বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী একটি হ্যাশট্যাগের ঝোঁক তুলেছেন তবে সেটি তাঁর আশানুরূপ হয়নি

Malaysian Prime Minister Najib Razak poses with a group of young people taking a selfie with him. Photo from the Facebook page of Najib.

মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাক সেলফি তোলার জন্য একদল তরুণদের সঙ্গে পোজ দিচ্ছেন। ছবিঃ ফেইসবুক।

মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাক বাস্তবিক অর্থে দুর্নীতির অভিযোগের বিরুদ্ধে সংঘাত করছেন, কিন্তু অনলাইনে তিনি একটি নতুন হ্যাশট্যাগ প্রচারাভিযানের আভা উপভোগ করছেন। গত ৭ মার্চ তারিখে শুরু করা #আমারপিএমকেসম্মানকরুন প্রচারাভিযানটি বাদ দিলে সম্ভবত নাজিবের এমনটা আশা করার কোন কারণ নেই। অনেক ইন্টারনেট ব্যবহারকারীই “সম্মান” শব্দটি প্রচারের পরিবর্তে নেতা হিসেবে প্রধানমন্ত্রীর অতীত রেকর্ডকে আক্রমণ করতে উক্ত হ্যাশট্যাগটি ব্যবহার করেছেন। সমালোচকেরা পাল্টা আক্রমণ করতে #আমারপিএমকেসন্দেহকরুন নামে একটি প্রতিদ্বন্দ্বীপূর্ণ হ্যাশট্যাগও প্রচার করতে শুরু করেছেন।

নাজিবের বিরুদ্ধে রাষ্ট্র পরিচালিত একটি বিনিয়োগ সংস্থা থেকে ৬০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলারেরও বেশি অর্থ গ্রহণের অভিযোগ উঠেছে। তিনি বলেছেন, তাঁর ব্যক্তিগত ব্যাংক অ্যাকাউন্টে জমা হওয়া এই অর্থ সৌদি আরবের রাজপরিবার থেকে প্রদান করা একটি রাজনৈতিক অনুদান। বিষয়টি দেশব্যাপী ব্যাপক বিক্ষোভ সৃষ্টি করেছে। এমনকি নাজিবের মিত্রদের মাঝে কেউ কেউ তাঁর পদত্যাগ দাবি করেছেন।

গত জানুয়ারি মাসে অ্যাটর্নি জেনারেল নাজিবকে সকল ধরণের দূর্নীতির দায় থেকে অব্যাহতি দিয়েছেন। তবে তাঁর পদত্যাগের দাবি জানিয়ে আন্দোলন আরও বেশি বেগবান হচ্ছে। সাবেক প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ সহ সুশীল সমাজের বিভিন্ন নেতৃবৃন্দ গত সপ্তাহে নাজিবের দাপ্তরিক অপসারণের দাবিতে একটি ঘোষণাপত্রে স্বাক্ষর করেন

এই ঘোষণাপত্রটি হয়তোবা নাজিবের সমর্থকদের অনলাইনে #আমারপিএমকেসম্মানকরুন হ্যাশট্যাগটি প্রচারণার পক্ষে জনমত সৃষ্টির একটি প্রচেষ্টা। যদিও মালয়েশিয়ান সক্রিয় কর্মীরা এই হ্যাশট্যাগটি চালু করেননি। (হ্যাশট্যাগটি ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সমর্থকরা ২০১৪ সালে তাঁর নির্বাচনী প্রচারণার জন্য যে হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করে তাঁর আদলে তৈরি করা)। মালয়েশিয়াতে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা “পারতাহান নেগারা কিতা” (আমাদের দেশকে রক্ষা কর) শিরোনামে একটি ফেইসবুক পেইজ খোলার মাধ্যমে হ্যাশট্যাগটিকে পুনর্জাগরিত করেছে। নাজিব সমর্থকদের তাঁদের অবরুদ্ধ প্রধানমন্ত্রীর পিছনে দাঁড়িয়ে আন্দোলনে উৎসাহিত করতে পেইজটি ব্যবহার করা হয়।

সমালোচনা করা ভাল, তবে নিজের দেশের ক্ষতি করবেন না। আমরা সবাই মালয়েশিয়ান। এটা আমাদেরই দেশ।

ক্যাবিনেট মন্ত্রী আজালিনা উসমান হ্যাশট্যাগটিকে একটি টুইটে ব্যবহার করলে এটি আরও জনপ্রিয়তা লাভ করে।

আমি #জহর থেকে এসেছি, আর আমি #আমারপিএমকেসম্মানকরুন হ্যাশট্যাগটি সমর্থন করি।

হ্যাশট্যাগটি জনপ্রিয়তা অর্জন করার সাথে এটি নাজিব সমালোচকদের মনোযোগ আকৃষ্ট করতে সমর্থ হয়। তাঁরা ত্বরিত গতিতে এই হ্যাশট্যাগের পোস্টগুলোকে উল্টে দিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে বিদ্রূপ করে বিভিন্ন লেখা পোস্ট করেন।

আমি #আমারপিএমকেসম্মানকরুন হ্যাশট্যাগটি সমর্থন করবো যদি তিনি পদত্যাগ করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন।

নাজিবকে জড়িয়ে বিভিন্ন কেলেঙ্কারিকে তুলে ধরে জনপ্রিয় করতে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা #আমারপিএমকেসন্দেহকরুন নামে আরেকটি হ্যাশট্যাগ চালু করেছে।

আমি #আমারপিএমকেসম্মানকরুন হ্যাশট্যাগটি সমর্থন করার কোন যৌক্তিক কারণ না পেলেও #আমারপিএমকেসন্দেহকরুন হ্যাশট্যাগটি সমর্থন করার অনেক কারণ পেয়েছি।

বিতর্কে চ্যাম্পিয়ন হওয়া একজন ছাত্র তালিকাবদ্ধ করেছেন কেন নাজিবের পদত্যাগ করা উচিত:

জোর করে শ্রদ্ধা পাওয়া যায় না,

সম্মান অর্জন করে নিতে হয়। #মালয়েশিয়াকেসম্মানকরুন, #আমারপিএমকেসম্মানকরুন নয়।

সিয়াহরেদজান জোহানের এই টুইটটি সম্ভবত #আমারপিএমকেসম্মানকরুন হ্যাশট্যাগের গল্পের সারমর্মঃ

#আমারপিএমকেসম্মানকরুন হ্যাশট্যাগটি একটি হুজুগ, তবে কারনগুলো সব ভুল, হা হা হা হা

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .