বন্ধ করুন

আমাদের স্বেচ্ছাসেবক সম্প্রদায় কাজ করে যাচ্ছে বিশ্বের কোনা থেকে না বলা গল্পগুলো আপনাদের কাছে তুলে ধরতে। তবে আপনাদের সাহায্য ছাড়া আমরা তা পারব না। আমাদের সম্পাদনা, প্রযুক্তি এবং প্রচারণা দলগুলোকে সুষ্ঠুভাবে চলতে সহায়তার জন্যে আপনারা আপনাদের দানের অংশ থেকে কিছু গ্লোবাল ভয়েসেসকে দিতে পারেন।

সাহায্য করুন

উপরের ভাষাগুলো দেখছেন? আমরা গ্লোবাল ভয়েসেস এর গল্পগুলো অনুবাদ করেছি অনেক ভাষায় যাতে বিশ্বজুড়ে মানুষ এগুলো সহজে পড়তে পারে।

আরও জানুন লিঙ্গুয়া অনুবাদ  »

কেনিয়ায় পশুকাম বৃদ্ধির সম্ভাবনার এক সাম্প্রতিক সংবাদে টুইটারে প্রতিবেশী উগান্ডাবাসীর বিদ্রূপ আলোচিত ধারায় পরিণত

কেনিয়ায় পশুকাম ব্যাপক ভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে, সাম্প্রতিক এক সংবাদে এমনটা দাবী করার পর টুইটারে প্রতিবেশী উগান্ডার নাগরিকদের একগাদা বিদ্রূপ উন্মোচিত হয়েছে।

আইকিউফরনিউজ, একটি অনলাইন সংবাদ সংগঠন, যা আফ্রিকা সম্বন্ধে সংবাদ প্রদান এবং বিশ্লেষণ করে। ২৫ জুলাই ২০৩ তারিখে এটি একটি সংবাদ প্রদান করে, যা কেনিয়ায় ক্রমশ বৃদ্ধি প্রাপ্ত এই ধারাটির বিষয়ে। উক্ত সংবাদে বলা হয়েছে:

প্রথমে আলোচনায় উঠে আসে প্রখ্যাত পর্যটন নগরী মুম্বাসা, যেখানে দুজন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীসহ ১১ জন নারীকে কুকুরের সাথে যৌন সর্ম্পক স্থাপন অবস্থায় পাওয়া যায়। এরপর গরু ধর্ষণের অভিযোগে টিগানিয়ার এক বিখ্যাত ব্যাবসায়ীকে পুলিশ আটক করে।

কাহিনীর এখানে ইতি নয়। এমন খুব কম দিনই আছে, যখন কেনিয়ার নাগরিকদের প্রাণীর সাথে ঘনিষ্ঠ অবস্থায় আবিস্কার করা হয় না, এর সাম্প্রতিকতম হচ্ছে নেইয়েরির ঘটনা, যেখানে মুরগীর সাথে রাত কাটানোর কারণে এবং মুরাঙ্গায় চারজন পুরুষকে গাধার সাথে যৌন কর্মরত অবস্থায় পাকড়াও করা হয়েছে।

মুরগীর সাথে ব্যক্তিটির যৌন সম্পর্ক স্থাপনের ঘটনায়, বিষয়টি তার ১০ বছরের পুত্রের চোখে ধরা পড়ে যে তার ভাইকে সতর্ক করে, এই মুরগীর মালিক, সে পরে পুলিশকে বিষয়টি অভিহিত করে, এখন পুলিশ বলছে, তারা উক্ত মুরগীর মৃত্যুর কারণ খতিয়ে দেখতে একজন পশু চিকিৎসকের সেবা/ সাহায্য অনুসন্ধান করছে।

এই সংবাদের পরিপ্রেক্ষিতে, উগান্ডার কয়েকজন নাগরিক কেনীয় নাগরিকদের নিয়ে মজা করার জন্য #কেনিয়ানসএন্ডএ্যানিমাল (কেনীয় নাগরিক এবং পশু) নামক হ্যাশট্যাগ তৈরী করেছে। উগান্ডাবাসী নন, এমন অন্য অনেক টুইটার ব্যবহারকারী এই আলোচনায় যোগ দিয়েছে।

হেলেন হাসইয়ানুট (@হাসিয়ানুট) মন্তব্য করেছেন :

@হাসিয়ানুট: কেনিয়ার পত্রিকার নিঃসঙ্গ হৃদয় কলামে এক ৪২ বছর বয়স্ক সুদর্শন ব্যক্তি ভালোবাসার জন্য ব্রয়লার মুরগী সন্ধান করছে

সুইটি হ্যাঙ্কস (@সুইটিহ্যাঙ্কস) উল্লেখ করেছে:

@সুইটিহ্যাঙ্কস:এ বছর কেনীয় নাগরিকরা আরো বেশী পশু চিকিৎসক তৈরী করবে, এই প্রকল্পে তাদের যথেষ্ট ব্যবহারিক জ্ঞান রয়েছে।

হি ইজ নট এ্যালাউড (@হিইজনটএ্যালাউড) আরেকটি বিষয়টি নির্দেশ করেছে :

@হিইজনটএ্যালাউড:আমার ছেলেবন্ধু আমাকে এ্যানিমেল প্লানেট নামক টিভি চ্যানেল দেখতে দেয় না। সে হয়ত তার প্রাক্তন সঙ্গীকে সেখানে আবিস্কার করতে পারে।

এডগার (@এডগারকেডাব্লিউ) লিখেছে:

@এডগারকেডাব্লিউ:আমি বাজি রেখে বলতে পারি, কেনিয়ার সবচেয়ে সম্মানজনক পেশা হচ্ছে চিড়িয়াখানার পশু সংরক্ষকের চাকুরী।

এ্যালেন সেসনেওয়াঙ্গাসের (@সাসোজো৮১আন্দিমা) উগান্ডার একজন কম্পিউটার বিজ্ঞানী,তার টুইটের জবাবে জেফ (@এন্ডএসজেফ) লিখেছে:

@সাসোজেফ৮১:তার মানে এমন একজন কেনীয় নাগরিক রয়েছে, যে চায় যীশুর এক নিরপেক্ষ বিচার হোক? একজন এক নির্বোধ এখন নেদারল্যান্ডের শহর হেগে গিয়ে-এর বিরুদ্ধে মামলা করবে? এমনকি, অলৌকিক কোন কিছুর দ্বারা এই নির্বুদ্ধিতার উপশম করা সম্ভব নয়।

@এ্যান্ডএসজেফ:হাহাহা আমি আমি আপনাকে বলতে পারি যে আমি অপেক্ষা করছি কখন আরেকজন কেনীয় নাগরিক, যে শূকরের মাঝে শয়তান প্রবিষ্ট করার জন্য যীশুর নামে মামলা করতে যাচ্ছে। আপনি জানেন কেনীয় এবং পশুর মাঝে এক সর্ম্পক রয়েছে।

উগান্ডার স্থাপত্যবিদ্যার এক ছাত্র মারভিন এল স্মুল (@স্মুল_এল) রসিকতা করছে:

@স্মুল_এল:কেনিয়ার কোন এক স্থানে একটি ছাগল তার স্বামীকে অনুসন্ধান করছে

হজরত নুহ নবীর নৌকার সাথে এই বিষয়টি যুক্ত করে সনঅফফেট (@কাটশিয়োথো) মজা করেছেন:

@কাটশিয়োথো:এখন আমরা জানি কে হজরত নুহ নবীর নৌকার ওই সকল প্রাণীকে আনন্দে রাখত।

ক্রনিকল অফ উচিদা (@আর্নল্ড_ক্লে) লিখেছে:

@আর্নল্ড_ক্লে:গরুর কারণে ছেলেবন্ধু সম্পর্ক ছিন্ন করার ফলে কেনিয়ার এক বালিকার আত্মহত্যা।

সিলভার ইয়াকোয় (@সিলওয়াক্সওয়াই) একটি ধর্মীয় মন্তব্য করেছে :

@সিলওয়াক্সওয়াই: মাদাগাস্কারের পেঙ্গুইন যখন কেনিয়ায় গিয়ে হাজির হবে, তখন তাদের জন্য আমার প্রার্থনা রইল।

কেনিয়ার নাগরিকরাও উগান্ডার নাগরিকদের টুইটের জবাব প্রদান করেছে:

কেনিয়ার অনুসন্ধানী সাংবাদিক ডেনিস ওকারি (@ডেনিসওকারি)

@ডেনিসওকারি:তাহলে #কেনিয়াএন্ডএ্যানিমেল এই হ্যাশট্যাগ এখন কেনিয়ার আলোচিত ধারা

লেলি নেস্টো (@এলনেস্টো) উগান্ডাবাসীদের উপদেশ প্রদান করেছে:

@এলনেস্টো:উগান্ডার নাগরিকরা দয়া করে নিজেদের সামলাও… আমরা তোমাদের গবাদি পশু সম্বন্ধে পরে সবাইকে জানাব।

লোউস ওয়ানজিরু (@লুইসশিশ) টুইট করেছে:

@লুইসশিশ: হাহাহা উগান্ডার কোন এক স্থানে (#সামহোয়ারইনউগান্ডা) কোন একজন গাইছে, তুমি কোকিলের চেয়ে মিষ্টি, আর এখানে টুইটারে কেনিয়া আর পশু (#কেনিয়াএন্ডএনিমেল) নিয়ে তারা আমাদের সম্বন্ধে টুইট করছে।

ফ্রিল্যান্স সাংবাদিক মাক্সোন আইরো (@মাক্সোনাইরো) বলছে যে অবশেষে উগান্ডাবাসীরে কি ভাবে টুইট করতে হয় তা শিখেছে:

@মাক্সোনাইরো: অবশেষে উগান্ডাবাসীরা শিখেছে কি ভাবে টুইট করতে হয়… গত কয়েকদিন ধরে #কেনিয়ানসএন্ডএ্যানিমেলস টুইটারে আলোচিত ধারা।

*থাম্বনেইল ছবি উইকিপিডিয়া ব্যবহারকারী জেজরন (জন ও’নেইল)-এর দ্বারা ক্রিয়েটিভ কমন্স (সিসি বাই-এসএ ৩.০) এর মাধ্যমে প্রকাশিত

আলোচনা শুরু করুন

লেখকেরা, অনুগ্রহ করে লগ ইন »

নীতিমালা

  • অনুগ্রহ করে অপরের মন্তব্যকে শ্রদ্ধা করুন. যেসব মন্তব্যে গালাগালি, ঘৃণা, অবিবেচনা প্রসূত ব্যক্তিগত আক্রমণ থাকবে সেগুলো প্রকাশের অনুমতি দেয়া হবে না .