বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

বলিভিয়ার প্রেসিডেন্ট মোরালেস বনাম সিএনএন: একটি বিতর্কিত সাক্ষাত্কার

বলিভিয়ার প্রেসিডেন্ট ইভো মোরালেস সবসময় সিএনএন থেকে দূরে থাকতে চান। প্রেসিডেন্ট মোরালেস বামপন্থী কৃষক নেতা। ২০০৬ সাল থেকে তিনি দেশটি শাসন করে আসছেন। তিনি সিএনএন-কে এই অঞ্চলের “সাম্রাজ্যবাদের মুখপত্র” বলে অভিযুক্ত করে আসছেন।

যদিও সিএনএন-এর স্প্যানিশ বিভাগের জনপ্রিয় উপস্থাপক ইসমায়েল কালা প্রেসিডেন্ট মোরালেসকে কোনোভাবে সাক্ষাৎকার দেয়ার জন্য রাজি করিয়েছিলেন।

গত ১৩ আগস্ট ২০১৩ তারিখে সাক্ষাৎকার প্রচারিত হওয়ার পর জনমত দুইভাগে ভাগ হয়ে গেছে।

প্রাথমিকভাবে সাক্ষাৎকার প্রচারিত হওয়ার কথা ছিল ৮ আগস্ট ২০১৩ তারিখে। যদিও শেষ মুহূর্তে অনাকাঙ্ক্ষিতভাবে সাক্ষাৎকারটি বাতিল হয়ে যায়। কিন্তু ততক্ষণে কালা বলিভিয়ার রাজধানী লা পাজে প্রেসিডেন্টের প্রাসাদের এসে পৌঁছে গেছেন:

তিন মাস আগে আমার টিম প্রেসিডেন্ট মোরালেসের সাক্ষাৎকারের ব্যবস্থা করে। যার তারিখ ছিল ৮ আগস্ট। তারা নিশ্চিতও করেছিল। আমরাও সাক্ষাৎকার নেয়ার জন্য প্রাসাদে চলে আসি। এখন তা বাতিল করা হয়েছে।

ওইদিন-ই কিছুক্ষণ পরে কালা স্থানীয় সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‍”আমি আর কখনোই [পেশাগত জীবনে] প্রেসিডেন্ট মোরালেসের সাক্ষাৎকার নেয়ার জন্য যাবো না”।

তার বক্তব্যের প্রেক্ষিতে প্রেসিডেন্ট মোরালেস একটি সাধারণ বিবৃতি দেন:

“A veces usan nuestro nombre para figurar en los medios de comunicación como ese señor Cala, habría que averiguar de dónde viene y porque se escapó de Cuba […] que actitud tan cobarde la de ese periodista”.

তারা কিছু কিছু সময় আমাদের নাম পত্রিকায় ব্যবহার করেছে। যেমনটি জনাব কালা করেছেন। আমরা খতিয়ে দেখবো তিনি কোথা থেকে এসেছেন এবং তিনি কেন কিউবা থেকে পালিয়ে গেছিলেন। […] এই সাংবাদিকের আচরণ কাপুরুষের মতো!

প্রেসিডেন্ট মোরালেস ব্যাখ্যা দিয়েছেন কেন তিনি প্রাথমিকভাবে সাক্ষাৎকার দেয়ার বিষয়টি বাতিল করে দিয়েছিলেন:

“Porque yo he suspendido una entrevista quejándose publicamente, a mi no me pueden obligar a hablar en cualquier medio de comunicación, quiero que sepan compañeros porque suspendí la entrevista, cuando nos entrevistan ese periodista quería editar, entonces cuando editan, direccionan a su antojo”

আমি সাক্ষাৎকার বাতিল করায় জনসম্মুখে অভিযোগ করেছেন… কোনো মিডিয়ার সাখে কথা বলতে আমাকে কেউ বাধ্য করতে পারেন না। আমি আপনাকে জানিয়ে রাখতে চাই কেন আমি সাক্ষাৎকার বাতিল করেছি: সাক্ষাৎকারের পরে সাংবাদিকরা তা সম্পাদনা করে। তারা যখন সম্পাদনা করে, তখন এর মানেই বদলিয়ে দিতে পারে।

এরপরে নানা ঘটনার পরে ১০ আগস্ট ২০১৩ তারিখে সাক্ষাৎকারটি অনুষ্ঠিত হয়। ১৩ তারিখে সিএনএন-এর স্প্যানিশ বিভাগের কালা'র প্রাইম টাইমের অনুষ্ঠানে তা প্রচারিত হয় (সম্পূর্ণ সাক্ষাত্কারটি এই লিংকে দেখতে পাবেন)।

Photo of President Evo Morales and CNN presenter Ismael Cala, shared on Twitter by @CNNEPrensa

প্রেসিডেন্ট ইভো মোরালেস এবং সিএনএন-এর অনুষ্ঠান উপস্থাপক ইসমায়েল কালা। টুইটারে ছবি শেয়ার করেছেন @CNNEPrensa

জাতীয় গণমাধ্যমগুলো এই সাক্ষাত্কার গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করে এবং সেই অনুষ্ঠানের কিছু কিছু অংশ রাতের অনুষ্ঠানে তারা প্রচারও করে। কেন না, সিএনএন শুধুমাত্র ক্যাবল টিভি গ্রাহকরাই দেখতে পারেন। এদিকে এক সাম্প্রতিক জরিপে দেখা গেছে, বলিভিয়ার মোট জনগোষ্ঠীর মাত্র ২৫% এর ক্যাবল টিভি নেটওয়ার্কে প্রবেশাধিকার রয়েছে। তবে বলিভিয়ার নেটিজেনরা খুবই সক্রিয় এবং তারা সাক্ষাৎকার প্রচারের সময়ে এবং পরে সোশ্যাল মিডিয়ায় এটি নিয়ে আলোচনা করে।

সাক্ষাৎকারের প্রথম অংশ ছিল চাপা উত্তেজনায় ঠাসা। এই অংশে প্রেসিডেন্ট মোরালেসকে বেশ অস্বস্তি প্রকাশ করতে দেখা গেছে। আর উপস্থাপক কালা চেষ্টা করছিলেন নিজেকে সামলিয়ে রাখতে। তারপর অনুষ্ঠান যতো এগিয়েছে, টেনশন ততো কমে জাতীয় এবং বিতর্ক নেই এমন বিষয়ে প্রশ্ন এসেছে।
সাক্ষাৎকার প্রচারিত হওয়ার পর লাতিন আমেরিকার নেটিজেনরা মতামত দিতে গিয়ে স্পষ্টভাবে বিভক্ত হয়ে পড়েছেন।

এস্তেবান মোরালেসের মতো কিছু ব্লগার মনে করেন, প্রেসিডেন্ট মোরালেস সাক্ষাত্কারে এই অঞ্চলের ভিন্ন ইমেজ তুলে ধরার সুযোগ নষ্ট করেছেন। তার ব্লগে তিনি লিখেছেন:

Más allá del libreto repetitivo del discurso oficial, por el que no nos hemos enterado de absolutamente nada nuevo, hubo algo que me ha llamado poderosamente la atención. Evo estuvo, desde el principio hasta el final de la entrevista, a la defensiva. Pasivo agresivo a ratos, quiso quince minutos después de iniciada la entrevista ganar la posición dominante – demasiado tarde, una entrevista no es como el fútbol, o se gana la mano superior desde el arranque o se está condenado – y, aunque Cala fue muy respetuoso incluso cuando fue insultado por su entrevistado, el Presidente dio la sensación permanente de comportarse como un niño caprichoso, fatigado, impaciente y dispuesto a patear el tablero en cualquier momento. Su lenguaje corporal fue especialmente elocuente: incómodo, cambiando de postura en una silla que parecía muy dura, con señales claras de agotamiento.

প্রেসিডেন্টের বারংবারের সরকারি ভাষণে আমরা নতুন কিছু পাইনি। সেখানে এমন কিছু থাকে না, যেটা আমাকে আকর্ষণ করতে পারে। এই সাক্ষাত্কারের প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত ইভো মোরালেস রক্ষণশীল থেকে গেছেন। এক পর্যায়ে আক্রমণ-প্রতি আক্রমণ হয়েছে। সাক্ষাৎকার শুরু হওয়ার পনেরো মিনিটে তিনি নেতৃত্বের আসনে বসেছেন। তবে পরের দিকে সাক্ষাৎকার আর ফুটবল ম্যাচ হয়ে থাকেনি […] এবং এমনকি কালা অপমানিত হলেও সে অশ্রদ্ধা প্রকাশ করেনি। আর প্রেসিডেন্ট অস্থিরমতি বালকের মতো আচরণ করে গেছেন। তিনি যেন ক্লান্ত, অধৈর্য এবং সবসময় বিষয়ের বাইরে কথা বলতে সচেষ্ট ছিলেন। তার শারীরিক ভাবভঙ্গি ছিল অন্যরকম: অস্বস্তিকর, শ্রান্তি বোধের সাথে ছিল শক্ত চেয়ারের স্থান পরিবর্তন।

অন্য দিকে, আরো অনেক ব্লগারের মতো লা ভজ দ্য সান জোয়াকুইন বিষয়টি দেখছেন এক ভিন্ন দৃষ্টিভঙ্গিতে:

La televisora norteamericana CNN en español, bautizada como Cadena Más Mentirosa (CMM), quedó en ridículo en entrevista que le realizó al presidente de Bolivia, Evo Morales, quien obligó a su interlocutor Ismael Cala a no poder manipularlo, como acostumbra a hacer ese medio de prensa. […]
[Evo Morales] expresó además claramente que la citada televisora siempre ha representado los intereses imperialistas de Washington, no solo en Latinoamérica, sino internacionalmente.

মার্কিন সম্প্রচার মাধ্যম সিএনএন-এর স্প্যানিশ শাখা “সবচে’ মিথ্যাবাদী চ্যানেল” হিসেবে পরিচিত। তারা সাক্ষাত্কারে প্রেসিডেন্ট মোরালেসকে উপহাস করতে চাইতো। কিন্তু বলিভিয়ার প্রেসিডেন্ট ইভো মোরালেস উপস্থাপক ইসমায়েল কালা-কে অনুষ্ঠানকে উদ্দেশ্যমূলকভাবে ব্যবহারের সুযোগ দেন নি। […] ইভো মোরালেস পরিষ্কারভাবে বলেছেন যে, টিভি চ্যানেলটি সবসময় ওয়াশিংটনের সাম্রাজ্যবাদী উদ্দেশ্যের প্রতিনিধিত্ব করে। লাতিন আমেরিকা কিংবা আন্তর্জাতিক উদ্দেশ্যের প্রতিনিধিত্ব করে না।

টুইটার ব্যবহারকারী আন্দ্রে মিলান (@AndreiMillan) মিলিটারি অবস্থানের পক্ষে না থেকেও প্রেসিডেন্ট মোরালেসের পক্ষে বলেছেন:

প্রেসিডেন্ট মোরালেসের সাথে কালা'র সাক্ষাৎকার চমৎকার হয়েছে। প্রেসিডেন্ট মোরালেস মার্কিন মিডিয়ার প্রতি চূড়ান্ত সন্দিগ্ধ ছিলেন। এবং এটা সত্য।

“সাম্রাজ্যবাদী” মিডিয়ার বিপরীতে কালা'র ধৈর্য এবং মডারেশনের প্রতিও অনেকে প্রশংসা করেছেন।

যদিও বলিভিয়ার সাংবাদিক মেরি ভাকা (@meryvaca) [es] অনুষ্ঠানের পরে সাধারণ মানুষের উপলদ্ধি কেমন ছিল সেই যুক্তি দিয়েছেন:

ইভো এবং কালা: দুই আত্ম-অহংকারী মানুষ টিভির ছোট পর্দার জন্য বড়ই বেমানান।

জর্জিও ম্যাকার্থি এই পোস্টের ইংরেজি সংস্করণটি প্রুফরিডিং করে দিয়েছেন।

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .