বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

যেদিন ঢাকা পানির নিচে ডুবে গেল

Heavy rainfall created water logging in several parts of Dhaka city causing huge sufferings of residents. Image by Sourav Lasker. Copyright Demotix (1/9/2015)

প্রবল বর্ষণে ঢাকা শহরের বিভিন্ন অংশ ডুবে গিয়েছিল। এর ফলে নগরবাসীদের ব্যাপক দুর্দশায় পড়তে হয়। ছবি তুলেছেন সৌরভ লস্কর। স্বত্ত্ব: ডেমোটিক্স (১/৯/২০১৫)

কখনো ইলশে গুঁড়ি, কখনো প্রবল, কখনো অবিরাম ধারায় বর্ষণ; গত সপ্তাহে বাংলাদেশ জুড়ে এভাবেই বৃষ্টিপাত হয়েছে। তবে কোথাও রাজধানী ঢাকার মতো অবস্থা হয়নি। গত মঙ্গলবারে ঢাকায় মাত্র দেড় ঘণ্টায় ৪২ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়। আর এই ব্যাপক বর্ষণে ঢাকার অনেক রাস্তাই ডুবে যায়। সব রাস্তায় তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। তাছাড়া রাস্তায় পানি জমে থাকার কারণে দুর্ঘটনার সংখ্যাও বাড়ে। ফলে কাজের উদ্দেশ্যে যারা বাইরে বেরিয়েছিলেন তারা দুর্ভোগের মুখে পড়েন।

দ্য ইকোনমিস্ট ইন্টেলিজেন্স ইউনিট (ইআইইউ) প্রতিবছর বিশ্বের বসবাস অযোগ্য শহরের তালিকা প্রকাশ করে থাকে। এ বছরের বসবাস অযোগ্য শহরের তালিকায় ঢাকার অবস্থান দ্বিতীয়। ঢাকায় জলাবদ্ধতার সমস্যা বেশ পুরোনো। অপরিকল্পিত নিষ্কাশন ব্যবস্থা এর মূল কারণ। তাছাড়া নতুন নতুন নির্মাণাধীন প্রকল্পের কারণে পানি নিষ্কাশন লাইন বন্ধ হয়ে গেছে। তাই স্বল্প সময়ের ভারী বর্ষণেও ঢাকার বেশিরভাগ রাস্তায় জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। আবার রাস্তা থেকে পানি নেমে যেতেও বেশ সময় লাগে।

টুইটার এবং অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে মানুষের হতাশা ছিল স্পষ্ট:

ঢাকায় আজ বিতিকিচ্ছিরি অবস্থা। যেদিকে চোখ যায়, শুধু পানি আর পানি। আমি কোনো রাস্তা দিয়েই যেতে পারলাম না। সব রাস্তায় পানি জমে আছে।

রাস্তায় পানি জমে থাকার কারণে নগরবাসীদের দুর্ভোগে পড়তে হচ্ছে।

প্রবল বৃষ্টিপাত হওয়া খুব স্বাভাবিক ব্যাপার। তবে ঢাকার বড় রাস্তাগুলো ডুবে যাওয়া মোটেও স্বাভাবিক ব্যাপার নয়। সব জায়গাতেই জলবায়ু পরিবর্তনের লক্ষণ দেখা যাচ্ছে।

বৃষ্টিতে পানি জমে ঢাকার অবস্থা কেমন হয়েছিল, ইউটিউব থেকে তার কিছু দৃশ্য শেয়ার করেছেন সাইফুর রহমান এবং শফিকুল ইসলাম

ঢাকা শহরের লাইভ ওয়াটার বাস দেখুন।

ঢাকা পানি ও পয়:নিষ্কাশন কর্তৃপক্ষ (ওয়াসা)-এর নির্বাহী পরিচালক তাকসিম এ খান জানিয়েছেন, ঢাকায় ৫৬টি পয়নিঃস্কাশন খালের মধ্যে ২৬টি চালু আছে। তবে এগুলোও পূর্ণদমে কাজ করতে পারছে না। কর্তৃপক্ষ যদি বৃষ্টির পানি ঠিক ভাবে নেমে যাওয়ার ব্যবস্থা না করতে পারে, তাহলে তো এ সমস্যার সমাধান হবে না।

খ্যতনামা কৌতুকবিদ নাভিদ মাহমুদ নাগরিক দুর্ভোগ নিয়ে কৌতুক করে লিখেছেন:

ভারত-বাংলাদেশ পানি চুক্তির আলোচনায় কি ঢাকার সমস্যা অন্তর্ভুক্ত হবে?

ঢাকার জলাবদ্ধতা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহারকারীরা বেশ কিছু মিম বানিয়েছেন। এগুলো বেশ জনপ্রিয়ও হয়েছে। মিমগুলো আনিস সরকার, মজা লস, কেউ আমারে মাইরালা পেইজ থেকে নেয়া:

Gulistan to Gabtoli via Dhanmondi (water transport in Dhaka streets)

গুলিস্তান টু গাবতলী ফেরি ভায়া ধানমণ্ডি। (ওয়াটার ফেরি ঢাকার রাস্তায় চলে এসেছে)।

"Glad we have become only a middle income country"  "Why?" "The water is only at the middle way of body. If we were a high income country, imagine what would happen."

ভাগ্যিস আমরা মধ্যম আয়ের দেশ!
কেন?
মধ্যম আয়ের দেশ, তাই এই পর্যন্ত পানি! উচ্চ আয়ের দেশ হইলে তো মাথার উপর পর্যন্ত পানি হইতো।

Lucky! That I took my umbrella while going out.

ভাগ্যিস! ছাতাটা নিয়ে বের হইসিলাম!

জলাবদ্ধতা ইস্যু নিয়ে সবাইকে সোচ্চার হওয়ার আহ্বান জানিয়ে শ্যামল ঘোষ ফেসবুকে লিখেছেন:

Not only in Dhaka, most of the cities in Bangladesh are facing (the) same problem with rain (&) flood but it seems like no one (is) there to talk about (it). Where are the environment activists, where are the city planners? Looks like nobody wants to have anything to do (with it), all are getting used to it ? […] Wake up…!

শুধু ঢাকা নয়, বাংলাদেশের বেশিরভাগ শহরেই বৃষ্টি ও বর্ষায় এরকম জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। কিন্তু কাউকে এটা নিয়ে কথা বলতে দেখি না। কোখায় পরিবেশ আন্দোলনকারী? কোথায় নগর পরিকল্পনাবিদ? কেউ কিছু করতে চায় না, সবাই কি এতে অভ্যস্ত হয়ে যাচ্ছে? […] সবাই সোচ্চার হোন…!

কী কারণে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে, সেটা ব্যাখ্যা করেছেন হাসিবুল হক:

Bangladesh is experiencing an extended monsoon this year with 40 percent more rain than annual average, and is set to be a record amount for the last 10 years. While it is true that water-logging in Dhaka has a lot to do with illegal constructions on the rivers in and around Dhaka, there is no doubt that this extreme weather pattern is what climate scientists have been predicting all along—as the result of climate change caused by global warming.

এ বছর বাংলাদেশে মৌসুমী বৃষ্টিপাতের পরিমাণ স্বাভাবিকের তুলনায় ৪০ শতাংশের বেশি হয়েছে। যা গত ১০ বছরের মধ্যে রেকর্ড পরিমাণ। এটা সত্য যে জলাবদ্ধতা দূরকরণে ঢাকার চারপাশ ও নদীর উপরের অবৈধ নির্মাণ, বৈশ্বিক উষ্ণতা বৃদ্ধির কারণে জলবায়ু খামখেয়ালি আচরণ নিয়ে অনেক কিছু করার আছে।

এদিকে সবকিছুর জন্য জলবায়ু পরিবর্তনকে দায়ী না করতে অনুরোধ করেছেন সাইফ কামাল:

Yes climate change is leading to the rain, and it floods in every city but the water doesn't hold on like this! Yes, people clog drains with waste. [..]

Have we built a better drainage system? Have we learned to dispose the waste right? The rivers around are polluted by 98%.

Let's not ask petty questions but demand service delivery that are priorities.

হ্যাঁ, জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে বৃষ্টি হচ্ছে। এর ফলে সব শহর পানিতে ডুবে যাচ্ছে। কিন্তু পানি এভাবে দীর্ঘক্ষণ আটকে থাকতে পারে না! হ্যাঁ, ড্রেন আবর্জনায় বন্ধ থাকার কারণে এমন হচ্ছে! […]

আমরা কি পরিকল্পিত ড্রেনেজ ব্যবস্থা তৈরি করেছি? আমরা কি আবর্জনা কীভাবে ফেলতে হয় তা শিখতে পেরেছি? আমাদের যে নদীগুলো রয়েছে, তার ৯৮ শতাংশই দুষিত।

তাই প্রশ্ন করা বাদ দিন। অগ্রাধিকার ভিত্তিতে যেগুলো দরকার, তার দাবি জানান।

Downpour leads to severe flooding and traffic jam in most areas of the capital city of Dhaka, Bangladesh.  Image by Sk Hasan Ali. Copyright Demotix (1/9/2015)

প্রবল বর্ষণে ঢাকা শহরের বিভিন্ন অংশে জলাবদ্ধতা ও যানজটের সৃষ্টি হয়েছিল। ছবি তুলেছেন এসকে হাসান আলী। স্বত্ত্ব: ডেমোটিক্স (১/৯/২০১৫)।

বর্জ্য ব্যবস্থাপনাকেই দায়ী করেছেন ব্রহ্মাণ্ড প্রতাপ বড়ুয়া রিপন:

Most of the roads at downtown have gone almost under water, but whom to blame? Is it us who never follow waste management or the greedy builders who just aim to earn money by covering all the ponds and lakes. The funniest thing is most of the people blame the Government for this water jamming.

শহরতলীর বেশিরভাগ রাস্তাই পানিতে ডুবে গিয়েছিল। কিন্তু এর জন্য দায়ী কে? এটা কি আমাদের দোষ যারা বর্জ্য ব্যবস্থাপনা ঠিকমতো অনুসরণ করি না। নাকি টাকা কামানোর ধান্দায় যারা খাল, পুকুর ভরাট করে অট্টালিকা বানাচ্ছে, তাদের। সবচে’ মজার ব্যাপার হলো জলাবদ্ধতার জন্য সবাই সরকারকে দায়ী করছে।

মাহফুজ রহমান মনে করেন, জলাবদ্ধতার পিছনে প্রত্যেক নাগরিকের যেমন দায় আছে, তেমনি সমাধানও তাদের হাতে ছিল:

I noticed last few days my facebook timeline have so many people's photo riding boat on road or such. Complain & complain everywhere.

I will say this 20% natural and 80% man made situation. This situation is applicable and will happen again and again until we stop throwing trash in street, Drain, or anywhere where we shouldn't.

গত কয়েকদিন ধরে আমার ফেসবুক টাইমলাইনে খেয়াল করেছি, অনেকেই রাস্তায় নৌকায় চড়ার ছবি শেয়ার করছেন। সবার এ নিয়ে অভিযোগের অন্ত নেই।

আজ যে অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে তার ৮০ শতাংশই মানুষের কারণে হয়েছে। বাকি ২০ শতাংশ হয়েছে প্রাকৃতিক কারণে। এ ধরনের ঘটনা বারে বারে ঘটতে থাকবে যতদিন পর্যন্ত আমরা আবর্জনাগুলো রাস্তার ওপরে কিংবা ড্রেনে ছুঁড়ে না ফেলি।

বাংলাদেশ এমন একটি ভৌগলিক অবস্থানের দেশ, যেখানে এ ধরনের প্রবল বৃষ্টিপাত হওয়া খুব স্বাভাবিক। তাই জলাবদ্ধতা সমস্যার সমাধানে বাংলাদেশ কী ধরনের পরিকল্পনা করছে, তা দেখার জন্য আমাদের পরবর্তী প্রবল বর্ষণের জন্য অপেক্ষা করতে হবে। আর ঢাকা শহরের নির্বাচিত দুই মেয়রদ্বয়ের ব্যবস্থাপনা দক্ষতার এটা হবে প্রথম পরীক্ষা।

1 টি মন্তব্য

  • muniaamoni

    আজকাল বৃষ্টিপাত হওয়া যেন খুব স্বাভাবিক ব্যাপার হয়ে উঠেছে। তবে ঢাকার বড় রাস্তাগুলো ডুবে যাওয়া জনসাধারনগন অনেক অসুবিধায় পড়ছে।

আলোচনায় যোগ দিন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .