বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

পুনরায় উন্মুক্ত করা হল কম্বোডিয়ার প্রতিবাদের স্থান এবং মুক্ত চিন্তার প্রতীক ফ্রিডম পার্ক

প্রতিবন্ধকতা অপসারণ করা হচ্ছে; শান্তিপূর্ণভাবে বিক্ষোভ প্রদর্শনীর জন্য নির্ধারিত স্থানটি আবার জনতার জন্য খুলে দেওয়া হয়েছে।

কম্বোডিয়ার স্থানীয় কর্তৃপক্ষ রাজধানী নমপেনের ফ্রিডম পার্ক আবার খুলে দেওয়ার আদেশ প্রদান করার পর পুলিশ এর চারদিক দিয়ে ঘেরা বাঁধা এবং কাঁটাতারের বেড়া অপসারণ করে। জানুয়ারিতে এই পার্ক বন্ধ করে দেওয়া হয়, যখন তা সরকারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানানোর এক প্রধান এলাকায় পরিণত হয়।

গত বছরের জুলাই মাসে অনুষ্ঠিত নির্বাচনের ফলাফল বিরোধীরা প্রত্যাখান করার পর থেকে এই স্থানে তারা ব্যাপক কর্মসূচি পালন করে। বিরোধী দল একই সাথে সংসদ বয়কট করে এবং নির্বাচনী প্রক্রিয়ার ব্যাপারে স্বাধীন তদন্তের আহ্বান জানায়। বিরোধী দলের অভিযোগ ছিল, নির্বাচনী ফলাফলকে প্রভাবিত করার জন্য সরকারি দল নির্বাচনে প্রতারণা এবং সহিংসতার আশ্রয় গ্রহণ করেছে, যে দলটি তিন দশকের বেশী সময় ধরে দেশটির ক্ষমতায় রয়েছে।

সরকার বিরোধী বিক্ষোভ তখন জোরালো হয়ে ওঠে যখন বিরোধী দল গার্মেন্টস শ্রমিকদের ধর্মঘট সমর্থন করে, যারা তাদের ন্যূনতম মাসিক বেতন বৃদ্ধির দাবী জানাচ্ছিল। জানুয়ারি মাসে বিক্ষোভকারীদের সাথে পুলিশের সংঘর্ষ হয়, যে ঘটনায় পাঁচজন বিক্ষোভকারীর মৃত্যু ঘটে। এই ঘটনার পর সরকার ফ্রিডম পার্কের ভেতর অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ ছত্রভঙ্গ করার আদেশ দেয় এবং এই স্থানে গণমিছিল নিষিদ্ধ করে। একই সাথে সরকার জাতীয় নিরাপত্তার হুমকির অজুহাতে পার্ক বন্ধ করে দেয়।

১৫ জুলাই তারিখে, কয়েকজন বিক্ষোভকারী “ফ্রিডম পার্ক উন্মুক্ত করে দাও” কর্মসূচির মাধ্যমে আবার পার্কে প্রবেশের চেষ্টা করে, কিন্তু পুলিশ দ্রুত তাদের পাকড়াও করে।

তবে, ৬ আগস্ট তারিখে, এখন “আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি আবার স্বাভাবিক হয়ে এসেছে” এমন দাবীর পর, নমপেনের নগর প্রশাসক পার্ক পুনরায় খুলে দেওয়ার অনুমতি প্রদান করে এক বিবৃতি জারি করে:

এখন বিশেষ করে যখন, নিরাপত্তা এবং জন শৃঙ্খলা পুনরায় স্বাভাবিক অবস্থায় নিয়ে আসা সম্ভব হয়েছে, এই অবস্থায় কর্তৃপক্ষ আজ থেকে ফ্রিডম পার্ক খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে।

অতীতে, এই পার্কের অপব্যবহার করা হচ্ছিল, এখানে এমন উত্তেজনার সৃষ্টি করা হয়েছিল যা সংঘর্ষে রূপ নিচ্ছিল, যার ফলে সাধারণ মানুষ মারা যাচ্ছিল এবং তাদের সর্বনাশ হচ্ছিল, আর এতে ব্যক্তিগত সম্পত্তি ধ্বংস হচ্ছিল। এই ধরনের অপব্যবহার শান্তিপূর্ণ ভাবে বিক্ষোভ প্রদর্শনের সাথে খাপ খায় না, আর এ কারণে কর্তৃপক্ষ পার্ক বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে।

যে ধাতব প্রতিবন্ধকতা দিয়ে পার্কটি বন্ধ করে রাখা হয়েছিল, তা অপসারণে অনেকে উল্লাস প্রকাশ করেছে

অসাধারণ, ৬ আগস্ট, ২০১৪-এ নমপেনের ফ্রিডম পার্ক থেকে কাঁটাতারের বেড়া সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

ফ্রিডম পার্ক খুলে দেওয়া হয়েছে। এর চারপাশে যে কাঁটাতারের ঘেরা দেওয়া হয়েছিল, ইতোমধ্যে তা অপসারণ করা হয়েছে।

সিএনআরপির বিক্ষোভের বিরুদ্ধে সরকারের চলা মাসের পর মাস অভিযানের পর পর আজ সকালে ফ্রিডম পার্ক থেকে প্রতিবন্ধকতাগুলো খুলে নেওয়া হল।

সিএনআরপি হচ্ছে কম্বোডিয়ার বিরোধী দল কম্বোডিয়া ন্যাশনাল রেসকিউ পার্টির সংক্ষিপ্ত রূপ।

পার্ক খুলে দেওয়ার ঘটনাকে সরকার এবং বিরোধী দলের মাঝে সংঘঠিত এক চুক্তির অংশ হিসেবে দেখা হচ্ছে বিশেষ করে যখন বিরোধী দল সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে যে অবশেষে তারা দশ মাস ধরে চলা সংসদ বয়কটের ইতি টানবে। ফ্রিডম পার্ক খুলে দেওয়ার এক দিন আগে ৫৫ জন বিরোধী দলীয় সাংসদ জাতীয় সংসদে নতুন সদস্য হিসেবে শপথ গ্রহণ করে

জাতীয় সংসদে সিএনআরপি-এর আইনপ্রণেতারা

প্রতিবন্ধকতা অপসারণের বিষয়টি প্রত্যক্ষ করার জন্য বিরোধী দলের কয়েকজন সদস্য ফ্রিডম পার্কে উপস্থিত ছিলেন।

এই ধরনের ঘটনার ইতি টানার এবং নতুন করে শুরুর বিষয়টিকে চিহ্নিত করার জন্য মু সোচুয়া এবং তার সিএনআরপির সহকর্মীরা ফ্রিডম পার্ক আবার খুলে দেওয়ার ঘটনা উদযাপন করছে।

মু সোচুয়া বিরোধী দলীয় এক আইন প্রণেতা। যদি বিরোধী দল প্রণীত সংস্কার সংসদে উপেক্ষিত হয় তাহলে তিনি পার্কে আবার বিক্ষোভ আয়োজনের ব্রত গ্রহণ করেছে।

আশা করা হচ্ছে যে ফ্রিডম পার্ক আবার খুলে দেওয়া জনগণের গণতান্ত্রিক অধিকার আরো বড় আকারে স্বীকৃত প্রদানের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাবে, যে পার্কটি কম্বোডিয়ার মত প্রকাশের স্বাধীনতার এক প্রতীক।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .