুন

হাইতি: কেন সকল গল্প এতিমদের নিয়ে ?

  17 ফেব্রুয়ারি 2010

একমাস আগে সাত মাত্রার এক ভূমিকম্প দক্ষিণ হাইতির বেশিরভাগ এলাকা ধ্বংস করে ফেলে। অনেকের কাছে হাইতির শিশু, বিশেষ করে এতিম শিশুরা এখন প্রধান ঘটনার ক্ষেত্রে অনেক চিন্তার এক বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। কিন্তু এই বিষয়ে হাইতির কণ্ঠস্বর খুব সামান্য ।

হাইতি: ত্রাণ প্রচেষ্টা এবং বিপদ

  13 ফেব্রুয়ারি 2010

ভূমিকম্পের পর প্রায় এক মাস পার হয়ে গেছে। এই ভূমিকম্প দেশটির রাজধানী পোর্ট-অ-প্রিন্স ও আশেপাশের বিভিন্ন সরকারি গণভবন ও ব্যক্তিগত ভবনের কয়েকটিকে ধ্বংস করে ফেলেছে। ফরাসীভাষী নেটবাসীরা (নেটিজেনরা) এসপাস এইসিয়েন ব্লগে জনতার বিভিন্ন বাস্তবতা সম্বন্ধে ব্লগ করছে, যারা এই ভূমিকম্প থেকে বেঁচে গেছে।

মালদ্বীপ: মানুষের সম্মানে ভাষা

  9 ফেব্রুয়ারি 2010

ইয়াফাউস ব্লগ হচ্ছে একটি বিশেষ ব্লগ যাতে সেরিব্রাল পালসী রোগে আক্রান্ত মালদ্বীপের একটি শিশুর বেড়ে ওঠা লিপিবদ্ধ করা হচ্ছে। এই ব্লগে আলোচনা করা হয়েছে পিপলস ফার্স্ট ল্যাঙ্গুয়েজ (মানুষের সম্মানে ভাষা) সম্পর্কে যা প্রতিবন্ধী মানুষ সম্পর্কে আলোচনা করার সময় তাদেরকে শ্রদ্ধার সাথে এবং সহানুভুতির সাথে উল্লেখ করে।

পোস্টটি পড়ুন

জাপান: বরফের ভেতর প্রজ্বলিত মোমবাতি হাইতিবাসীদের জন্য আশার স্ফুলিঙ্গ তৈরি করছে

  6 ফেব্রুয়ারি 2010

এক তীব্র শীতের মধ্যে ইন্টারন্যাশনাল ইউনির্ভাসটি অফ জাপানের প্রায় ১০০ জন বিভিন্ন দেশের ছাত্রছাত্রী এক সাথে জড়ো হয়েছিল বরফের বলের ভেতরে প্রজ্বলিত আশার মোমবাতি জ্বালানোর উদ্দেশ্যে, যা করা হয়েছিল ১২ জানুয়ারিতে সংঘটিত হাইতির ভূমিকম্পে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য।

পোস্টটি পড়ুন

হাইতি: পুনর্বাসনের রাজনীতি

  5 ফেব্রুয়ারি 2010

ভূমিকম্পের পরে হাইতি যে বাস্তবতার মুখোমুখি হয়েছে তা হচ্ছে ব্যাপক এক পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করা। জানুয়ারির ১২ তারিখের এই ভূমিকম্প রাজধানী পোর্ট-অ প্রিন্স এবং তার পরিবেশকে একেবারে ধ্বংস করে দিয়েছে। সমস্যা হচ্ছে দেশটিতে সুশাসনের অভাব রয়েছে। এখনো হাইতির ব্লগস্ফেয়ারের কিছু সদস্য কমবেশি একই ভাবে একই সুরে কথা বলছে, যখন ২০১০ সালের শুরুতে সংঘটিত এই ভূমিকম্পে ক্ষতিগ্রস্তদের পুনর্বাসনের কথা আসছে।

হাইতি: আঞ্চলিক দখলদারিত্বের প্রশ্নে ব্লগারদের প্রতিক্রিয়া

  3 ফেব্রুয়ারি 2010

ভূমিকম্পের পর দুই সপ্তাহ সময় ধরে হাইতির ব্লগাররা হাইতি সরকারের কাজকর্ম নিয়ে বেশ গুরুত্বপূর্ণ কিছু প্রশ্ন করছে। এখন তারা প্রতিবেশী দেশ এবং ক্যারিবিয়ান দ্বীপসমূহের প্রতিক্রিয়া নিয়ে আলোচনা করছে। এখানে ফরাসীভাষী যে সমস্ত পোস্ট এই সমস্ত প্রশ্ন নিয়ে আলোচনা করছে সে সবের পর্যালোচনা তুলে ধরা হল।

পোস্টটি পড়ুন

হাইতিতে গ্লোবাল ভয়েসেস: পুনর্নির্মাণ বিষয়ে

  3 ফেব্রুয়ারি 2010

যখন হাইতিতে বিচ্ছিন্নভাবে পরিষ্কার অভিযান চলছে তখন সেখানে এক বিতর্ক ছড়িয়ে পড়েছে যে ১২ জানুয়ারিতে যে সমস্ত বাড়ি ও অন্য ভবন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বা ধ্বংস হয়ে গেছে সবচেয়ে সেরা কোন উপায় সেগুলোকে নতুন করে নির্মাণ বা ঠিকঠাক করা যায়। হাইতির রাজধানী পোর্ট-অ-প্রিন্স থেকে জর্জিয়া পপলওয়েল বাড়ি ধ্বংস হয়ে যাওয়া ব্যক্তিদের আশ্রয়ের জটিলতার কথা তুলে ধরছেন।